প্রচ্ছদ বিশ্ব সংবাদ

কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘকে বিশ্বাস করা যাবে না

113
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সমর্থনের বিষেয়ে জনসাধারণকে বিশ্বাস করতে নিষেধ করেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। মন্ত্রী বলেন, ‘বোকার স্বর্গে বাস করা উচিত নয়। কেউ সেখানে (নিরাপত্তা পরিষদ) হাতে মালা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে না। সেখানে কেউ আপনার জন্য অপেক্ষা করবে না।’ গত সোমবার দেশটির একটি গণমাধ্যমে সম্প্রচারিত এক সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের জনগণের উদ্দেশে তিনি একথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আবেগকে হাওয়া দেওয়া সহজ এবং কোনো বিষয় নিয়ে আপত্তি তোলা আরও সহজ। কঠিন হলো বিষয়টি বুঝে তারপর সামনে এগোনো। তারা (জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ) আপনাদের জন্য হাতে ফুলের মালা নিয়ে অপেক্ষা করছে না। স্থায়ী পাঁচ সদস্য রাষ্ট্রের একজনও বাধা সৃষ্টির জন্য যথেষ্ট। আপনারা বোকার স্বর্গে বাস করবেন না।’

ভারত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে স্পষ্ট করে বলেছে, জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা অপসারণের জন্য সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদটি বাতিল করার পদক্ষেপ একটি অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং পাকিস্তানকে ‘বাস্তবতা মেনে নেওয়ার’ পরামর্শও দিয়েছে।

ইতিমধ্যেই নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য রাশিয়া ভারতের সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতেই মূলত জনগণকে জাতিসংঘের সমর্থন পাওয়ার আগাম আশা করে না থাকতে আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রী। কিন্তু নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশ চীন কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেও সরাসরি কিছু বলেনি। তবে কাশ্মীরের ব্যাপারে দেশটি নিরাপত্তা পরিষদে পাকিস্তানের পাশে থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন কুরেশি।

সম্প্রতি ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদের অধীনে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের একটি প্রস্তাব এবং ওই রাজ্যকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল-জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ-এ বিভক্ত করার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে ভারত।

এরপর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের ভেতর চলছে ঠাণ্ডা লড়াই। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ ক্ষমতা খর্ব করার পর থেকেই পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে। তবে ভারতের সংবিধান থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলের এই সিদ্ধান্তকে প্রথম থেকেই প্রতিবাদ করে আসছে পাকিস্তান।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 418
    Shares
Loading...

আপনার মতামত লিখুন :

Loading Facebook Comments ...