প্রচ্ছদ Featured News

মানুষ ভুলে যায় যে ম*রে গে*লে কিছুই সঙ্গে নেওয়া যাবে না, ক*বরে একাই যেতে হবে

54
পড়া যাবে: 4 মিনিটে

অন্ধের মতো ঘু*ষের টা*কার ছুটে বেড়িয়ে নিজের সবকিছু ন*ষ্ট করার কী অর্থ থাকে? কার কত আয়, সেটা বুঝে ব্যয় করা উচিত। জীবনটা সবার ভালোভাবে চলুক সেটা আমরা চাই। ঘু*ষ লে*নদে*নকা*রীদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে কাজের গতি চলে আসবে। এমন মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঘু*ষ গ্রহণকারীর পাশাপাশি ঘু*ষ দাতার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘যে ঘু*ষ নেবে তার বি*রুদ্ধে তো ব্যবস্থা নিতে হবেই আর যে দেবে তার বি*রুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। কারণ দু’জনই অ*পরাধী। এই বিষয়টা মাথায় রেখে সেভাবে ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।’

আজ রবিবার (১৮ আগস্ট) সকালে প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পবিত্র ঈদুল আজহা পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ও সচিবসহ তার কার্যালয়ের কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কে কত আয় করলো, কে কত খরচ করলো তারও একটা হিসাব থাকা উচিত। বিশেষ করে,বড় ধরনের খরচের। কে কোন খাতে, কোন উদ্দেশ্যে খরচ করছে, তার সেই আয়ের উৎস কী এর হিসাব রাখা প্রয়োজন।’

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পবিত্র ঈদুল আজহা পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়

তিনি বলেন, ‘চাওয়া-পাওয়ার সীমা আছে। সম্পদের সীমা আছে। মানুষ আসলে অন্ধ হয়ে যায় অর্থের জন্য। কিন্তু এটা ভুলে যায় যে ম*রে গে*লে কিছুই সঙ্গে নেওয়া যাবে না, ক*বরে একাই যেতে হবে। যা রেখে যাবে সেটা আর কোনওদিন তার কাজে লাগবে না। আর যদি বেশি রেখে যায় তবে ছেলে-মেয়ের সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়। ওই নিয়ে মা*রামা*রি কা*টাকা*টি শুরু হয়ে যাবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সম্পদের পেছনে অন্ধের মতো ছুটে বেড়ানো আর নিজের সবকিছু নষ্ট করার কোনও মানে হয় না। মানুষের আয় বেড়েছে, কর্সংস্থান বেড়েছে। উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও অর্থনৈতিক লেনদেন বেড়েছে। সেজন্যই এ বিষয়টা মাথায় রেখে এগিয়ে যেতে হবে যে। যে ঘু*ষ দেবে সেও যেমন দো*ষী, যে নেবে সেও দো*ষী।’ দু*র্নীতি*র বিষয়ে দু*র্নীতি দ*মন ক*মিশন (দু*দক) যথেষ্ট সক্রিয় আছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 386
    Shares