প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয়

আত্মীয় বা নেতা হলেই যে তিনি আইনের আওতার বাইরে যাবেন এমনটি নয়

64
পড়া যাবে: 4 মিনিটে

আত্মীয় বা নেতা হলেই যে তিনি আইনের আওতার বাইরে যাবেন এমনটি নয় । আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার আত্মীয়দের জন্য ক*ঠোর সতর্ক বার্তা দিলেন। জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগদান শেষে ঢাকায় অবস্থানকালে তার বিভিন্ন পর্যায়ের আত্মীয় স্বজনের সাথে কুশল বিনিময় করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় তিনি তাদেরকে ক*ঠোর সতর্ক বার্তা দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন তার এমন একজন আত্মীয় বলেছেন, শেখ হাসিনা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আত্মীয় হ*ওয়ার কারণে কেউ পার পাবে না। যারা দু*র্নীতি, অ*নিয়ম বা অ*নৈতি*ক ক*র্মকা*ণ্ড চালায়, তাদের বিষয়ে যেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে কোনো অনুরোধ বা ত*দবির না আসে সেটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। এটাও বলে দিয়েছেন যে, তিনি কাউকে বাঁচাতে পারবেন না।

উল্লেখ্য যে, প্রধানমন্ত্রী আজ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের বাণিজ্যিক সম্প্রচার কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বলেছেন, আত্মীয় বা নেতা হলেই যে তিনি আইনের আওতার বাইরে যাবেন এমনটি নয়। তার নিজের কোনো আত্মীয়ও যদি অন্যায় করেন, তবে সেও শাস্তি পাবেন।

আরও পড়ুন:  গ্যাস বিক্রির মুচলেখা দিয়েই খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসেছিল

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, গতকাল এবং আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার নিকটাত্মীয়দের বেশ কয়েকজন সাক্ষাৎ করেছেন। এই সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, অ*ন্যায় করলে তাকে রক্ষা করার দায়িত্ব তার নয়।

প্রধানমন্ত্রী এটাও জানিয়ে দিয়েছেন যে, দলের সাধারণ একজন নেতা-কর্মী যদি অ*ন্যায় করে সেটা যতটা আওয়ামী লীগকে বা তাকে ক্ষ*তিগ্রস্ত করবে, তার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কোনো আত্মীয় যদি অন্যায়-অপরাধ করে সেটা তাকে আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করবে। এতে প্রধানমন্ত্রীর ইমেজ আরও বেশি ন*ষ্ট হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দশ বছর দেশ পরিচালনার দায়িত্বে থেকে যে ইমেজ আমি তৈরি করেছি, সেই ই*মেজকে আমি কারও জন্য নষ্ট হতে দেব না। তিনি বলেন যে, আমার আত্মীয়রা যদি অন্যায় করে ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকে, তাহলে সাধারণ মানুষের কাছে বার্তা যাবে যে, আমি আত্মীয়দের ছেড়ে দিচ্ছি।

আরও পড়ুন:  অন্য নারীরাও মইনুলের বিরুদ্ধে মামলা করুন, আমরা যা করার করবো

এটা হতে দেওয়া যাবে না। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উদাহরণ দিয়ে বলেন, ৯১-৯৬ এবং ২০০১-২০০৬ সালে বেগম জিয়া যখন ক্ষমতায় ছিলেন তখন তার আত্মীয়রা বে*পরো*য়া হয়ে উঠেছিল। সে সময় টে*ন্ডারবা*জি, নি*য়োগ বা*ণিজ্যসহ বিভিন্ন অ*ন্যায়-অ*পরাধের নেতৃত্বে ছিল বেগম জিয়ার আত্মীয়-স্বজনরা। অথচ বেগম জিয়া সেগুলোর কোনো প্রতিকারই করেন নি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের স্বার্থ এবং জনগণের স্বার্থই হলো সবার উপরে। তিনি আশা করেন যে, আত্মীয়রা তাকে সমর্থন করবেন এবং টে*ন্ডার বা*ণিজ্য, নি*য়োগ বা*ণিজ্যসহ সব অ*পকর্ম থেকে তারা নিজেদের গুটিয়ে রাখবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে যে, প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে যারা অপরাধী, যারা অন্যায় করেছে তাদের বিরুদ্ধে নির্মোহভাবে ব্যবস্থাগ্রহণের নির্দেশনা দিয়েছেন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 1.2K
    Shares