বরগুনাবরিশালবিএনপিরাজনীতি

এবার ২দিনের পরিবহন ধর্মঘট ডেকেছে বরগুনা জেলা বাস মালিক গ্রুপ

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রগুনা বাস মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম মোস্তফা জানান, গাড়ির যন্ত্রাংশের মূল্যবৃদ্ধি, মহাসড়কে তিন চাকার যান বন্ধসহ দুই দফা দাবিতে শুক্র ও শনিবার দুই দিনের ধর্মঘট ডেকেছে বরগুনা জেলা বাস মালিক গ্রুপ।

গোলাম মোস্তফা বলেন, বরগুনা-বরিশাল আঞ্চলিক মহাসড়ক ও বরগুনার অভ্যন্তরীণ সড়কে অবৈধ কয়েক হাজার তিন চাকার যান চলাচল করছে। এসব যান বন্ধের দাবিতে তাঁরা আজ বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বৃহস্পতিবারের মধ্যে এসব সড়ক থেকে অবৈধ যান চলাচল বন্ধ করা না হলে শুক্রবার থেকে বরগুনা জেলার অভ্যন্তরীণ সব রুটের বাস চলাচল অনির্দিষ্টকালে জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে।

এর আগে বরিশাল জেলা বাস মালিক গ্রুপ শুক্র ও শনিবার দুই দিনের ধর্মঘটের ডাক দেয়। গত ২৫ অক্টোবর ঐ ঘোষণা দেয় তারা। পরে তিন চাকার যান, ভোলা ও বরিশাল নৌপথে লঞ্চ এবং স্পিডবোট ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে।

বরগুনা জেলা বিএনপির নেতাদের অভিযোগ, শনিবার বরিশালের বিভাগীয় গণসমাবেশ ভন্ডুল করতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ইন্ধনে এই ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। এ ছাড়া তাঁরা অভিযোগ করেছেন, বরিশালের গণসমাবেশকে কেন্দ্র করে বরগুনা সদর ও বেতাগী উপজেলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী পরিবার ও বিএনপির নেতারা অভিযোগ করেন, পুলিশ তল্লাশির নামে হয়রানি করছে। বিএনপির সমাবেশ বানচাল করতে এসব অভিযান চালানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগ এই সমাবেশকে বানচাল করতে এখন পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের একাধিক নেতা বলেন, বিএনপির দলীয় বড় কোনো কর্মসূচি কিংবা নির্বাচন এলেই পুলিশ এ রকম তল্লাশি অভিযান শুরু করে। গ্রেপ্তার এড়াতে তখন বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান করতে হয়।

বরিশালের গণসমাবেশকে সামনে রেখে কয়েক দিন আগ থেকেই বরগুনায় বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি পুলিশের তল্লাশি শুরু হয়েছে। গত তিন দিনে গভীর রাত থেকে ভোর পর্যন্ত এসব তল্লাশি-অভিযান চালানো হয়। তবে পুলিশের দাবি, নাশকতা ও বিশৃঙ্খলা এড়াতে অভিযানের অংশ হিসেবে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে।

বরগুনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মাহাবুবুল আলম বলেন, ‘পুলিশ আমাদের দলের নেতা-কর্মীদের বাসাবাড়িতে তল্লাশি চালাচ্ছে। জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক সালেহ ফারুক ও যুগ্ম আহ্বায়ক তালিমুল ইসলামের বাড়িতে গিয়ে বুধবার রাতে তল্লাশি করেছে। আমরা যাতে সমাবেশে আসতে না পারি, সে জন্য ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের নির্দেশে পুলিশ তল্লাশির নামে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে।’

বরগুনা সদর থানার ওসি আলী আহমেদ আজ বিকেলে বলেন, পরোয়ানাভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তারে নিয়মিত এমন অভিযান চলছে। কোনো বিশেষ উদ্দেশ্য নেই এতে।

বাংলা ম্যাগাজিনে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Flowers in Chaniaগুগল নিউজ-এ বাংলা ম্যাগাজিনের সর্বশেষ খবর পেতে ফলো করুন।ক্লিক করুন এখানে

Related Articles

Back to top button