প্রচ্ছদ জেলা অ*শ্লীল ছবি-ভিডিও ধারণ করে ছাত্রলীগ নেতার প্র*তারণা

অ*শ্লীল ছবি-ভিডিও ধারণ করে ছাত্রলীগ নেতার প্র*তারণা

45
পড়া যাবে: 5 মিনিটে
advertisement

একাধিক তরুণীর অ*ভিযোগের ভিত্তিতে সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য তৌহিদুর রহমান এহিয়াকে গ্রে*প্তার করেছে পুলিশ। এহিয়া সিলেট নগরীর মাহমুদুর রহমানের ছেলে। তার গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার চিছড়াওলি বুড়াইয়া বাজারে। গত শুক্রবার নগরীর সুরমা মার্কেট থেকে কোতোয়ালি থানা পুলিশ তাকে গ্রে*প্তার করে। তার বিরুদ্ধে প*র্নোগ্রা*ফি আ*ইনে মা*মলা দা*য়ের হয়েছে।

advertisement

শনিবার রি*মান্*ডের আবেদন জানিয়ে পুলিশ তাকে আ*দালতে হা*জির করে। এরপর আ*দালতের নির্দেশে তাকে কা*রাগা*রে প্রেরণ করা হয়েছে। রবিবার তার রি*মান্ড আ*বেদনের শু*নানি অনুষ্ঠিত হবে।

সিলেট কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিয়া জানান, এহিয়ার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে একাধিক তরুণী থানায় গু*রুত*র অ*ভিযোগ করেন। এরপর বিষয়টির ত*দন্তে নামেন এএসআই ইসমাইল হোসেন। নগরীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর সঙ্গে ৫-৬ মাস আগে ফেসবুকে পরিচয় হয় এহিয়ার।

সুদর্শন এহিয়া অল্প সময়েই ওই মেয়ের সঙ্গে প্রে*মের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। মেয়ের নগরীর শাহী ঈদগাহ এলাকার বাসায় যাতায়াতও শুরু করেন এহিয়া। গত ৯ জুলাই বিকেলে এহিয়া ওই তরুণীর বাসায় গিয়ে বিয়ের প্র*লোভ*ন দেখিয়ে তার সঙ্গে শা*রীরি*ক স*ম্পর্ক স্থা*পন করেন। এসময় গো*পনে তা নিজের মোবাইলে ধা*রণ করে রাখেন এহিয়া। এরপর এহিয়া বিয়ের ব্যাপারে গ*ড়িম*সি করলে তরুণী তার সঙ্গে যো*গাযোগ ব*ন্ধ করে দেন।

আরও পড়ুন:  ৫ বছর বয়সী শিশুর কান-যৌ’নাঙ্গ কে’টে পে’টে দুই ছু’রি ঢু’কিয়ে হ’ত্যার পর ঝু’লিয়ে রাখা হল গাছের ডালে

কিন্তু এহিয়া তরুণীর মোবাইলে ফোন করে শা*রীরি*ক সম্পর্ক চালিয়ে যেতে এবং আরো একা*ধিক মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করতে তাকে সহযোগিতার করার জন্য তরুণীকে চা*প দেন। অ*ন্যথায় নিজের মোবাইল ফোনে ধা*রণকৃত অ*ন্তরঙ্গ ছবি ও ভি*ডিও ক্লি*প ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছ*ড়িয়ে দেওয়ার হু*মকি দেন।

এরপর গত ১৭ জুলাই ওই তরুণী নগরীর একটি রেষ্টুরেন্টে এহিয়ার সঙ্গে দেখা করেন এবং এহিয়ার মোবাইল ফোনে নিজের অ*ন্তরঙ্গ ভিডিও দেখে হ*তভ*ম্ব হয়ে পড়েন। এ সময় তিনি ছবি ও ভিডিও ক্লি*পটি মু*ছে ফেলার জন্য এহিয়াকে কা*কুতি-মি*নতি করেন। কিন্তু এহিয়া উল্টো তাকে হু*মকি দেন। এরপর তরুণী নিজের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে থা*নায় অ*ভিযোগ দেন।

এদিকে এহিয়ার বি*রুদ্ধে একই ধরনের আরো একাধিক অ*ভিযোগ আগেই পেয়েছিল পুলিশ। গত ২৮ জুন নগরীর মদিনা মার্কেটের এক তরুণী এহিয়ার বিরুদ্ধে থা*নায় জি*ডি করেন।

জি*ডিতে তিনি উল্লেখ করেন, এহিয়া তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন নম্বর থেকে ফোন করে তরুণীকে জানিয়েছে তার কাছে তরুণীর কিছু একান্ত ব্য*ক্তিগত ভি*ডিও ক্*লিপ রয়েছে। তার সঙ্গে দেখা না করলে এগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছ*ড়িয়ে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন:  বিদ্যালয়ে উপস্থিত না থেকেও বেতন নেওয়া সেই এমপি রতনের স্ত্রী বরখাস্ত

এহিয়ার বি*রুদ্ধে একই রকম আরেকটি অ*ভিযোগ করেন দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজারের আরেক তরুণী। পুলিশ এহিয়ার মোবাইল ফোন ট্র্যা*ক করে এসব অ*ভিযোগের স*ত্যতা পায়।

এরপর অ*ভিযোগকা*রী এক তরুণীর সহযোগিতায় এহিয়াকে গ্রে*প্তারের ফাঁ*দ পা*তে পুলিশ। ওই তরুণী গত শুক্রবার এহিয়াকে জানান সুরমা মার্কেট এলাকায় তিনি তার সঙ্গে দেখা করবেন। সে অনুযায়ী এহিয়া একটি রেষ্টুরেন্টে গেলে আগে থেকে ও*ৎ পে*তে থাকা পুলিশ তাকে গ্রে*প্তার করে।

ওসি সেলিম মিয়া জানান, গ্রে*প্তারের পর এহিয়ার মো*বাইল ফোন ত*ল্লাশি করে একাধিক তরুণীর সঙ্গে তার অ*ন্তর*ঙ্গ ভি*ডিও পাওয়া গেছে। ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমো ব্যবহার করে তরুণীদের সঙ্গে অ*শ্লীল যো*গাযোগে*র প্র*মাণ মিলেছে। ওসি জানান, প্রাথমিক জি*জ্ঞাসাবা*দে এহিয়া তার প্র*তারণা*র কথা স্বী*কার করেছে। রি*মান্ডে নিয়ে তাকে ব্যা*পক জি*জ্ঞাসাবা*দ করা হবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

advertisement