প্রচ্ছদ বাংলাদেশ শিক্ষাঙ্গন

চবিতে অধ্যাদেশ লঙ্ঘন করে ডিনদের মর্যাদাহানি, সভা বয়কট

13
চবিতে অধ্যাদেশ লঙ্ঘন করে ডিনদের মর্যাদাহানি, সভা বয়কট
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ক্যাম্পাস প্রতিনিধি  :   চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ-১৯৭৩ লঙ্ঘন করে ডিনদের মর্যাদাহানির অভিযোগ উঠেছে। অধ্যাদেশ অনুযায়ী যেখানে উপাচার্য ও উপাচার্যের পরই ডিনদের অবস্থান সেখানে তা না মেনে সিনেট প্রতিনিধি, সিন্ডিকেট সদস্য ও একাডেমিক কাউন্সিলের সদস্যদের রাখা হয়েছে। এ নিয়ে শনিবার (২৯ আগস্ট) বিকেলে অনুষ্ঠিতব্য এক জরুরি সভা বয়কটের ঘোষণাও দিয়েছেন ডিনরা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঢাকা, জাহাঙ্গীরনগর ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশে ডিনদের পদমর্যাদা উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পরেই। এতদিন ধরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এ নিয়ম মেনে আসলেও নতুন উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার দায়িত্ব নেয়ার পর নতুন ডিন নির্বাচিত হয়। এ নিবার্চনে উপাচার্যপন্থীদের ভরাডুবি হয়। এরপর থেকেই নতুন ডিনদের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয় তার। করোনা পরিস্থিতিতেও উপাচার্যের নেয়া কোনো সিদ্ধান্তে ডিনদের না রাখারও অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশে করোনাকালীন ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা যে একাডেমিক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে তা কীভাবে পুষিয়ে দেয়া যায় সে বিষয়ে একাডেমিক কাউন্সিলকে সুপারিশ প্রদানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে কমিটি গঠন করতে বলা হয়। সেই লক্ষ্যে গঠিত কমিটির ১ম সভা আহ্বান করা হয় শনিবার (২৯ আগস্ট) বিকেলে। যা চট্টগ্রাম শহরে অবস্থিত চারুকলা ইনস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।

আরও পড়ুন:  করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রূপালী ব্যাংকের ডিজিএম

কিন্তু একাডেমিক শাখার ডেপুটি রেজিস্ট্রার এস এম আকবর হোসাইন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তিতে ডিনদের স্থান দুই নং ক্রমিকে থাকার বিধি থাকলেও তা অমান্য করে ছয় নং ক্রমিকে রাখা হয়েছে। যা বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের সরাসরি লঙ্ঘন।

বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ ১৯৭৩-এর সেকশন ১০ এ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের যে পদমর্যাদা উল্লেখ করা হয়েছে সেখানে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যদের পরেই ডিনদের অবস্থান। এখন যেহেতু উপ-উপাচার্যই উপাচার্য পদে আসীন তাই উপাচার্যের পরেই এখন ডিনদের পদমর্যাদা। ডিনরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচিত একাডেমিক প্রধান।

খোঁজ নিয়ে আরও জানা যায়, ঢাকা, রাজশাহী ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বেশ কিছু একাডেমিক বিজ্ঞপ্তিতে ডিনদের পদমর্যাদা দেয়া হয়েছে সবার ওপরে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন ডিন বলেন, উপাচার্য তার উপদেষ্টাদের উক্ত সভায় উপস্থিত রাখার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত বিধি ভঙ্গ করার অপতৎপরতা চালাচ্ছেন। তিনি ডিনদের সম্মান ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করছেন। কারণ ডিনরা আওয়ামীপন্থী হলেও উপাচার্যের পছন্দের লোক নয়। তাই মর্যাদাহানির কারণে আমরা আজকের নির্ধারিত সভা বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

আরও পড়ুন:  একের পর এক নৃশংস ঘটনায় আতঙ্কিত মানুষ

এ বিষয়ে জানতে চাইলে একাডেমিক শাখার ডেপুটি রেজিস্ট্রার এস এম আকবর হোসাইন বলেন, কমিটি গঠন করেছেন রেজিস্ট্রার সাহেব। এ বিষয়ে তিনিই ভালো জানবেন।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ফরমেশন অনুযায়ী কমিটি গঠন করা হয়েছে। এখানে কোনো নিয়মের ব্যত্যয় হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে বারবার চেষ্টা করেও চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares