প্রচ্ছদ অপরাধ

সম্রাট ও আরমানকে যুবলীগ থেকে বহিস্কার, র‌্যাবের সদরদপ্তরে সম্রাট

82
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকা এবং শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও এনামুল হক আরমানকে। আজ সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সম্রাট যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ও আরমান সহ সভাপতি ছিলেন।

এদিকে গ্রে*প্তার হওয়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে ঢাকায় আনা হয়েছে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে রোববার ভোররাতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে সহযোগী আরমানসহ তাকে গ্রে*প্তার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব)। তাদেরকে আজই আদালতে তোলা হবে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন (র‌্যাব) মহাপরিচালক (অপারেশন্স) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার। ঢাকায় এনে তাদের প্রাথমিক জি*জ্ঞাসাবাদও শুরু করেছে র‌্যাব। তবে সম্রাটকে কোথায় রাখা হয়েছে সে বিষয়ে নিশ্চিত করে কেউ কিছু জানায়নি।

আরও পড়ুন:  এই দলের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি, আজকে তাঁর পুরস্কার পাচ্ছি

র‌্যাব-৩ এর ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জানান, তাকে আপাতত র‌্যাব সদর দফতরে রাখা হয়েছে। তবে কোন থানার কোন মা*মলায় তাকে গ্রে*প্তার দেখিয়ে আদালতে তোলা হবে সে বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এর আগে চৌদ্দগ্রামের সীমান্তবর্তী গ্রাম কুঞ্জুশ্রীপুরের একটি বাড়ি থেকে গ্রে*প্তার করা হয় সম্রাট ও তার সহযোগী আরমানকে। আত্মীয় মনিরুল ইসলামের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন সম্রাট।

উল্লেখ্য, গতমাসে চলমান ক্যা*সিনোবি*রোধী অ*ভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে টে*ন্ডারবা*জি, চাঁ*দাবা*জিসহ নানা অভিযোগের কারণে যুবলীগ নেতা সম্রাটের নাম আলোচনায় আসে। অভিযানে যুবলীগ, কৃষক লীগ ও আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা র‍্যাব ও পুলিশের হাতে গ্রে*প্তার হন। কিন্তু সম্রাট ছিলেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। অভিযান শুরুর প্রথম তিনদিন তিনি দৃশ্যমান ছিলেন। ফোনও ধরতেন। এরপরই তিনি গা ঢাকা দেন। দেশত্যাগের চেষ্টাও করেন।

আরও পড়ুন:  এখান থেকেও চাঁদা পেতে হবে ? এটা আমি সহ্য করবো না।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 782
    Shares