প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

কেশবপুর থেকে মিঠা পানির মাছ যাচ্ছে ভারতে

13
কেশবপুর থেকে মিঠা পানির মাছ যাচ্ছে ভারতে
পড়া যাবে: < 1 minute

আলমগীর হোসেন, কেশবপুর

দীর্ঘ বিরতির পর কেশবপুরের মিঠা পানির মাছ ফের ভারতে রপ্তানি শুরু হয়েছে। কেশবপুরের এই মাছের ভারতে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। গত তিন সপ্তাহ ধরে কেশবপুর থেকে ভারতে মাছ রপ্তানি হচ্ছে। এজন্য শ্রমিকদের মধ্যে ব্যস্ততা বেড়েছে। প্রতিদিন প্রায় ১৮০ থেকে ১৮৫ মণ মাছ যাচ্ছে ভারতে। করোনার কারণে গত এপ্রিল থেকে এই রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

কেশবপুর মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চার হাজার ৬৫৮টি মাছের ঘের রয়েছে। এর ফলে মাছের উৎপাদন ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব ঘেরের শিং, চিতল, রুই, সিলভার কার্প, কাতলা, গ্লাস কার্প, ব্লাড কার্পসহ বিভিন্ন মাছ রপ্তানি করা হচ্ছে। ২৫ কেজি মাছ প্রতিটি ককসিটে মোড়কীকরণ করে ভারতে পাঠানো হচ্ছে। প্রতিদিন প্রায় ১৮০ থেকে ১৮৫ মণ মাছ সরবরাহ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:  কেশবপুরে হরিহর নদ কচুরিপানায় ভরা

কেশবপুর মাছবাজার গিয়ে দেখা যায়, মাছ রপ্তানির জন্য প্যাকেটজাত করা হচ্ছে। কেশবপুরের মৎস্য ব্যবসায়ী আতিয়ার রহমান, মতিয়ার রহমান, মঈন উদ্দিন, ইকবাল হোসেনসহ আরো কয়েকজন ভারতের আখাউড়া স্থলবন্দরের একজন এজেন্টের মাধ্যমে মাছ রপ্তানি করেন।

মাছ ব্যবসায়ী আতিয়ার রহমান প্রতিদিনের কথাকে জানান, ভারতে মিঠা পানির মাছের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বর্তমানে এখান থেকে প্রতিদিন মাছ যাচ্ছে।

তিনি বলেন, সরকারিভাবে মাছ রপ্তানির জন্য প্রক্রিয়াজাত ও রপ্তানির জন্য সহযোগিতা করলে কেশবপুরের সাধারণ মৎস্যচাষিরা উপকৃত হবেন। সরকারের রাজস্বও বৃদ্ধি পাবে। মাছ কাঁচামাল। তাই কখনো লাভ হয়, আবার কখনো ক্ষতি হয়। তবে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে মাছ পাঠাতে পারলে লাভ হত।

আরও পড়ুন:  অনুপ্রবেশকারী, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী আর ভূমিদস্যুকে সকল স্তরে না বলতে হবে: নগর আ’লীগ সভাপতি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 5
    Shares