প্রচ্ছদ প্রবাস

দুর্নীতির অভিযোগে মালয়েশিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রী গ্রেপ্তার

29
দুর্নীতির অভিযোগে মালয়েশিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রী গ্রেপ্তার
পড়া যাবে: < 1 minute

 

দুর্নীতির অভিযোগে মালয়েশিয়ার প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী লিম গুয়ান ইঞ্জিকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। আন্ডারসেট টানেল প্রকল্পে ৬.৩ বিলিয়ন রিঙ্গিত দুর্নীতির অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ৬ আগষ্ট বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন সদর দফতরে  তাঁর বক্তব্য গ্রহণের পরে লিমকে রাত সাড়ে ৯ টার দিকে  গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া ২০১৬ সালে, লিমের উপর একটি জমি চুক্তি অনুমোদন এবং বাজার মূল্যের চেয়ে কম দামে একটি বাংলো কেনার ক্ষেত্রে ক্ষমতার অপব্যবহারেরও দুটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন কমিশন এক বিবৃতিতে জানায়, আজ (৭ আগস্ট) সকাল ১০ টায় এমএসিসি আইন ২০০৯ এর ধারা ১৬ (ক) (এ) এর অধীনে দুর্নীতির মামলায় বিশেষ আদালতে জ্যেষ্ঠ বিরোধী নেতা লিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হবে। এদিকে, এমএসিসি জানিয়েছে, মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) পেনাং দায়রা আদালতে এমসিসি আইনের ২৩ ধারায় লিমের বিরুদ্ধে পৃথক মামলার জন্যও চার্জ করা হবে। এমএসিসির চিফ কমিশনার দাতুক সেরি আজম বাকির বরাত দিয়ে বলা হয়েছে মামলার তদন্তের কাগজপত্র অ্যাটর্নি-জেনারেল চেম্বারে জমা দেওয়া হবে।গত ৩০ জুন, এমএসিসি আন্ডারসেট টানেল প্রকল্পে দুর্নীতির তদন্তে সহায়তা করতে পেনাং বন্দর কমিশনের (পিপিসি) প্রাক্তন উর্ধ্বতন এক কর্মকর্তাকে আটক করেছে কমিশন।

আরও পড়ুন:  আমিরাতের আজমানের ইরানি মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

পেনাংয়ের মুখ্যমন্ত্রী চৌ কন কন ইয়াও, পাশাপাশি বর্তমান এবং প্রাক্তন রাজ্য নির্বাহী কাউন্সিল সদস্যদেরও মেগা প্রকল্প সম্পর্কে এমএসিসির কাছে তাদের বক্তব্য দেওয়ার জন্য আহ্বান করা হয়েছিল। পেনাং রাজ্যের একটি আন্ডারসির টানেল প্রকল্পের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে মাসব্যাপী তদন্ত শুরু হয়, যা তিনি ২০০৮ সাল থেকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় এবং ২০১৮ সালে অর্থমন্ত্রী হিসাবে নিযুক্ত হওয়া পর্যন্ত। লিম গুয়ান ইঞ্জি মাহাথির মোহাম্মাদ নেতৃত্বাধীন প্রশাসনের অর্থমন্ত্রী ছিলেন, যা ফেব্রুয়ারিতে ভেঙে পড়ে।

তিনি মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় তহবিল ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ (ওয়ান এমডিবি) থেকে চুরি হওয়া কোটি কোটি টাকা উদ্ধারের প্রচেষ্টাতে অন্যতম প্রধান নেতা ছিলেন। গত মাসে নাজিবকে ক্ষমতার অপব্যবহার, অর্থ পাচার ও বিশ্বাসভঙ্গের অপরাধের সাতটি মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে তাকে ১২ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:  স্পেনে করোনা সম্পর্কে সচেতনতা এবং করণীয় বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 6
    Shares