প্রচ্ছদ উপজেলা কুমিল্লায় জ্যান্ত বৃদ্ধা মা’কে ক*বরে রেখে গেল পা*ষন্ড সন্তানরা!

কুমিল্লায় জ্যান্ত বৃদ্ধা মা’কে ক*বরে রেখে গেল পা*ষন্ড সন্তানরা!

179
পড়া যাবে: 4 মিনিটে
advertisement

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ধোড়করা-চাঁনকার দীঘি সড়কের পাশে পাঠানপাড়ার একটি ক*বরস্থানে আজ থেকে চারদিন আগে একজন বৃদ্ধ মহিলাকে (৬৮) রেখে যায় তার স্বজনরা।

advertisement

সড়ক থেকে মহিলাকে স্পস্টভাবে দেখা না যাওয়ায় ঘটনা জানাজানি হয়নি। ২২ আগস্ট বৃহস্পতিবার ঘটনাটি এলাকাবাসী ও স্থানীয় সাংবাদিকরা জানলে বিকেলে সাংবাদিকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবদুল্লাহ আল মাহফুজের নির্দেশে মহিলাকে উদ্ধার করা হয় অবশেষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশের একটি টিম।

মানবতার কাজ করায় উৎসুক জনতা পুলিশকে ধন্যবাদ জানান। স্থানীয়রা জানায়, কে বা কারা চারদিন আগে খুরশিদা বেগম নামের বৃদ্ধ মহিলাটিকে ক*বরস্থানে রেখে যায়।

এ সময় তার পাশেই চার প্যাকেট মুড়ি, চারটি পানির বোতল, একটি মশার কয়েল ছিল। মহিলাটি কথা বলতে পারে। কিন্তু নিজের নাম, গ্রাম বা অন্য পরিচয় কারও কাছে বলে না।

আরও পড়ুন:  ‘আমি রাতে আসব, তুমি রেডি থেকো’

বিশেষ করে ছেলেদের নাম জিজ্ঞেস করলে ক্ষিপ্ত হয়ে। এবং জানায় যে, ক্যান্টেনম্যান্ট(কুমিল্লা) এলাকার মেহেরাজের জামাই রায়হান ও বিজয়পুরের সবুজের বাপে জানে কেন আমাকে তাঁরা এখানে রেখে গেল। আর কিছুই বলতে চান না তিনি।

গত চারদিন আশ-পাশের মহিলারা খাবার নিয়ে আসলে তিনি নেন এবং সময় মতো খান। এক পর্যায়ের বৃহস্পতিবার বিকেলে খবর পেয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবদুল্লাহ মাহফুজের নির্দেশে কনকাপৈত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই কামাল হোসেনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় বৃদ্ধ মহিলাকে উদ্ধার শেষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে কনকাপৈত পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই কামাল হোসেন জানান, ‘খবর পেয়ে বৃদ্ধ মহিলাকে উদ্ধার শেষে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে’। বতর্মানে সে চৌদ্দগ্রাম সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে।

আরও পড়ুন:  আওয়ামী লীগ দেয় ‘বিদ্যুৎ’ আর বিএনপি দেয় ‘খাম্বা’

এলাকার মুরুব্বীরা জানান, পাষন্ড সন্তানরা মায়ের সেবা না করতে পেরে এ কান্ডটি ঘটিয়েছে। মহিলাটি ফেনী-নোয়াখালির আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 504
    Shares
advertisement