প্রচ্ছদ রাজনীতি আওয়ামী লীগ

এবার ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দুই কমিটির বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান

160
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও কৃষকলীগের পর এবার ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের দুই কমিটির বিরুদ্ধেও শুদ্ধি অভিযান শুরু হচ্ছে। আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও কৃষকলীগের বিরুদ্ধে যে সমস্ত অভিযোগ উঠেছে সেই একই রকম অভিযোগ পাওয়া গেছে ঢাকা মহানগরীর দুই কমিটির বিরুদ্ধেও।

মহানগরীর একাধিক নেতার বিরুদ্ধে চাঁ*দাবা*জি, টে*ন্ডারবা*জি, ভূ*মিদখ*ল, কমিশন বা*ণিজ্যসহ নানারকম অভিযোগ উঠে এসেছে। *সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রীর নি*উইয়র্ক সফরের আগেই গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ ব্যাপারে তথ্য প্র*মাণাদিসহ প্রতিবেদন প্র*ধানমন্ত্রীর কাছে দিয়েছেন। এখন প্*রধানমন্ত্রীর সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় আছে ঢাকা মহানগরীর শুদ্ধি অভিযান।

*ছাত্রলীগ, যুবলীগের মতো মহানগর আওয়ামী লীগের ব্যাপারেও আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাধিকবার উষ্মা প্রকাশ ক*রেছিলেন। মহানগরের দুই কমিটি কা*র্যকর নয় এবং এই ক*মিটিরগুলোর একাধিক নেতা দলীয় ক*র্মকাণ্ডের বদলে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত, এরকম অভিযোগ আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রকাশ্যেই করেছেন। কিন্তু তারপরও মহানগরের নেতৃবৃন্দ নিজেদের শুধরানোর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

আরও পড়ুন:  প্রভাবশালী হলেও অজনপ্রিয়, দ্বন্দ্ব সৃষ্টিকারী ও বিতর্কিতরা মনোনয়নবঞ্চিত

*সর্বশেষ বিদেশে যাওয়ার আগে গত শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা একাধিক শীর্ষ নেতাকে বলেছেন, যারাই দলের জন্য ক্ষতিকারক হবে, যারাই দলের ইমেজ নষ্ট করবে, তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। *একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে, আড়াই বছরে মহানগর আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই ফুলেফেঁপে উঠেছেন।

যাদের চালচুলো ছিল না, তারাও অনেক বিত্তশালী হয়ে গেছেন। শুধু তাই নয়, মহানগর আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কমিটি বাণিজ্যেরও অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন ওয়ার্ড কমিটি অর্থের বিনিময়ে করা হয়েছে, এমন তথ্য-প্রমাণও প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসেছে। তাছাড়া দলীয় কোন্দল সৃষ্টি, গ্রুপিং এবং দলের স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগও তাদের বিরুদ্ধে রয়েছে।

আরও পড়ুন:  ‘লাশের টাকা’ আত্মসাৎ করলেন আওয়ামী লীগ চেয়ারম্যান ! ( ভিডিও )

*সূত্রগুলো বলছে, এবারের শু*দ্ধি অ*ভিযানে প্রথমে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কাছ থেকে রিপোর্ট নেওয়া হচ্ছে। পরে আওয়ামী লীগ সভাপতির নিজস্ব একটি টিম সমস্ত অভিযোগের ব্যাপারে পুঙ্খানুপুঙ্খ যাচাই-বাছাই করে এবং অ*ভিযোগের সত্যাসত্য সম্পর্কে নিশ্চিত হচ্ছে।

*তারা যখন অভিযোগগুলো সত্য বলে সুপারিশ করে তারপরই প্রধানমন্ত্রী সবুজ সংকেত দেন। *ধারণা করা হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরেই ঢাকা মহানগরীর *দুই আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে *শুদ্ধি অভিযান শু*রু হবে। এই অভিযানে শীর্ষস্থানীয় অনেক নেতার বিরুদ্ধেও চাঞ্চল্যকর সব তথ্য প্রকাশ হতে পারে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 175
    Shares