প্রচ্ছদ উপজেলা টিউমার হয়েছে বলে না*রীর স্ত*ন কে*টে ফেলল ভু*য়া চিকিৎসক

টিউমার হয়েছে বলে না*রীর স্ত*ন কে*টে ফেলল ভু*য়া চিকিৎসক

185
পড়া যাবে: < 1 minute

নেত্রকোণার খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট বাজার থেকে মানিক তালুকদার নামে এক ভু*য়া চিকিৎসককে গ্রে*প্তার করেছে পুলিশ। এক নারীর টি*উমার হয়েছে এমন কথা বলে সেই নারীর স্ত*ন কে*টে ফেলার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হল থেকে তাকে গ্রে*প্তার করা হয়।

গ্রে*প্তারকৃত মানিক তালুকদার মদন উপজেলার কাতলা গ্রামের আমির উদ্দিন তালুকদারের ছেলে। তার বিরুদ্ধে খালিয়াজুরী উপজেলার পাঁচহাট গ্রামের শেফালী আক্তার নামে এক নারীর টি*উমার হয়েছে বলে স্ত*ন কে*টে ফেলার অভিযোগ রয়েছে। ভুক্তভোগী ওই নারী সোমবার থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, গত ৭ এপ্রিল শেফালী আক্তারকে পাঁচহাট বাজারের ইকবাল হোমিও হলে ডেকে নিয়ে যান ইকবাল নামে এক ব্যক্তি। সেখানে তাকে অ*জ্ঞান করে অ*পারেশনের নামে ব্লে*ড দিয়ে তার বাম স্ত*ন কে*টে ফেলেন মানিক তালুকদার।

আরও পড়ুন:  নিজের রুমে বসায় রোগীর মাথা ফা*টালেন ডাক্তার!

এ বিষয়ে খালিয়াজুরী থানার ওসি এটিএম মাহমুদুল হক বলেছেন, মানিক তালুকদার মূলত একজন ভু*য়া চিকিৎসক। গ্রে*প্তারের পর তিনি নিজেকে হোমিও ডাক্তার হিসেবে পরিচয় দেন। তার কাছে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেননি বলে জানিয়েছেন এই কর্মকর্তা।

খালিয়াজুরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মাশরুর আহমেদ সিয়াম বলেছেন, স্তনে টি*উমারের কথা বলে ওই নারীর স্ত*ন কে*টে ফেলা হয়েছে। এতে তার বুকের ২৫-৩০ ভাগ পচে গেছে। তার ক্যা*নসার হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই চিকিৎসক।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট:

  • 65
    Shares