প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

পুলিশের প্রশ্রয় ছাড়া ক্যা*সিনো চলতে পারে না,জড়িত পুলিশের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

4712
পড়া যাবে: < 1 minute

শুধু রাজনৈতিক নেতাকর্মীই নয়, ক্যা*সিনো ব্যবসায়ের সঙ্গে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার যে সমস্ত কর্মকর্তা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল পুলিশের আইজিকে তিনি এই নির্দেশনা প্রদান করেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র এ কথা নিশ্চিত করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইজিকে বলেছেন যে পুলিশের প্রশ্রয় ছাড়া দিনের পর দিন এ ধরনের ক্যাসিনো চলতে পারে না। এতদিন ধরে এসব ক্যা*সিনোর বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি, এর সঙ্গে পুলিশের কারা কারা কতটুকু জড়িত তা খতিয়ে দেখা দরকার।

আরও পড়ুন:  গণভবনে আবরারের বাবা-মাকে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সূত্রমতে, পুলিশের আইজিও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন। তিনি বলেছেন যে, এই ধরনের ব্যবসায়ের সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ক্যা*সিনো থেকে নিয়মিত মোটা অঙ্কের মাসোহারা পেতেন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার থানার ওসি, এডিসি এবং ডিসি। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) নামে চাঁ*দা তোলা হতো। এমনকি ঢাকা মহানগর পুলিশের উচ্চপদস্থ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা নিয়মিত ক্যা*সিনো থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিতেন।

বিদেশ ভ্রমণে গেলে তাদের মোটা অঙ্কের বিদেশি মুদ্রা কিনে দিতে হতো। এমনকি পুলিশের প্রভাবশালী কয়েকজন কর্মকর্তা বিদেশের ব্যয়বহুল হাসপাতালে চিকিৎসা করান। পরে যার বিল মিটিয়েছেন খালেদ।

আরও পড়ুন:  ভিডিও বার্তায় শেখ হাসিনাকে যা বললেন পেলে

র‌্যাব ও পুলিশের ব্যাপক জেরার মুখে এসব তথ্য দিয়েছেন গ্রে*ফতার হওয়া যুবলীগ নেতা খালেদ। তিনি দাবি করেন, পুলিশের বাইরে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রভাবশালী নেতার আবদার রক্ষায় তিনি কার্পণ্য করতেন না।

বিদেশে গেলে মূল্যবান মোবাইল ফোন, স্বর্ণালঙ্কার এমনকি দামি ব্র্যান্ডের ম*দ এনে প্রভাবশালী নেতাদের উপহার দিতেন। খালেদ আফসোস করে বলেন, যাদের জন্য তিনি এতসব করলেন তারা বিপদের দিনে তার পাশে দাঁড়াননি। সবাই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 215K
    Shares