প্রচ্ছদ রাজনীতি আওয়ামী লীগ

সরকারের বি*রুদ্ধে অ*পপ্রচার ,৯ জনের নামের তালিকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে

195
৯ জনের নামের তালিকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের পর সরকারের ওপর তেমন কোনো রাজনৈতিক চাপ নেই। কিন্তু একাধিক গোয়েন্দা সূত্র সরকারকে জানিয়েছে, সরকারের বি*রুদ্ধে নিত্যনতুন ষ*ড়যন্ত্র চলছে এবং দেশের চেয়ে দেশের বাইরে সরকারের ভাবমূর্তি ন*ষ্ট, সরকারকে একটি ক*র্তৃত্ববাদী সরকার হিসেবে প্র*তিপন্ন করার জন্য সক্রিয় একটি ম*হল কাজ করছে। খবর : বাংলা ইনসাইডারের

একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা এরকম ৯জনের একটি নামের তালিকা সরকারের নীতিনির্ধারকদের কাছে দিয়েছেন। যারা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সরকারের ইমেজ এবং ভা*বমূর্তি ন*ষ্ট, সরকারের বি*রুদ্ধে বিভিন্ন অ*পপ্রচার এবং কু*ৎসা র*টানোর জন্য কাজ করছে বলে গোয়েন্দাদের কাছে সুস্পষ্ট ত*থ্যপ্রমাণ রয়েছে।

এ তালিকার মধ্যে যাদের নাম রয়েছে, তাদের মধ্যে রয়েছেন ড. মুহাম্মদ ইউনূস, ড. কামাল হোসেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, সুজনের সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, সিপিডির  নির্বাহী পরিচালক ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ডেইলি স্টারের সম্পাদক মাহফুজ আনাম এবং টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে যে, সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের মা*নবাধিকার ল*ঙ্ঘন, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা এবং ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনকে প্র*শ্নবিদ্ধ করতে নানা সেমিনার, সি*ম্পোজিয়াম এবং অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে। সম্প্রতি ঢাকায় সুজনের উদ্যোগে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন নিয়ে এক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই সংলাপে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনকে প্র*শ্নবিদ্ধ করা হয়েছে। বলা হয়েছে যে এই নির্বাচনে সুস্পষ্টভাবে কা*রচুপি হয়েছে। নির্বাচন নিয়ে এই আলোচনাগুলোকে বহির্বিশ্বে, বিশেষ করে প্রভাবশালী দেশগুলোতে যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ করছেন ড. কামাল হোসেন এবং ড. মুহাম্মদ ইউনূস।

আরও পড়ুন:  জাফরুল্লাহ, নঈম নিজাম ও পীর হাবিবের বিরুদ্ধে মা’মলা

জানা গেছে যে, মার্কিন সিনেট এবং কংগ্রেসের কাছে এই গোলটেবিল বৈঠকের ক্লিপিংসগুলো পাঠানো হয়েছে। এই পাঠানোর কাজে সহায়তা করেছেন শান্তিতে নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস। সূত্রমতে, ইউনূস সেন্টারের অন্তত দুইজন কর্মকর্তা সরকারের ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের ব্যাপারে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মহলে দে*নদরবার করছেন। যেন তারা এই নির্বাচনের ব্যাপারে বিচার বিভাগীয় ত*দন্ত কমিশন গঠনের জন্য স*রকারের ওপর চা*প সৃষ্টি করে।

ড. কামাল হোসেনও নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশে অবস্থিত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠক করছেন। তাদের কাছে এই নির্বাচনের ব্যাপারে নানা নে*তিবাচক তথ্য তুলে ধরছেন। সাবেক বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বি*রুদ্ধে দু*র্নীতি দ*মন কমিশনের মা*মলার পর তিনিও তৎপর হয়ে উঠেছেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ভারতে স*রকারের বি*রুদ্ধে নানারকম অ*ভিযোগ উত্থাপন করছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, ভারতের একাধিক প্*রভাবশালীর কাছে সুরেন্দ্র কুমার সিনহা একটি চিঠি লিখেছেন, স*রকারের বি*রুদ্ধে তিনি মা*নবতা ল*ঙ্ঘনসহ বিভিন্ন অ*ভিযোগ উত্থাপন করেছেন।

আরও পড়ুন:  ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রে’ফতারি প’রোয়া’না স্থ’গিত করল হাইকোর্ট

ড. বদিউল আলম মজুমদার তার সুজনের তত্ত্বাবধানে সারাদেশে সরকারের বি*রুদ্ধে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন নিয়ে তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহে ব্যস্ত। আন্তর্জাতিক মহলে তিনি এই তথ্য উপাত্তগুলো সরবরাহ করছেন বলেও অ*ভিযোগ পাওয়া গেছে।

ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য সরকারের উন্নয়নকে চ্যা*লেঞ্জ করেছেন। তিনি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সেমিনারে বাংলাদেশের উন্নয়ন টেকসই নয় এবং অ*নতিবিলম্বে বাংলাদেশে যে বৈ*ষম্য বাড়ছে, বাংলাদেশে মা*নবাধিকার ল*ঙ্ঘনসহ বিভিন্ন সামাজিক অ*স্থিরতার ব্যাপারে নে*তিবাচক কু*ৎসা রটনা করছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

একই অ*ভিযোগে অ*ভিযুক্ত ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। মাহফুজ আনামও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং গণমাধ্যম বিষয়ক সংস্থায় নিয়মিত লবিং করছেন বলে জানা গেছে। অন্যদিকে টিআইবি সরাসরি সরকারের বিভিন্ন দু*র্নীতির ব্যাপারে গবেষণার নামে ত*দন্ত এবং সরকারকে বি*ব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য কাজ করছে।

গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এই ব্যক্তিদের ব্যাপারে স*রকারকে স*তর্ক থাকা এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে স*রকারের ভা*বমূর্তি ন*ষ্টের জন্য যে প্রচারণাগুলো চলছে সেই ব্যাপারে পাল্টা ব্*যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে সুপারিশ করেছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি