প্রচ্ছদ প্রবাস

সিঙ্গাপুরে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশী যেভাবে প্রতা’রকদের দ্বারা প্র’তারিত হচ্ছে!

7
সিঙ্গাপুরে হাজার হাজার প্রবাসী বাংলাদেশী যেভাবে প্রতা’রকদের দ্বারা প্র’তারিত হচ্ছে!
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

আ’ইনবি’রোধী কিছু করা বা প্রচলিত আ’ইন অ’মান্য করাই অ’পরাধ। প্রচলিত আ’ইন অ’মান্য করলে শা’স্তি পেতে হবে

এটাই স্বাভাবিক। তবে বিভিন্ন দেশে অ’পরাধের ধরন বিভিন্ন রকম। সি’ঙ্গাপুরে যেটা অ’পরাধ ঠিক সেই কাজটা

আমা’দের দেশে স্বাভাবিক। আমা’দের দেশে প্রকাশ্যে যেখানে সেখানে থুথু ফেললে কোনরকম শা’স্তির সম্মুখীন ’হতে হয় না।

বাংলাদেশে যদি হঠাৎ প্রকাশ্যে থুথু ফেলাকে নি’ষি’’দ্ধ করে আ’ইন প্রনয়ণ করা হয়, তাহলে আমা’দের তা মেনে নিতে

সময় লাগবে।কারন বহুদিন যাব’ত প্রচলিত অভ্যাস, আম’রা সহজে ত্যা’গ করতে পারব না অথচ সি’ঙ্গাপুরে প্রকাশ্যে

যেখানে সেখানে থুথু ফেলা অ’পরাধমূলক কাজ। কেউ প্রকাশ্যে থুথু ফেললে তাকে প্রচলিত আই’ন অনুসারে তৎক্ষণাৎ জরিমা’না করা হয়।

এমন অনেক ধরনের কাজ আছে, যা আমা’দের দেশে সহজ স্বাভাবিক, কিন্তু সি’ঙ্গাপুরে তা অ’পরাধ হিসেবে গন্য করা হয়।

যেমন ,আমা’দের দেশে প্রকাশ্যে যেখানে সেখানে দাঁড়িয়ে প্রসাব করা,প্রকাশ্যে থুথু ফেলা, চুইংগাম খাওয়া, প্রকাশ্যে খাবার খেয়ে

যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলা স্বাভাবিক ব্যাপার অথচ সি’ঙ্গাপুরে প্রকাশ্যে এই কাজগু’লো করলেই বড় অংকের জরিমা’না গু’নতে হয়।

আর এইসমস্ত ছোটখাটো অ’পরাধে, সি’ঙ্গাপুরে আগত সব দেশের অ’ভিবাসীরা জ’ড়িয়ে পড়েন।তারা ইচ্ছাকৃতভাবে বা অজ্ঞতাবশত কারনে যে করে তা নয়, এই অ’পরাধগু’লোর সাথে তারা জ’ড়িয়ে পড়েন বহুদিনের অভ্যাসবশত কারনে।

তবে সি’ঙ্গাপুরে কিছু বাংলাদেশী অ’পরাধ কর্মের সাথে জ’ড়িতে। যা আমা’দের সবার জন্য ল’জ্জাজনক।

আমা’দের দেশে অ’পরাধ বলতে বুঝি খু’ন করা ,ধ’র্ষন করা ,চু’রি করা ,মা’দক ব্যবসা করা অথবা কি’ডন্যাপ করা।কেউ যদি বলে, সি’ঙ্গাপুরে অ’পরাধের সাথে বাংলাদেশীরা জ’ড়িত আর এই অ’পরাধের কথা শোনা মাত্রই অ’পরাধের একটা কাল্পনিক চিত্র মনে মনে অঙ্কিত করি।

তখন মনে হয় বাংলাদেশীরা এমন ভয়ং’কর অ’পরাধের সাথে জ’ড়িত। বাস্তবে এমন ভয়ং’কর অ’পরাধের সাথে বাংলাদেশীরা জ’ড়িত নাই বললেই চলে।আর এমনিই সি’ঙ্গাপুরে অ’পরাধ প্রবণতার হার পৃথিবীর অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক কম।

আরও পড়ুন:  সিঙ্গাপুরঃ অভিনব উদ্যোগ, কতোটা সফল হবে!

