প্রচ্ছদ রাজনীতি বিএনপি

রাজশাহীতে মহিলা দলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

14
রাজশাহীতে মহিলা দলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ২৩ সেপ্টেম্বর ২০, আজ শনিবার বিকেলে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী মহিলা দলের আয়োজনে নগরীর মালোপাড়াস্থ বিএনপি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহিলা দলের যুগ্ম আহবায়ক এ্যাডভোকেট রওশন আরা পপি। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা, সাবেক রাসিক মেয়র ও সংসদ সদস্য জননেতা মিজানুর রহমান মিনু। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও রাসিক সাবেক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শফিকুর হক মিলন। প্রধান বক্তা ছিলেন, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সহিদুন্নাহার কাজি হেনা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন যুগ্ম আহবায়ক সখিনা খাতুন।এছাড়াও মহানগর বিএনপি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়ালিউল হক রানা, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হক ডিকেন, মহানগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইট, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা মহিলা দলের সভাপতি সামসাদ বেগম মিতালী, মহানগর মহিলা দলের যুগ্ম আহবায়ক সামসুন নাহার, নুরুন্নাহার, গুলসান আরা মমতা, জরিনা, ডেইজি, রোকসানা পারভীন লাকী ও নিলুফার ইয়াসমিন, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের রাজশাহী বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি, সভাপতি আসাদুজ্জামান জনি ও যুগ্ম আহবায়ক আকবর আলী জ্যাকিসহ মহিলা দল, বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের অন্যান্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।প্রধান অতিথির বক্তব্যে মিনু বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান নারী অধিকার ও নারী উন্নয়নে নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহন করেছিলেন। এই সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার জন্য তিনি জাতীয়বাদী মহিলা দল গঠন করেছিলেন। তিনি বলেন, দেশের ক্রান্তিকালে নারীরা সর্বদা সামনে থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে, বর্তমানেও করছে। তিনি আরো বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে একনায়কতন্ত্র তথা অলিখিত বাকশাল কায়েম করেছেন। তাঁর কোন কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করা যাবেনা। কেউ করলে তাকে দেশদ্রোহি বানিয়ে কারাগারে প্রেরণ করছে।শুধু তাই নয় দেশের সব থেকে সফল তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, আপোসহীন নেত্রী জননেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে বিদায় করে দিতে এই সরকার প্রধানের ইশারায় মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়েছে। বর্তমানে তিনি বিশেষ জামিনে থাকলেও দেশের বাহিরে যেতে পারছেন না। এক রকম গৃহবন্দী অবস্থায় তাঁকে রাখা হয়েছে। তিনি এতটাই অসুস্থ যে দেশের বাহিরে নিয়ে গিয়ে চিকিৎিসা করা প্রয়োজন। কিন্তু এই বিনা ভোটের সরকার তা করতে দিচ্ছেনা।তিনি বলেন, বেগম জিয়াকে তিলে তিলে মেরে ফেলার গভীর ষড়যন্ত্রে এই সরকার লিপ্ত হয়েছে। এই ষড়যন্ত্র কোনভাবেই সফল হতে দেয়া হবে না। দ্রুত সময়ের মধ্যে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু করা হবে। এই আন্দোলনে অতিতের ন্যায় মহিলা দলের সদস্যদের সম্মুখে থাকার আহবান জানান মিনু। বক্তব্য শেষে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও তাঁর পরিবারের সকল মৃত ব্যক্তি, বিশ্বের সকল মুসলমান মৃতব্যক্তির রুহের মাগফেরাত ও বেগম খালেদা জিয়ার আশুরোগ মুক্তি এবং মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

আরও পড়ুন:  হাসপাতালগুলোকে সেবার মান বাড়াতে হবে : ওবায়দুল কাদের

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares