প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

ভাড়ায় স্বস্তি ফিরলেও মানা হচ্ছে না ‘স্বাস্থ্যবিধি’

20
ভাড়ায় স্বস্তি ফিরলেও মানা হচ্ছে না ‘স্বাস্থ্যবিধি’
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

করোনাকালীন ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহার করে মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) থেকে আগের ভাড়ায় ফিরেছে রাজধানীর গণপরিবহনগুলো। তবে ভাড়ায় স্বাভাবিকতা আসলেও যাত্রীদের মাঝে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনও বালাই দেখা যাচ্ছে না।

আব্দুস সালাম মোহাম্মদপুর থেকে মতিঝিলে অফিসে যেতে প্রতিদিন অফিস করেন। প্রতিদিনই তাকে গণপরিবহনে যাতায়াত করতে হয়। করোনা ভাইরাসের শুরু থেকেই তিনি নিয়মিত গণপরিবহনে যাতায়াত করছেন। করোনাকালীন মোহাম্মদপুর থেকে মতিঝিলে যাতায়াতের জন্য তাকে গুণতে হয়েছে অতিরিক্ত ৪০ টাকা। কিন্তু আজ তিনি ভাড়া কম দিলেও তার পাশে বসা আরেক যাত্রীর মুখে ছিল না মাস্ক। অন্যদিকে, বাসের হেলার, সুপারভাইজার ও চালকের মুখেও মাস্ক দেখা যায়নি। এ কারণে আব্দুস সালাম মনে করছেন, অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করলেও স্বাস্থ্যবিধি মানার যে প্রবণতা যাত্রীদের মাঝে ছিল আজ থেকে তা অনেকাংশেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। এতে করে বাসে থাকা অন্যান্য যাত্রীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে।

গণপরিবহন আগের ভাড়ায় ফেরার প্রথম দিন সকাল থেকে রাজধানীর গাবতলী, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, শ্যামলী, ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, শাহবাগ, প্রেসক্লাব ও পল্টন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ যাত্রীই মাস্ক ছাড়া বাসে যাতায়াত করছে। বাসের হেল্পারদেরও দেখা যায়নি যাত্রীদের শরীরে কোনও প্রকার স্প্রে করতে। এ বিষয়ে অভিযোগও জানিয়েছেন সাধারণ যাত্রীরা।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার মোড়ে বাসের অপেক্ষায় দাঁড়িয়েছিলেন বেসরকারি চাকরিজীবী সোলায়মান হায়দার। তিনি ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘মিরপুরে যাওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে আছি। কিন্তু কোনও বাসেই সিট পাইনি৷ সিট না পাওয়ার কারণে একসাথে গাদাগাদি করে বাসে ওঠার ঝুঁকি নিইনি।’

গুলিস্তানগামী রজনীগন্ধা বাসের সুপারভাইজার রফিক মিনা ব্রেকিংনিউজকে জানান, আজ থেকে আগের ভাড়া নেয়া হচ্ছে যাত্রীদের থেকে। কোনও প্রকার অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া হচ্ছে না।’

আরও পড়ুন:  বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৭৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বাড়তি ভাড়া না নিলেও অতিরিক্ত যাত্রী নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা জোর করে কোনও যাত্রীকে বাসে তুলছি না। অনেকেই গেটে ধাক্কাধাক্কি করে বাসে উঠে পড়েন। এতে করে আমাদের করার কিছুই থাকে না।’

রাজধানীর প্রেসক্লাব মোড়ে দায়িত্বরত ট্র্যাফিক পুলিশ হাসান মাদমুদ ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘আজ প্রতিটি বাসেই অতিরিক্ত যাত্রী নিতে দেখা যাচ্ছে। যাত্রীদের মধ্যেও কোনও সচেতনতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। বাসের হেল্পার-সুপারভাইজারদেরও কোনও প্রকার স্বাস্থ্যবিধি মানতে দেখা যাচ্ছে না।’

অন্যদিকে, দূরপাল্লার বাসে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুষ্টিয়াগামী এসবি পরিবহনের যাত্রীরা এই প্রতিবেদকের কাছে অভিযোগ করেছেন করোনার আগে ঢাকা থেকে কুষ্টিয়ার ভাড়া ছিল সাড়ে ৪০০ টাকা। করোনাকালীন ৬০ শতাংশ বর্ধিত করে নেয়া হয়েছিল ৭২০ টাকা। আর আজ থেকে সরকার ভাড়া কমালেও সাড়ে ৪০০ টাকার পরিবর্তে সেই ভাড়া নেয়া হচ্ছে ৫০০ টাকা।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ ব্রেকিংনিউজকে জানান, সব পরিবহন সংগঠন এবং সারাদেশে তাদের পরিবহন নেতাদের চিঠি দিয়ে আগের ভাড়ায় ফিরে যেতে নির্দেশ দিয়েছেন। এই নির্দেশ যাতে মানা হয় সেজন্য তারা নজর রাখবেন। কেউ নির্দেশ না মানলে সমিতি থেকে বাদ দেয়াসহ কঠোর অবস্থানের কথা জানান তিনি।

এদিকে, গণপরিবহনের পাশাপাশি মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ারিং সেবাও চালু হচ্ছে ১ সেপ্টেম্বর থেকে। এ ক্ষেত্রেও মোটরসাইকেল চালক ও যাত্রীকে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে এতদিন এই সেবা বন্ধ থাকলেও গত জুন মাসে যখন থেকে গণপরিবহন চলতে শুরু করে, তখন থেকেই পরিমাণে কম হলেও মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ারিং সেবা চালিয়ে গেছেন অনেকেই।

আরও পড়ুন:  চীনে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার

গত ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর ২৬ মার্চ থেকে সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ করে দেয় সরকার। এপ্রিল ও মে মাসে ওই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকার পর ৩১ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাস, লঞ্চ ও রেল চলাচলের অনুমতি দেয় সরকার। তবে বাসে অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাকি অর্ধেক আসনে যাত্রী তোলার অনুমতি দেয়া হয়। সেক্ষেত্রে যাত্রীদের কাছ থেকে ৬০ শতাংশ বাড়তি ভাড়া নেয়া যাবে বলে জানায় সরকার।

তবে সরকারি বিধিনিষে সত্ত্বেও সরেজমিনে জুন মাসের শুরু থেকেই দেখা গেছে, অনেক বাসই অর্ধেক আসনে যাত্রী তোলার বিধানটি মানেনি। গণপরিবহন কম থাকায় অনেক সময় যাত্রীরাও স্বাভাবিক সময়ের মতোই গন্তব্যে পৌঁছাতে বাসে ওঠার জন্য হুড়োহুড়ি করেছেন। অন্যদিকে, ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া আদায়ের অনুমতি থাকলেও অনেক রুটে অনেক বাসই দ্বিগুণ ভাড়া আদায় করেছে। এখন সব সিটে যাত্রী তোলার সুযোগ করে দেয়ায় আগের ভাড়ায় ফিরেছে গণপরিবহন। তাতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি থাকলেও আগের ভাড়ায় ফেরত যাওয়ার সুযোগ করোনার এই সংকটকালে অনেককেই স্বস্তি দেবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 10
    Shares