তবে লক্ষ্য করার বি’ষয় হল, সি’ঙ্গাপুরে বাংলাদেশী কর্মীদের সুখ্যাতি যা অন্য দেশের কর্মীদের নেই বললেই চলে।

সি’ঙ্গাপুরে বাংলাদেশীদের বলা হয় ভদ্র ,কর্মঠ ,ধার্মিক, পরোপকারী, সাহিত্য অনুরাগী,দানবীর।তাই সি’ঙ্গাপুরে সি’ঙ্গাপুরে অ’ভিবাসী কর্মীরা সুনামের সহিত কাজ করে যাচ্ছে।এতে তারা লাল সবুজের পতাকা বিশ্ব দরকারে সম্মানিত করছে।

সি’ঙ্গাপুরে আসার পর আমি লক্ষ্য করেছি প্রবাসে দেশের সম্মান বৃ’দ্ধি করতে একদল লোক দিনরাত মেহনত করছে। আর কিছু লোক প্রবাসে এসেও প্র’তারণা করে দেশের মান-সম্মান ধূলোয় মিশিয়ে দিচ্ছে।

গত কয়েক মাসে আমাকে প্রায় দুইশত লোক কল অ’ভিযোগ করে বলেছে তারা সি’ঙ্গাপুরে স্বদেশীদের দ্বারা প্র’তারিত হয়েছেন৷ তাদের অনেকেই সি’ঙ্গাপুরে লোক আনার কথা বলে টাকা নিয়ে পালিয়েছেন। এই মহা’মা’রীর সময়ও প্র’তারকরা থেমে নেই৷ তারা প্রবাসীদের ভালো জব অফার করে, ভালো কোম্পানিতে চাকরি দেবার প্র’লো’ভন দেখিয়ে কয়েক লক্ষাধিক টাকা নিয়ে পালিয়েছে।

গতকাল একজন প্রায় কান্নাজড়িত কন্ঠে বলল, ওম’র ভাই এক বাংলাদেশী ভাই আমাকে বলেছিলো ভালো একটি কোম্পানিতে অধিক বেতনে চাকরি দিবে। আমি তার কথায় রাজি হই। সে আমা’র কাছে দুই হাজার ডলার দাবী করে। আমা’র কাছে কোন টাকা ছিলো না। টাকা থাকবে কি করে। সি’ঙ্গাপুরে আসার এক স’প্তাহ পরেই লকডাউনে পড়ে যাই। কোম্পানি যে বেতন দিয়েছে তা দিয়ে কোনরকমে এতদিন চলেছি।

এদিকে বাড়িতে অনেক ঋ’ণ৷ কি করবো বুঝে উঠতে না পেরে অধিক বেতনের লোভ সামলাতে না পেরে তাকে এক হাজার ডলার দেবার জন্য রাজি হই। সে এডভান্স ৫ শত ডলার চায়। আমি বন্ধুদের নিকট ঋ’ণ করে তাকে ৫ শত ডলার দেই। এরপর সে আমা’র সাথে যোগাযোগ করা বন্ধ করে দিয়েছে।এখন কি করবো বুঝে উঠতে পারছি না। প্লিজ আমাকে সঠিক পরাম’র্শ দিন।

আরও পড়ুন:  জেদ্দা-ঢাকা ২১ আগস্ট এর বিশেষ ফ্লাইটের রেজিস্ট্রেশন চালু হয়েছে!

এই ভাইয়ের মতো এমন হাজার হাজার প্রবাসী এই মহা’মা’রীর সময় প্রতা’রকদের দ্বারা প্র’তারিত হয়েছেন। কেউ চাকরির ক্ষেত্রে, কেউ অনলাইনে কেনাকা’টা করে। আর সবচেয়ে দু::খজনক ব্যাপার হলো এই প্র’তারকরা সবাই বাংলাদেশী৷ প্রবাসে এসেও এরা প্র’তারণা করে যাচ্ছে। এইভাবে নিরীহ প্রবাসীদের সাথে প্র’তারণা করে হা’রাম উপার্জন করা অর্থ দিয়ে তারা কি করবে আমা’র বুঝে আসে না।

কয়েকদিন আগে সি’ঙ্গাপুর জনশক্তি মন্ত্রনালয় থেকে বলা হয়েছিলো, চাকরি পাবার ক্ষেত্রে যেনো আম’রা লাইসেন্স প্রা’প্ত এজেন্সিগু’লোর সাথে লেনদেন করি৷ এমনকি লেনদেন করলে যেনো তার প্রমান স্বরুপ টাকার প্রদানের র’শিদ বুঝে নেই৷ তবুও সহজ সরল প্রবাসীরা দা’লালদের সাথে লেনদেন করা বন্ধ করেনি।

প্র’তারকদের কাছ থেকে অর্থ ফিরে পাবার ব্যাপারে সি’ঙ্গাপুর পু’লিশের সাথে আলাপ করলে তারা জানায়, প্র’তারকরা লেনদেন করার জন্য সেসব ব্যাংক একাউন্ট করে সেই একাউন্টের মালিকরা সি’ঙ্গাপুরে থাকে না তাই তারা সহায়তা করতে পারছে না। তবে লেনদেন করার দুই একদিনের ম’ধ্যে তাদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা প্র’তারিত ব্যক্তিকে সহায়তা করতে পারবে৷

সি’ঙ্গাপুরের সাধারণ প্রবাসীরা এই ধরনের অ’সৎ, ভ’ন্ড ও প্র’তারকদের হাত থেকে মুক্তি চায়। – জাগ্রত নিউজ/ওম’র ফারুকী শিপন, সি’ঙ্গাপুর।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares