প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

রূপসায় স্ত্রী হত্যায় স্বামীর আদালতে স্বীকারোক্তি

26
রূপসায় স্ত্রী হত্যায় স্বামীর আদালতে স্বীকারোক্তি
পড়া যাবে: < 1 minute

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনা জেলার রূপসা থানাধিন নেহালপুর গ্রামের মরিয়ম ওরফে ছোট (২৫) কে হত্যা করে দেবীপুর গ্রামের দিপক দাশের পানের বরজে ফেলে রাখার মামলায় আসামি নিহতের স্বামী মো. রফিক শেখ (৩৬) আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

গতকাল সোমবার তার দেয়া ফৌজদারী কার্যবিধির ১৬৪ ধারার জবানবন্দি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩ এর বিচারক মো. সাইফুজ্জামান রেকর্ড করেছেন। রফিক শেখ রূপসা থানাধিন নেহালপুর গ্রামের মৃত আবেদ শেখের ছেলে। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. শাহাবুদ্দিন গাজী আসামি রফিক শেখকে আদালতে হাজির করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট থানার মানসা গ্রামের মৃত. আবু বক্কর শেখের মেয়ে মরিয়ম ওরফে ছোট’র সঙ্গে ৩বছর আগে বিয়ে হয় রূপসা থানাধিন নেহালপুর গ্রামের মৃত আবেদ শেখের ছেলে মো. রফিক শেখের। বিয়ের পর থেকে তাদের সংসারে ঝগড়া লেগেই ছিল। ৫/৬ মাস পুর্বে তারা ফকিরহাটের বড় খাজুরা গ্রামের রকি খানের ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতে থাকে। ১৩ আগস্ট রাত ১টার দিকে রফিক মোবাইলে মরিয়মের মায়ের পাশের বাড়ি জানায় মরিয়মকে পাওয়া যাচ্ছে না। পরের দিন সকালে মরিয়মের মা হালিমা বেগম তাদের ভাড়া বাড়ির আশেপাশে খোঁজাখুজি করেও তার কোন সন্ধান পাইনি। ১৫আগস্ট বেলা ১২টার দিকে লোকমুখে হালিমা বেগস জানতে পারেন দেবীপুর গ্রামের দিপক দাশের পানের বরজে অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ পাওয়া গেছে। তিনি খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে এসে মেয়ের লাশ সণাক্ত করেন। এঘটনায় হালিমা বেগম বাদী হয়ে মো. রফিক শেখের বিরুদ্ধে রূপসা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন যার নং-৭।    

আরও পড়ুন:  মোড়েলগঞ্জের জিউধরায় কৃষকের ৫ বিঘা জমির বীজপাতা নষ্ট করার অভিযোগ

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।