প্রচ্ছদ অপরাধ গ*ণধ*র্ষণ করেও পুলিশ সদস্যরা বাইরের হাওয়া খাচ্ছে,আর আমার বোনকে মিথ্যা মা*মলায় জা*মিন...

গ*ণধ*র্ষণ করেও পুলিশ সদস্যরা বাইরের হাওয়া খাচ্ছে,আর আমার বোনকে মিথ্যা মা*মলায় জা*মিন দিচ্ছে না আদালত

খুলনা জিআরপি থানায় পুলিশের গ*ণধ*র্ষণ

101
পড়া যাবে: 4 মিনিটে
advertisement

খুলনা জিআরপি থানায় পুলিশের গ*ণধ*র্ষণ মা*মলার ১০দিন অতিবাহিত হলেও কোন আ*সামি গ্রে*ফতার হয়নি। তদন্তকারী কর্মকর্তা জানান, ত*দন্ত কার্যক্রম চলছে। আর ওসি উছমান ও এসআই নাজমুলকে ক্লো*জড করা হয়েছে। কিন্তু এখনও কাউকে গ্রে*ফতার করা হয়নি।

advertisement

ভু*ক্তভো*গীর বোন হোসনে আরা বলেন, “আদালতের নির্দেশে মা*মলা হলেও আ*সামি*দের এখনও গ্রে*ফতা*র করা হচ্ছে না। আ*সামিরা সকলেই পুলিশ এবং তাদেরতো পা*লিয়ে থাকার কোন কথা নয়। কিন্তু তাদের কেন গ্রে*ফতার করা হচ্ছে না। আর পুলিশের ফাঁ*সানো মা*মলায় আমার বোন এখনও কা*রাগা*রে। তার জা*মিন পর্যন্ত হচ্ছে না। আর অ*পরা*ধ করেও পুলিশ সদস্যরা বাইরের হাওয়া খাচ্ছে।”

ত*দন্তকা*রী কর্মকর্তা কুষ্টিয়া রেলওয়ে সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফিরোজ আহমেদ বলেন, “ত*দন্ত কার্যক্রম অ*ব্যাহত রয়েছে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে এ মা*মলায় সন্তো*ষজন*ক ফ*লাফল দেওয়া সম্ভব হবে।”

আরও পড়ুন:  বেগম খালেদা জিয়াকে ব*ন্দী করার কারনে আওয়ামী লীগকে জবাবদিহি করতে হবে

তিনি বলেন, “দুই পুলিশসদস্য ওসি উছমান গণি ও এসআই নাজমুলকে ক্লো*জড করে পাকশিতে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু এ মা*মলার আ*সামি পাঁচ পুলিশের কাউকেই এখনও পর্যন্ত গ্রে*ফতা*র করা হয়নি।”

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা ‘মানবাধিকার’ র সমন্বয়কারী এ্যাডভোকেট মোঃ মোমিনুল ইসলাম বলেন, “মা*মলা ন*থিভু*ক্ত হওয়ার পর ত*দন্ত কার্যক্রমের পাশাপাশি আ*সামিদে*র গ্রে*ফতা*র করারও বি*ধান রয়েছে। এখনও আ*সামিদে*র গ্রে*ফতার করা না করা দুঃখজনক।”

প্রসঙ্গত, ২ আগস্ট যশোর থেকে ট্রেনে খুলনায় আসার পথে গৃহবধূকে মোবাইল চু*রির অ*ভিযোগে আ*টক করে খুলনা রেল স্টেশনে কর্তব্যরত জিআরপি পুলিশের সদস্যরা। পরে রাতে জিআরপি থানায় আনার পর ওসি উছমান গনি পাঠানসহ পাঁচপুলিশ সদস্য ধ*র্ষণ করে তাকে।

পরদিন শনিবার তাকে পাঁচবো*তল ফে*ন্সিডি*লস*হ একটি মা*মলা*য় গ্রে*ফতার দেখিয়ে খুলনার সিনিয়র জু*ডিসি*য়াল ম্যা*জিস্ট্রেট আ*মলী আ*দালত ফুলতলায় প্রেরণ করা হয়।

আরও পড়ুন:  ভ*য়ঙ্ক*র খু*নি এরশাদ শিকদারের বডিগার্ড মুক্তি পাচ্ছেন

৪ আগস্ট আ*দালতে জা*মিন শু*নানিকা*লে জিআরপি থানায় ধ*র্ষণের বিষয়টি আ*দালতের সামনে তুলে ধরেন তিনি। ৭ আগস্ট ওসি উছমান গণি পাঠান ও এসআই নাজমুলকে ক্লোজড করে পাকশি নেওয়া হয়। ৮ আগস্ট পাকশি ও ঢাকা থেকে গঠিত পৃথক ২টি ত*দন্ত টিমের সদস্যরা আ*দালতের অনুমতি নিয়ে জেল গেটে ভু*ক্তভো*গীর জ*বানব*ন্দি গ্রহণ করেন।

এরপর আ*দালতের নির্দেশে ৯ আগস্ট পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে জিআরপি থানায় মা*মলা দা*য়ের করা হয়। মা*মলার ত*দন্তকারী অফিসার হিসেবে ফিরোজ আহমেদকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। তিনি ম্যা*জিস্ট্রেট আ*দালতে ভু*ক্তভো*গীকে জি*জ্ঞাসা*বাদে*র জন্য ১৪ আগস্ট আ*বেদন করেন। আ*বেদনের শুনানি সোমবার হওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 680
    Shares
advertisement