অপরাধআইন-আদালতরাজধানী

পরিত্যক্ত বাড়ি এমপির নামে দখলের অভিযোগে নথি দাখিলের নির্দেশ হাইকোর্টের

রাজধানীর গুলশানে একটি পরিত্যক্ত বাড়ি সরকারের সম্পত্তি নিজের নামে লিখে নিয়ে বাড়ি বানানোর অভিযোগে আব্দুস সালাম মুর্শেদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে ওই সম্পত্তি সম্পর্কিত সকল কাগজপত্র ১০ দিনের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে রাজউক, গণপূর্ত বিভাগ ও সালাম মুর্শেদীকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।আদালত আগামী ১৩ নভেম্বর পরবর্তী আদেশ ও শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন।

এর আগে ৩০ অক্টোবর পরিত্যক্ত বাড়িটি দখলের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। সালাম মুর্শেদী খুলনা-৪ আসন থেকে আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য।

রিট আবেদনে বলা হয়, রাজধানীর গুলশান-২’র ১০৪ নম্বর সড়কে সি ই এন (ডি)-২৭-এর ২৯ নম্বর বাড়িটি ১৯৮৬ সালের অতিরিক্ত গেজেটে ‘খ’ তালিকায় পরিত্যক্ত হিসেবে তালিকাভুক্ত। কিন্তু আব্দুস সালাম মুর্শেদী সেটি দখল করে বসবাস করছেন।

রিটে ২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল, ২০১৬ সালের ২০ জানুয়ারি ও চলতি বছরের ৪ জুলাই রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানকে দেওয়া গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের তিনটি চিঠি যুক্ত করা হয়েছে।২০১৫ ও ২০১৬ সালে দেওয়া চিঠিতে পরিত্যক্ত বাড়ির তালিকা থেকে বাড়িটি অবমুক্ত না হওয়ার পরও আব্দুস সালাম মুর্শেদী কীভাবে বাড়িটি দখল করে আছেন, রাজউক চেয়ারম্যানের কাছে এ ব্যাখ্যা চেয়েছিল পূর্ত মন্ত্রণালয়। কিন্তু রাজউক চেয়ারম্যান সে চিঠি আমলে না নেওয়ায় ফের ৪ জুলাই চিঠি দেওয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়, পরিত্যক্ত বাড়ির তালিকা থেকে ভবনটি অবমুক্ত না হওয়ার পরও কীভাবে রাজউক চেয়ারম্যানের দপ্তর থেকে সেটির নামজারি ও দলিল করার অনুমতি দেওয়া হলো, সে বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে অনুরোধ করা হয়। কিন্তু রাজউক চেয়ারম্যান সে ব্যাখ্যা দিতে অনীহা দেখিয়েছেন।

রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন সাংবাদিকদের বলেন, গুলশানের পরিত্যক্ত বাড়িটি গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সম্পদ। কিন্তু এটা রাজউকের সঙ্গে যোগসাজোশ করে দখলে রেখেছেন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও খুলনা থেকে নির্বাচিত এমপি সালাম মুর্শেদী।

বাড়িটির আনুমানিক মূল্য কয়েকশত কোটি টাকা হতে পারে। হাইকোর্ট রুল দিয়ে নথি তলব করেছেন। এখন শুনানি হলে বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।

রিট আবেদনে এ অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের নির্দেশনা চাওয়ার পাশাপাশি পরিত্যক্ত বাড়ি দখলের ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করা হয়।

বাড়িটির আনুমানিক মূল্য কয়েকশত কোটি টাকা হতে পারে। হাইকোর্ট রুল দিয়ে নথি তলব করেছেন। এখন শুনানি হলে বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।

বাংলা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Flowers in Chaniaগুগল নিউজ-এ বাংলা ম্যাগাজিনের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।ক্লিক করুন এখানে

Related Articles

Back to top button