প্রচ্ছদ বিশ্ব সংবাদ

বাজারে ন*কল দুধ তৈরিতে খরচ ৬ টাকা, বিক্রি ৬১ টাকায় !

25
পড়া যাবে: 4 মিনিটে

বাজারে এমন খাবার খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে, যার মধ্যে কোনো ভে*জাল বা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষ*তিক*র কোনো উপাদান মিশ্রিত নেই। বাজারে প্রতি লিটার ন*কল দুধ তৈরিতে সর্বমোট খরচ পড়তো ৫ রুপি (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৬.১৩ টাকা), আর বাজারে সেগুলো বিক্রি করা হতো ৪৫ থেকে ৫০ রুপিতে (৬১.৩১ টাকা)। পনিরের (নকল) দাম রাখা হতো প্রতি কেজি ১০০ থেকে ১৫০ রুপি।

স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষ*তিকর ন*কল দুধ উৎপাদনের দায়ে ভারতে অন্তত ৫৭ জনকে আ*টক করেছে পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। শুক্রবার (১৯ জুলাই) মধ্য প্রদেশের গোয়ালিয়ার-চাম্বাল এলাকার তিনটি ন*কল দু*ধের কারখানায় অভিযান চালিয়ে তাদের আ*টক করা হয়।

পুলিশের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, এ তিনটি কারখানায় তৈরি ক্ষ*তিকর ন*কল দুধ ও ন*কল দুধ তৈরির সরঞ্জাম দেশটির ছয়টি রাজ্য- মধ্য প্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, রাজস্থান, দিল্লি, হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রে ও পার্শ্ববর্তী দেশ বাংলাদেশে সরবরাহ করা হতো।

এসটিএফ পুলিশ সুপার রাজেশ ভাদোরিয়া বলেন, অভিযানে ১০ হাজার লিটার ন*কল দুধ, ৫শ’ কেজি ন*কল মাওয়া (দুগ্ধজাত পণ্য) ও ২শ’ কেজি ন*কল পনির জ*ব্দ করা হয়েছে। ২০টি ট্*যাংকার ও ১১টি পিকআপভর্তি এসব ন*কল দুধ ও পণ্য জ*ব্দ করা হয়। এসময় ওইসব কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ তরল ডিটারজেন্ট, পরিশোধিত তেল ও গ্লুকোজ পাউডার উ*দ্ধার করা হয়।

কর্মকর্তারা জানান, প্রতি লিটার ন*কল দুধ তৈরিতে এর মধ্যে ৩০ শতাংশ দুধ, পরিশোধিত তেল, তরল ডিটারজেন্ট, সাদা রং ও গ্লুকোজ পাউডার মেশানো হতো। একই পদ্ধতিতে ন*কল পনির বা এ জাতীয় খাদ্যদ্রব্য তৈরি করা হতো, যা ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের বড় বড় মার্কেটগুলোতে  ও পার্শ্ববর্তী দেশ বাংলাদেশে সরবরাহ করা হতো।

অভিযানে অংশ নেওয়া এক কর্মকর্তা জানান, কারখানা তিনটিতে দিনরাত ২৪ ঘণ্টাই টানা কাজ চলতো। প্রতিদিন তারা প্রায় ২ লাখ লিটার ন*কল দুধ উৎপাদন করতো।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, পুলিশের বেশকিছু কর্মকর্তাও এ চক্রের সঙ্গে জড়িত। তাদের চিহ্নিত করে শিগগিরই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়েছে পুলিশ।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

Loading...

আপনার মতামত লিখুন :

Loading Facebook Comments ...