আওয়ামী লীগে কমিটিঃ বিতর্কিত নাম দিলেই শাস্তি

64
আওয়ামী লীগে কমিটিঃ বিতর্কিত নাম দিলেই শাস্তি
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কমিটি নিয়ে এবার কঠোর অবস্থায় গেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। দলের বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের কমিটি, কেন্দ্রীয় উপ- কমিটি এবং জেলা পর্যায়ের কমিটিগুলো গঠনের কাজ চলছে। এ ব্যাপারে সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে। আগামী সাতদিনের মধ্যে জেলা কমিটির নামের তালিকা জমা দেয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। একই ভাবে অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলোর প্রস্তাবিত কমিটির নামের তালিকাও জমা দিতে বলা হয়েছে। উপ-কমিটিগুলো চলতি সপ্তাহের মধ্যে তাঁদের ৩৫ জন করে সদস্যের নামের তালিকা জমা দিবেন বলে জানা গেছে।

তালিকা নিয়ে অতীতে যে বির্তক হয়েছে, বিতর্কিত অনুপ্রবেশকারী এবং অন্য দল থেকে স্বাধীনতাবিরোধী জামাত শিবির অপশক্তির রাজনীতি করে আসা ব্যক্তিবর্গ যেন কোন কমিটিতে ঢুকতে না পারে, সে ব্যাপারে আওয়ামী লীগ সভাপতি কঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছেন। একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের বেশকিছু উপ-কমিটি এবং ৪৭ টির বেশি জেলা কমিটির নামের তালিকা জমা দেয়া হয়েছে। প্রাথমিক বাছাইয়ে দেখা গেছে যে, এ সমস্ত তালিকাগুলোতে বিতর্কিত ব্যক্তি আছে, স্বজনপ্রীতি করা হয়েছে। জেলার প্রভাবশালী নেতা তাঁদের অনুগত ব্যক্তিদেরকে এ সমস্ত কমিটিতে স্থান দিয়েছেন।

এ রকম পরিস্থিতিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি আরও কঠোর অবস্থানে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, উপ-কমিটি, জেলা কমিটি যেখানেই বিতর্কিত ব্যক্তিদের নাম দেয়া হবে, স্বাধীনতাবিরোধীদের নাম দেয়া হবে সেখানেই অ্যাকশন নেয়া হবে। যারা এ নাম দিবেন তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, বলে আওয়ামী লীগের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নেতা বাংলা ইনসাইডারকে নিশ্চিত করেছেন। কি ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে জানতে চাওয়া হলে, আওয়ামী লীগের একজন নেতা বলেছেন, প্রথমত জেলা কমিটি বা উপ-কমিটির যে সমস্ত প্রভাবশালী নেতারা এ ধরনের বিতর্কিত ব্যক্তিদের নাম প্রস্তাব করবেন। তাদের ভবিষ্যতে মনোনয়ন প্রাপ্তি বা কোন পদ-পদবী প্রাপ্তির পথ বন্ধ হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন:  বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডে দেশবাসী শুধু উদ্বিগ্নই নয়, হতাশও: মেনন

দ্বিতীয়ত, যারা এ ধরনের নাম দিবে তাঁদের বিরুদ্ধেও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাদেরকে কারন দর্শানো নোটিশ দেয়া হবে। যে ব্যক্তির নাম দেয়া হয়েছে, সে ব্যক্তি কমিটিতে তো থাকবেনই না। বরং কমিটিতে যিনি বিতর্কিত ব্যক্তির নাম দিবেন, তাঁর ভূমিকা খতিয়ে দেখা হবে। এমনি তাঁর পদও চলে যেতে পারে। ভবিষ্যতে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কার্যক্রমে ওই ব্যক্তি চিহ্নিত থাকবেন। দলে তাঁর ভূমিকা খর্ব হয়ে যাবে। আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র বলছে যে, বিভিন্ন সময়ে দেখা গেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব থেকে বার বার বলার পরও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরে অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকছে। বিশেষ করে জেলা কমিটি এবং উপ-কমিটিগুলো হলো অনুপ্রবেশকারী ঢোকার ছিদ্রপথ। এই উপ-কমিটির নামেই সাহেদদের মতো দৃবৃর্ত্তরা আওয়ামী লীগে প্রবেশ করেছে।

এবার যেন কোন অবস্থাতেই সেটি না হয়, সেজন্য কঠোর অবস্থান নেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, আওয়ামী লীগের সম্পাদকমন্ডলীর পক্ষ থেকে উপ-কমিটির যে ৩৫ জনের নামের তালিকা দেয়া হবে। সেখানে যদি কোন বিতর্কিত ব্যক্তি থাকে, তাহলে সম্পূর্ণ দায়-দায়িত্ব তাকেই গ্রহণ করতে হবে। এক্ষেত্রে ভবিষ্যতে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে থাকা, এমপি মনোনয়ন পাওয়া কিংবা মন্ত্রী হওয়ার ক্ষেত্রে তাঁর অবস্থান নাজুক হয়ে পড়তে পারে। কাজেই এবার অন্যান্যবারের চেয়ে কঠোর সর্তকতা অবলম্বন করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের আরেকজন নেতা বলেছেন, জেলা কমিটির ক্ষেত্রে বিষয়টি আরও স্পর্শকাতর হয়ে উঠেছে।

আরও পড়ুন:  সরকার খুব দ্রুতই পড়ে যাবে: রিজভী

দেখা যাচ্ছে জেলা কমিটিগুলো অধিকাংশই পকেট কমিটি। স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে এ কমিটিগুলো করা হচ্ছে। যারা দলের জন্য পরিশ্রম করতে পারেন, যারা সংগঠনের জন্য সময় দিতে পারেন, তাদেরকেই কমিটিতে অর্ন্তভুক্ত করতে হবে। তাদেরকে অর্ন্তভুক্ত না করে, যদি পকেট কমিটির অনুগত লোকজনকে দিয়ে কমিটি করা হয়।

তাহলে ওই কমিটি যারা গঠন করেছেন তারা কালো তালিকাভুক্ত হবেন। তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যত অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে যেতে পারে, বলে আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা জানিয়েছেন। আওয়ামী লীগের সভাপতি দলের একাধিক নেতাকে বলেছেন, আওয়ামী লীগে ত্যাগী পরীক্ষিত কর্মীর অভাব নেই। আওয়ামী লীগে এ রকম কর্মীর সংখ্যাই বেশি। কাজেই তাদেরকে দায়িত্ব দিয়ে দলকে সংগঠিত করাই এখন প্রধান কাজ। অনুপ্রবেশকারী, চাটুকার এবং দুর্বৃ্ত্তদের আওয়ামী লীগে রেখে আওয়ামী লীগকে ক্ষতিগ্রস্ত করার কোন মানে হয় না। তাঁর এই অনুশাসন যেন প্রতিফলিত হয়, সেটি এখন তদারকি করছেন স্বয়ং শেখ হাসিনাই।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 51
    Shares