প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

১২০ কোটি টাকার ব্রিজ নির্মাণের আগেই ভেঙে পড়ল গার্ডার

75
পড়া যাবে: < 1 minute

ঝিনাইদহ শহরের ধোপাঘাটা এলাকায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীন ১২০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রিজের দু’টি বৃহৎ আকারের গার্ডার (বেষ্টক) ভেঙে পড়েছে। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ২০ জন শ্রমিক। রোববার (৪ আগস্ট) দুপুরে এই ঘটনা ঘটে। ব্রিজে গার্ডার ভেঙে পড়ার সময় বিকট শব্দে এলাকা কেঁপে ওঠে।

ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের একটি সুত্র জানায়, জাইকার অর্থায়নে মনিকা লিমিটেড পিডব্লউ ০৩ প্যাকেজের আওতায় ব্রিজটি নির্মাণ করছে। দেড় বছর ধরে পাইলিং ও মাটি ভরাটের কাছ শেষে এখন ব্রিজের দুই পাশে গার্ডার দেওয়ার কাজ চলছিল।

আরও পড়ুন:  ৩২৯ ভারতীয় অনুপ্রবেশকারীকে আ’টক করেছে বিজিবি

কোম্পানীর ম্যানেজার ওলিউর রহমান জুয়েল জানান, জগ দিয়ে গার্ডার স্থানান্তরিত করার সময় অসাবধানবশত প্রায় একশ ফুট দৈর্ঘ্য গার্ডার দু’টি নিচে পড়ে ভেঙে গেছে। শ্রমিকরা এ সময় খাবার গ্রহণ করায় বড় ধরণের কোন ক্ষতি হয়নি। তবে এতে প্রায় ৫০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, কাজে ত্রুটি থাকার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। পরিদর্শন করে দেখা গেছে, ব্রিজের কাজে ব্যবহৃত পাইপ ও সার্টারগুলো দীর্ঘ দিনের পুরানো ও মরিচা ধরা। প্রায় দেড় শ টন ওজনের দুইটি গার্ডারের ভর সইতে না পারায় গার্ডার দুইটি পড়ে গেছে। বিষয়টি নিয়ে প্রজেক্ট ম্যানেজার আব্দুস সালাম গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

আরও পড়ুন:  আবিরের কা'টা মা'থা খুঁজে বের করতে অ'ভিযান চালানো হচ্ছে

তবে সাইট ইঞ্জিনিয়ার শাহাদত হোসেন জানান, বিষয়টি জেনে বুঝে বলা যাবে। তবে নিশ্চয় কাজে কোন ত্রুটি ছিল। ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নজরুল ইসলাম জানান, আমরা এ কাজের দেখভাল করছি না। ঢাকা থেকে একটি প্রজেক্টের মাধ্যমে কাজটি হচ্ছে। এই প্রজেক্টের একটি অফিস যশোরে আছে। তাদের সাথে কথা বলুন। আমরা ব্রিজ নির্মাণের কোন খোঁজই রাখি না বলে নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম জানান।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি