প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশের অনুমতি বন্ধ থাকায় চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে ট্যুর অপারেটর ও সংশ্লিষ্ট প্রায় ৫ হাজার মানুষ

16
সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশের অনুমতি বন্ধ থাকায় চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে ট্যুর অপারেটর ও সংশ্লিষ্ট প্রায় ৫ হাজার মানুষ
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

মানববন্ধন কর্মসুচিতে মঈন জমাদ্দার

স্টাফ রিপোর্টার

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব সুন্দরবন’র সভাপতি মঈন জমাদ্দার বলেছেন, সুন্দরবনে পর্যটন মৌসুম শুরু হয় সাধারণত সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে। কিন্তু করোনার প্রভাবের কারণে গত মার্চ থেকে সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বন বিভাগ। ওই নিষেধাজ্ঞা এখনো প্রত্যাহার না হওয়ায় চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে ট্যুর অপারেটরগুলো। তিনি অবিলম্বে সুন্দরবন ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনা নগরীর বয়রায় অবস্থিত বন ভবনের সামনে মানববন্ধন কর্মসুচি পালনকালে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ দাবী জানান। তিনি আরও বলেন প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস ধরে সুন্দরবনের ভেতর পর্যটক প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা জারি করায় সরকার যেমন বিপুল পরিমাণ রাজস্ব হারাচ্ছে, তেমনি চরম আর্থিক ক্ষতিতে পড়েছেন লঞ্চ, ট্রলার মালিক, ট্যুর অপারেটরসহ পর্যটন-সংশ্লিষ্ট প্রায় ৫হাজার মানুষ। বিশ্ব ঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন দেখার আগ্রহের শেষ নেই দেশি-বিদেশি পর্যটকদের। প্রতিবছর কয়েক লাখ দেশি-বিদেশি পর্যটক ভিড় করেন সুন্দরবনের পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে। করোনার কারণে সুন্দরবনের ভেতর পর্যটক প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা জারি প্রত্যাহার না হওয়ায় পর্যটকশূন্য দর্শনীয় স্থানগুলো।

আরও পড়ুন:  বেনাপোল বন্দরে বোমা বিস্ফোরণ : বন্দর জুড়ে আতংক

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব সুন্দরবন’র সাধারন সাধারণ নাজমুল আজম ডেভিট বলেন, ভ্রমণ কার্যক্রম বন্ধ থাকায় ওই খাত-সংশ্লিষ্ট হাজার হাজার মানুষ এখন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এমন পরিস্থিতিতে দ্রুত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা না হলে ট্যুর অপারেটরগুলো চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়বে। দ্রুত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশের অনুমতি দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রতি আহ্বান তিনি জানান।

মানববন্ধন কর্মসুচিতে বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি আল আমিন লিটন, সাধারন সম্পাদক নাজমুল আজম ডেভিট, কচি জমাদ্দার, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, শাহ জামাল পাপলু, সাহেদ মো. ইমরান, গোলাম রহমান বিটু, মিজানুর রহমান মিজান প্রমূখ।

আরও পড়ুন:  দিঘলিয়াতে ভৈরব সেতুর র্নিমান কাজ শুরু হবে নভেম্বরে

এদিকে খুলনা বন বিভাগের প্রধান বন সংরক্ষক মো. মঈনুদ্দিন খান বলেন, গত ২৬ জুলাই ঢাকায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের স্ট্যান্ডিং কমিটির একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে জানানো হয়, করোনাকালে পর্যটন বন্ধ থাকায় পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অধীন পর্যটন স্থাপনাগুলোতে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যে প্রাণ ফিরে এসেছে। এ কারণে আগামী অক্টোবরের শেষ পর্যন্ত স্পটগুলো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে ট্যুর অপারেটররা আবেদন করলে তা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares