প্রচ্ছদ অর্থ ও বাণিজ্য

বেনাপোল বাজারে ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে কাঁচা মরিচ

13
বেনাপোল বাজারে ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে কাঁচা মরিচ
পড়া যাবে: < 1 minute

নিজস্ব প্রতিবেদক : বন্দর নগরী বেনাপোল বাজারে কাঁচা মরিচ কেজি প্রতি ২৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর শুকনা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৩০০ টাকায়। 

শনিবার বেনাপোলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে কাচা মরিচের দামের এ তথ্য জানা গেছে । সেই সাথে লাগামহীন ভাবে বাড়ছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য। ক্রয় ক্ষমতার বাইরে যাওয়ায় সমস্যায় পড়েছে নিন্ম আয়ের মানুষেরা।

ভ্রাম্যমান আদালত, জেল-জরিমানার মত কঠোর আইন প্রনয়ন করেও কোন ভাবেই যেন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমানো যাচ্ছে না।তবে ব্যবসায়ীরা বলছে বন্যা ও বৃষ্টির কারণে কাঁচা মরিচ সহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বেড়েছে। বাজার করতে আসা নিন্ম আয়ের অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম তাদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।করোনার কারনে তাদের আয় রোজগার নেই। তারপরও পরিবারের জন্য ধারদেনা করে বাজার করতে হচ্ছে। 

আরও পড়ুন:  কোভিড-১৯ এর ধাক্কা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে নরসিংদী দেশীয় বস্ত্র শিল্প

মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে ৩৮ টাকার কেজি মোটা চাউল এখন বিক্রি হচ্ছে ৪৪ টাকা, ৪০ টাকার কাঁচা ঝাল ২০০ টাকা, ৪০ টাকার পেয়াজ ৪৫ টাকা, রসুন ১০০ টাকা, ২০ টাকার বেগুন ৭০ টাকা, ১০ টাকার পেপে ৩০ টাকা, ২০ টাকার কাঁচকলা ৫০ টাকা, বরটি ৪০ টাকা, কুচুর লতি ৪০ টাকা, কচুর মুখি ৪০ টাকা,  আলু ৩৫টাকা, টমাটা ১০০টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৩০টাকা, বাঁধা কপি ৫০টাকা, ঝিনকা ৩০টাকা, লাউ ৩০টাকা, কাকলো ৩০টাকা, আমড়া ৩০টাকা। 

সকল ধরনের সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বাড়ার ব্যাপারে ব্যবসায়ীরা বলেন, বন্যা ও বৃষ্টির ফলে কাঁচা তরিতরকারীর ফলন  ব্যাহত হয়েছে। তাছাড়া করোনার কারনে বাইরে থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য কম আসার কারনে চাহিদার তুলনায় দ্রব্যের মজুত কম থাকায় জিনিস পত্রের দাম বাড়ছে।

আরও পড়ুন:  প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা উপেক্ষা করেই শ্যামলীর সঙ্গে রেলের চুক্তি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।