প্রচ্ছদ রাজনীতি বিএনপি

পূর্ণাঙ্গ হচ্ছে স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি

33
পূর্ণাঙ্গ হচ্ছে স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

দ্রম্নত সময়ের মধ্যে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি পূর্ণাঙ্গ করবে বিএনপি। সম্প্রতি সংগঠনের সভাপতি শফিউল বারী বাবুর মৃতু্যতে সংগঠনটি প্রায় নিস্ক্রিয় হয়ে পড়ে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে এবং শক্তিশালী অবস্থান ধরে রাখতে দ্রম্নত কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সূত্রমতে, আংশিক কমিটি মেয়াদপূর্ণ করলেও কমিটি গঠনের পর থেকে দলের শীর্ষ দুই নেতা শফিউল বারী বাবু ও আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল তাদের সাংগঠনিক দক্ষতায় দেশব্যাপী বিভিন্ন পর্যায়ের কমিটি গঠন করে সংগঠনকে শক্তিশালী ভিতের উপর দাঁড় করতে সক্ষম হয়। এরই মধ্যে গত ২৮ জুলাই সভাপতি বাবুর মৃতু্যতে বড় ধরনের ধাক্কা লাগে সংগঠনটিতে। তাই দ্রম্নত সময়ের মধ্যে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে বিএনপির হাইকমান্ড।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ৭ সদস্যবিশিষ্ট আংশিক কমিটির মেয়াদ পার হওয়ায় পূর্ণাঙ্গ কমিটির মেয়াদ কতদিন হবে তা নিশ্চিত নয়। তবে অল্পসময়ের জন্য এই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হচ্ছে। আগের কমিটি ছিল ৩৩৩ সদস্যবিশিষ্ট। এবারের কমিটি ৩০১ সদস্যবিশিষ্ট হতে পারে।

২০১৬ সালের ২৭ অক্টোবর ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিউল বারী বাবুকে সভাপতি ও ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলকে সাধারণ সম্পাদক করে স্বেচ্ছাসেবক দলের ৭ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটিতে সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক করা হয় সাইফুল ইসলাম ফিরোজকে। আর সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয় ইয়াসিন আলীকে।

আরও পড়ুন:  মৌলভীবাজার বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক’র মৃত্যুতে মির্জা আলমগীর’র শোক

এই কমিটির মেয়াদ এরইমধ্যে পেরিয়ে গেছে।

সূত্রমতে, পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে ছাত্রদলের সাবেক নেতাদের মধ্যে ত্যাগী ও যোগ্যদের পদ দেয়ার নির্দেশনা ছিল হাইকমান্ডের। খসড়ায় তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে কিনা এখন তা যাচাই করা হচ্ছে। এছাড়া সম্প্রতি ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় (আংশিক) কমিটিতে বিবাহিত নেতাদের পদ দেওয়া হয়নি। তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী এ সংগঠনে পদ দেওয়া হবে। খসড়া সংযোজন-বিয়োজন করে যে কোনো সময় কমিটি ঘোষণা করা হবে।

সূত্র জানায়, আংশিক কমিটি ঘোষণার এই কমিটি গত ৩ বছর ১০ মাসে দেশের ৮১টির মধ্যে ৭৫টি জেলাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কমিটি গঠন করে। করোনাকালীন সময়ে প্রায় সকল ইউনিটে প্রায় ৪ লাখ পরিবারকে আর্থিক সহয়তা খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও হ্যান্ড সেনিটাইজার এবং মাস্ক সরবরাহ করে। যা চলমান রয়েছে। এছাড়া বন্যা পরিস্থিতিতে সকল অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নেতাকর্মীরা কাজ করে যাচ্ছে। কমিটি গঠন ও স্বেচ্ছাসেবার বিভিন্ন তৎপরতা চালাতে সংগঠনটির তেমন কোনো সমস্যা না হলেও সর্বশেষ গত জুলাইয়ে ঢাকা মহানগরের থানা কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক প্রতিবাদের মুখে পরতে হয় শীর্ষ নেতৃত্বকে। এনিয়ে বিদ্রোহীরা কমিটি বাতিলের দাবিতে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করে এবং বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে চিঠিও দেয়।

খোঁজ নিযে জানা গেছে, স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি গঠনে আন্দোলনকারীদের অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করেছে বিএনপির দায়িত্বশীল পর্যায়ের নেতারা। মূলত সুযোগ্য অসংখ্য নেতার অনুপাতে পদের সংখ্যা কম থাকায় এই সমস্যা হয়েছে বলে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে। এজন্য আন্দোলনকারীদের যোগ্যতা অনুযায়ী মূল্যায়ন করার আশ্বাসের পাশাপাশি বিশৃঙ্খলার জন্য সাংগঠনিক ব্যবস্থার নেয়ার বিষয়ে সতর্ক করা হবে।

আরও পড়ুন:  পদ হারাতে পারেন কাউন্সিলর ইরফান সেলিম!

পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন এবং বিক্ষোভের বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল বলেন, কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার কাজ চলছে। দ্রম্নত সময়ে হবে আশা করি। বিক্ষোভের বিষয়ে জুয়েল বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের মতো বড় সংগঠনে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা আছে। তাই সবাইকে সমানভাবে মূল্যায়ন করা সম্ভব হয় না। তবে সবাইকে ভিন্ন ভিন্নভাবে যথাযথ মূল্যায়ন করার চেষ্টা হবে। এরপরেও সাংগঠনিক কাজে কেউ বিশৃঙ্খলা তৈরি করলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দ্রম্নত সময়ের মধ্যে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার পাশাপাশি বাকি থাকা জেলা ও ইউনিয়নসহ অন্যান্য কমিটি গঠন করে আন্দোলন সফলের কার্যকরী সংগঠন হিসেবে গড়ার উদ্যোগ নিয়েছে স্বেচ্ছাসেবক দল। এর সার্বিক তদারকি করার জন্য যুব ও ছাত্রদলের আদলে বিভাগীয় টিম গঠনের বিষয়ে সংগঠনের নীতি-নির্ধারকরা ভাবছেন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 11
    Shares