প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

প্রকল্প সাত লাখ টাকার: কাজ হয়নি ছিটেফোঁটা

13
প্রকল্প সাত লাখ টাকার: কাজ হয়নি ছিটেফোঁটা
পড়া যাবে: < 1 minute

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :

যশোরের মণিরামপুর উপজেলাটি দেশের অন্য উপজেলা থেকে আয়তনে বেশ বড়। আয়তন বেশি হওয়ায় এই উপজেলায় বসবাস পাঁচ লাখেরও অধিক মানুষের। তাই এই উপজেলায় সরকারি দপ্তরগুলোতে কাজের চাপও বেশ। প্রতিদিন উপজেলা চত্বরে অবস্থিত বিভিন্ন দপ্তরে বহুমানুষ আসেন নানা কাজে। ব্যস্ততম দপ্তরগুলোর মধ্যে উপজেলা সাব-রেজিষ্টার অফিস একটি। কাজের চাপ থাকায় এখানে আগতদের সকাল থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত বাইরে দাঁড়িয়ে বা বসে অপেক্ষায় থাকতে হয়।
আগত এসব সেবাগ্রহীতাদের ভোগান্তি কমাতে একটি বসার জায়গার দাবি দীর্ঘদিনের। সেই দাবি মেটাতে এবং উপজেলা চত্বরের অভ্যন্তরে শিশুদের বিনোদনের জন্য সাত লাখ টাকার একটি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরে বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পের (এডিপি) অর্থায়নে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু চলতি বছরের ৩১ জুন প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলেও এখনো এই প্রকল্পের কোন কাজই হয়নি। আর হবে কিনা তাও জানেন না কেউ। ফলে প্রকল্পের সাত লাখ টাকা কার পকেটে ঢুকছে সেটাই এখন প্রশ্ন।
মণিরামপুর উপজেলা প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম উপজেলা চত্বরে কাজের জন্য সাত লাখ টাকার প্রকল্প গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শিশুদের বিনোদনের জন্য ও সাব-রেজিষ্টার অফিসের সামনে আগতদের বসার জন্য সাত লাখ টাকার একটি প্রকল্প ছিল। এখনো কোন কাজ হয়নি। এবার কাজ করানো হবে না বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
জানতে চাইলে মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হাসান বলেন, প্রকল্প আছে শুনেছি। কাগজপত্র না দেখে কিছু বলতে পারব না। তাছাড়া ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি বাদে প্রেসে বক্তব্য দেওয়া নিষেধ আছে।

আরও পড়ুন:  কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরিফুর রহমান করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।