প্রচ্ছদ বাংলাদেশ দেশের যুবকের তৈরি লার্ভা নিধনের কার্যকর ওষুধ ফিরিয়ে দিল সিটি করপোরেশন!

দেশের যুবকের তৈরি লার্ভা নিধনের কার্যকর ওষুধ ফিরিয়ে দিল সিটি করপোরেশন!

43
পড়া যাবে: < 1 minute

গত কয়েকদিনে রাজধানীতে ম*হামা*রির রূপ নিয়েছে ডেঙ্গু। ছোট শিশু থেকে বৃদ্ধ অনেকেই আক্রান্ত হচ্ছেন ডেঙ্গু জ্বরে। সবার মধ্যে আ*তঙ্ক ডেঙ্গু নিয়ে। ইতিপূর্বে দেশে বিভিন্ন সময় ডেঙ্গু রোগ দেখা গেলেও এবারের মতো ভ*য়াবহ ছিল না। এবার যেমন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তেমনি মৃ*ত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে ডেঙ্গু আতঙ্ক বিরাজ করছে দেশের সর্বত্র।

সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে ১৪ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হলেও বেসরকারি হিসাবে এ সংখ্যা অর্ধশত ছাড়িয়ে গেছে। সিটি কর্পোরেশনের মশা ধ্বংসকারী ওষুধ কাজ করছে না। নতুন ওষুধ বিদেশ থেকে আনার ক্ষেত্রে সৃষ্টি হয়েছে দীর্ঘসূত্রিতার। এমতাবস্থায় এক ব্যক্তি তৈরি করেছেন এডিস মশার লার্ভা ধ্বংসকারী ওষুধ।

বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের অ্যাডিশনাল সেক্রেটারি মাহবুব কবীর মিলন নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এডিস মশার লার্ভা ধ্বংসের ওষুধ তৈরির ব্যাপারটি শেয়ার করেছেন।

আরও পড়ুন:  বিএনপির জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা দরকার,তারা ডেঙ্গু প্রতিরোধেও ব্যর্থ

তিনি লিখেছেন, ‘এক ভদ্রলোক নিজ প্রচেষ্টায় এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করার ঔষধ বানিয়ে আমার অফিসে এসে দেখালেন। তিনি জানালেন, এই ঔষধ ক্ষতিমুক্ত এবং মশার ডিম এবং লার্ভা ধংসে শতভাগ কার্যকরি।’

‘তিনি আমার টেবিলে তা পরীক্ষা করে দেখালেন। সাথে নিয়ে এসেছিলেন এক ডিব্বা ডিম এবং লার্ভা। গ্লাসে দেখা যাচ্ছে ঔষধ দেয়ার পর ৩ মিনিটের মধ্যেই লার্ভা ম*রে গেল। তার মতে মশা মা*রার চেয়ে বেশি দরকার ডিম এবং লার্ভা ধ্বংস করা। কারণ ডিম মাসের পর মাস থেকে যায় এবং তা থেকে লার্ভা, পিউপা হয়ে পূর্ণ মশায় পরিণত হয়।’

আরও পড়ুন:  জেনে নিন টাইফয়েড ও ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধে কী করা উচিত

মাহবুব মিলন শেষে লিখেছেন, ‘তিনি সিটি কর্পোরেশনে গিয়েছিলেন তার এই ঔষধ নিয়ে। সেখান থেকে বলা হয়েছে নিজে থেকে তা বাজারজাত করতে। তারা কিছু করতে পারবেন না এ বিষয়ে।’

এমন নেতিবাচক খবরে ক্ষুব্ধ হয়েছেন সোশ্যাল সাইট ব্যবহারকারীরা। তারা মাহবুব মিলনের পোস্টে কমেন্ট করে জানতে চাইছেন, দেশের এমন জরুরি অবস্থায় যেখানে এডিস মশা ধ্বংসের উপায় খুঁজতে হয়রান হয়ে যাওয়ার কথা, সেখানে সিটি কর্পোরেশনের কাজটা কী? অন্য দেশ হলে যেখানে প্রতিটি উপায় লুফে নিয়ে পরীক্ষা করে দেখত, সেখানে আমাদের সিটি কর্পোরেশন পাত্তাই দিচ্ছে না! বাংলাদেশ দেখেই এমন অবহেলা সম্ভব বলে মন্তব্য করছেন অনেকে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট: