প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের বিরুদ্ধে নাজমার কঠোর বিদ্রোহ

42
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের বিরুদ্ধে নাজমার কঠোর বিদ্রোহ
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তারকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ের অভ্যন্তরে বিক্ষোভ ও মিছিল করেছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত তারা অবস্থান নিয়ে স্লোগান ও মিছিলে কার্যালয় মাতিয়ে রাখেন। পরে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ তাদেরকে বুঝিয়ে সেখান থেকে চলে যাওয়ার আহবান জানালে তারা কার্যালয় ত্যাগ করেন।

আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র জানায়, ঢাকা-১৮ আসনের মনোনয়নকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে। এ আসনে নাজমা আক্তার মনোনয়ন চেয়ে দলীয় ফরম কিনেছেন। তার পাশাপাশি আরো ৫৫ জন এ আসনের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।দলীয় মনোনয়ন এখনো ঘোষণা হয়নি। এর আগেই ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিব হাসানের মনোনয়ন চূড়ান্ত বলে খবর বেরিয়েছে। এতে ক্ষুব্ধ হন নাজমা আক্তার ও তার অনুসারীরা।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের সভাপতির কার্যালয়ে আসছেন জেনে সকালে সেখানে জড়ো হন যুব মহিলা লীগের নেতাকর্মীরা। তারা আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করতে যান। তবে, তখনও নাজমা আক্তার না এসে পৌঁছায় তারা ওবায়দুল কাদেরকে সেখানে কিছুক্ষণ থাকার অনুরোধ জানান।

আরও পড়ুন:  করোনায় আক্রান্ত টাঙ্গাইল-৮ আসনের এমপি জোয়াহেরুল

তবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অন্য কাজ থাকায় চলে যান। এরপরই বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন নেতাকর্মীরা। তারা স্লোগান দিতে থাকেন, ‘নাজমা আপার ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই’, ‘হাবিব হাসানের দালালেরা হুঁশিয়ার-সাবধান’, ‘টাকা খাওয়া দালালেরা হুঁশিয়ার-সাবধান’, ’৭১ এর দালালেরা হুঁশিয়ার-সাবধান’। নাজমা আক্তারের মনোনয়ন চেয়েও স্লোগান দেন তারা। একপর্যায়ে দলের সভাপতির কার্যালয়ের ভেতরে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি হয়। এর মধ্যেই সেখানে এসে পৌঁছান নাজমা আক্তার। পরে আবারও শুরু হয় স্লোগান। এভাবে থেমে থেমে দিনভর স্লোগান-মিছিলে দলের সভাপতির কার্যালয় মাতিয়ে রাখেন তারা। এ দৃশ্য নেতাকর্মীদের অনেকের ফেসবুক পেজে লাইভও করা হয়।

পরে সন্ধ্যায় সেখানে পৌঁছান মতিয়া চৌধুরী, ড. হাছান মাহমুদসহ অন্য নেতারা। মতিয়া চৌধুরী যুব মহিলা লীগের নেতাকর্মীদের সামনে বক্তব্য দিয়ে তাদেরকে মিছিল-স্লোগান থেকে নিবৃত্ত করেন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে নাজমা আক্তার বলেন, একটি সংবাদপত্রে ঢাকা-১৮ আসনে একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। কিন্তু দলের পক্ষ থেকে কাউকে মনোনয়ন দেওয়ার কথা এখনও জানানো হয়নি। সংবাদপত্রে ছাপানো নিউজ দেখে দলের দায়িত্বশীলদের কাছে ঘটনার বিষয়ে জানার চেষ্টা করি। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের কাছে বিষয়টি জানতে চাই। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি। শুধু তাই নয়, গত দু’মাস ধরে তিনি ফোন ধরছেন না। এমনকি যুব মহিলা লীগ ও ছাত্রলীগের সাবেক নেত্রীরাসহ তার বাসায় দেখা করতে গেলেও তিনি দেখা করেননি। স্বাভাবিকভাবেই তাদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। আর আজকের ঘটনা তারই বহিঃপ্রকাশ।

আরও পড়ুন:  বিএনপি মহাসচিব মির্জা আলমগীর এর বিবৃতি

প্রসঙ্গত, পাঁচটি শূন্য আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ১৪১ জনের মধ্য ঢাকা-১৮ থেকেই মনোনয়ন কিনেছেন যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমাসহ ৫৬ জন।গত রোববার বিকেল ৪টায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা হয়। সভায় পাবনা-৪ আসনের মনোনয়ন ঘোষণা করা হলেও ঢাকা-১৮ আসনসহ বাকি চারটির আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়নি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 62
    Shares