প্রচ্ছদ ক্রিকেট তামিমের নেতৃত্বে যে ভাবে এক ম্যাচ আগেই সিরিজ হারল বাংলাদেশ

তামিমের নেতৃত্বে যে ভাবে এক ম্যাচ আগেই সিরিজ হারল বাংলাদেশ

25
পড়া যাবে: 5 মিনিটে
advertisement

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে হেরে ব্যাকফুটে বাংলাদেশ। আজ রোববার সিরিজ বাঁচানোর জন্য খেলতে নেমে দ্বিতীয় ম্যাচেও হারেন তামিমরা। এক ম্যাচ হাতে রেখেই তিন ম্যাচ সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নেয় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা।

advertisement

সিরিজ বাঁচানোর জন্য দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে টাইগাররা। ১০০ রান না পেরোতেই পাঁচ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিলেন তামিমরা। এক সময় ১৫০ রান হবে কি না, এমন সংশয় ছিল।

তবে মুশফিকের হার না মানা ৯৮ এবং মিরাজের ৪৩ রানের ইনিংসে কমরানে অলআউট হয়ে যাওয়ার লজ্জা থেকে বাঁচে বাংলাদেশ। মাত্র দুই রানের জন্য সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হলেন মুশফিক। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে আট উইকেট হারিয়ে ২৩৮ রান করে টাইগাররা।

ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই দুর্দান্ত খেলেন লঙ্কানরা। সর্বোচ্চ ৮২ রান করেন ওপেনার ফার্নান্দো। ম্যাথুস ৫২ ও মেন্ডিস ৪১ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। একটি করে উইকেটের দেখা পেয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমান।

বিশ্বকাপে টানা ব্যর্থতার পর শ্রীলঙ্কা সিরিজেও ব্যর্থ টাইগারদের ওপেনিং জুটি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ওপেনিং জুটি ভাঙে মাত্র ১ রানেই। আজ দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও বেশিদূর যেতে পারেননি তামিম-সৌম্য। ব্যক্তিগত ১১ রানে সৌম্য আউট হলে টাইগারদের ওপেনিং জুটি ভাঙে ২৬ রানে। সৌম্য ফিরে যাওয়ার পাঁচ রান পরেই আউট হন তামিম।

আরও পড়ুন:  সাকিব-তামিম'কে জয় উৎসর্গ করলে'ন সৌম্য

সৌম্য সরকার ১৩ বলে মাত্র ১১ রান করে নুয়ান প্রদীপের বলে এলবিডব্লিউর শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন। সৌম্য আউট হয়ে ফিরে গেলে তামিমও বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি। ৩১ বলে ১৯ রান করে উদানার বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন। দলকে বিপদে ফেলে মোহাম্মদ মিথুনও ফিরে যান ১২ রান করে।

মাহমুদুল্লাহর সামনে সুযোগ ছিল মুশফিকের সঙ্গে জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নেওয়ার। কিন্তু পারলেন না এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। ৬ রান করে ধনাঞ্জয়ার কাছে পরাজিত হয়ে ফেরেন সাজঘরে। গত ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা সব্বির এই ম্যাচে আশা দেখালেও পারেননি বড় ইনিংস খেলতে। সতীর্থদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ফিরে যান মোসাদ্দেকও। তার ব্যাট থেকে আসে ১৩ রান।

ব্যতিক্রম ছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মুশফিককের সঙ্গে ৮৪ রানের জুটি গড়েন তিনি। লঙ্কানদের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন ধনাঞ্জয়া, উদানা ও প্রদীপ।

আরও পড়ুন:  বাংলাদেশ বনাম ভারত বিশ্বকাপ খেলা দেখুন সরাসরি

টাইগারদের এমন দুর্দশায় তৃতীয় বাংলাদেশি হিসেবে ওয়ানডে ম্যাচে ছয় হাজার রান করে নতুন রেকর্ড গড়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম। আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে সিঙ্গেল রান নেওয়ার মাধ্যমে এই কীর্তি গড়েন। ২১৫ ম্যাচ খেলে ২০১ ইনিংসে ৩৫.৭১ গড়ে মুশফিক এই রান করনে। তার স্টাইকরেটে ৭৮.৮১। ছয় হাজার রান করতে মুশফিক ৩৬টি হাফসেঞ্চুরি ও ৭টি সেঞ্চুরি করেন।

মুশফিকের আগে ছয় হাজার রান করেন তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান।

প্রথম ম্যাচ হেরে যাওয়াতে আজ রোববার দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি টাইগারদের জন্য সিরিজ বাঁচানোর লড়াই। এই ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় খেলাটি শুরু হয়।

বাংলাদেশ একাদশে একটি পরিবর্তন নিয়ে আজ মাঠে নামে। পেসার রুবেল হোসেনকে বাদ দিয়ে একাদশে রাখা হয় স্পিনার তাইজুল ইসলামকে।

শ্রীলঙ্কা নেমেছে দুই পরিবর্তন নিয়ে। থিসারা পেরেরা দল থেকে বাদ পড়েছেন। আর মালিঙ্গা অবসর নিয়েছেন ওয়ানডে থেকে। এই দুজনের পরিবর্তে দলে এসেছেন উদানা ও আকিলা।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

advertisement