প্রচ্ছদ বাংলাদেশ উপজেলা

মুসলিম পরিচয়ে প্রেমের ফাঁ*দে ফেলে এক স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করল হিন্দু ব্যাংক কর্মকর্তা

289
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

পিরোজপুরে মুসলিম পরিচয়ে প্রেমের ফাঁ*দে ফেলে এক স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করেছেন বাদল কুমার রায় (২৭) নামের এক হিন্দু ব্যাংক কর্মকর্তা। ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয়রা ওই প্র*তারক যুবককে আ*টক করে পুলিশে দেয়। পরে ওই ছাত্রীর পরিবারের করা মা*মলায় তিনি এখন কা*রাগা*রে রয়েছেন।

কা*রাগা*রে যাওয়া বাদল সদর উপজেলার পাড়েরহাট এলাকার বাদুরা গ্রামের শিতাংশু কুমার রায়ের ছেলে। তিনি সদর উপজেলার হুলারহাট এলাকার রূপালী ব্যাংক শাখার সিনিয়র অফিসার হিসেবে কর্মরত আছেন।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে পৌর শহরের খামকাটা এলাকা থেকে আ*টক করে সদর থানা পুলিশ। অভিযানে থাকা সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আরিফুর রহমান জানান, প্র*তারক যুবককে স্থানীয়রা আ*টক করে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ খামকাটা এলাকা থেকে তাকে থানায় নিয়ে আসে।

আরও পড়ুন:  প*রকী*য়ার টানে সন্তান ফেলে পালিয়েছে স্ত্রী,ক্ষোভে ১৫ বছরের শ্যালিকাকে অ*পহ*রণ করে পা*য়জামা খু*লে ...

ভুক্তভোগী ওই স্কুলছাত্রী জানায়, সে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে। তার সঙ্গে প্রায় এক বছর আগে হুলারহাটের রূপালী ব্যাংক শাখার সিনিয়র অফিসার হিসেবে কর্মরত ওই যুবকের পরিচয় হয়। তখন তিনি নিজেকে মুসলিম পরিচয়ে বাদল শেখ নামে পরিচয় দেন। সেই থেকে তার সঙ্গে প্রেম করে তিন দিন আগে তারা বিয়ে করেন। বিষয়টি সে না জানলেও স্থানীয়রা বিষয়টি জেনে বাদলকে আ*টক করে পুলিশে দেয়।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘প্র*তারক যুবক বাদল কুমার রায়কে থা*না হা*জতে অনার পর ভুক্তভোগী ওই স্কুল ছাত্রীকেও থানায় আনা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে স্কুলছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মা*মলা দেওয়া হলে বাদলকে আদালতের মাধ্যমে জে*ল হা*জতে পাঠানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:  পিরোজপুর-৩ আসনে আ’লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ডা. নজরুল

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 3.6K
    Shares