প্রচ্ছদ বিএনপি ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের কাছে শত কোটি টাকা,তাহলে আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে টাকা আছে?

ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের কাছে শত কোটি টাকা,তাহলে আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে টাকা আছে?

61
পড়া যাবে: 6 মিনিটে
advertisement

আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, চোরের দশদিন গৃহস্থের একদিন। আপনারা ধরা পড়ে গেছেন। তার প্রতিফলন আমরা দেখতে পাচ্ছি। আপনাদের আচার-আচরণে, কথা-বার্তায়, বক্তব্যে এবং রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো কিভাবে ব্যবহার করছেন তাতে প্রত্যক্ষ প্রতিফলন ঘটছে।

advertisement

শনিবার বিকালে ‘বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, দেশবিরোধী অবৈধ চুক্তি বাতিল ও বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হ*ত্যার প্রতিবাদে’ আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আমির খসরু বলেন, আপনারা ধরা খেয়ে গেছেন। মানুষকে একবার দুইবার বোকা বানানো যায়। চিরদিন বোকা বানানো যায় না। আপনাদের ভেতর ভয় কাজ করেছে। আপনারা অন্যায় করেছেন। বাংলাদেশের মানুষের সঙ্গে অবিচার করেছেন। আপনাদের মন দুর্বল হয়ে গেছে। গণতন্ত্রের ‘মা’ বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে আপনার পার পেয়ে যাবেন, সে পার পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘যে স্ট্যাটাসের কারণে আবরার ফাহাদকে জীবন দিতে হয়েছে, সেই স্ট্যাটাস সারাদেশের মানুষকে বারবার দিতে হবে। এই স্ট্যাটাস ইতিহাসের অংশ হয়ে থাকবে। গু*ম, খু*ন হ*ত্যার বিরুদ্ধে দেশের মানুষ অবস্থান নিয়েছে। প্রতিবাদের এই জোয়ারকে ভয়ভীতির মাধ্যমে থামিয়ে দেওয়া সম্ভব না।’

তিনি বলেন, বিশ্বের কোনো স্বৈ*রাচারী শাসকের পরিণাম ভালো হয়নি। আপনাদেরও হবে না। গণতন্ত্রের মতো দেশের অর্থনীতিও আওয়ামী লীগের পকেটে। ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাদের কাছে শত কোটি টাকা পাওয়া যাচ্ছে। তাহলে আওয়ামী লীগ নেতাদের কাছে কত হাজার কোটি টাকা আছে? জনগণের সবকিছু জানা আছে।

আরও পড়ুন:  সিলেট বিএনপির ৫ প্রভাবশালী নেতার পদত্যাগ

আসামের নাগরিকত্ব প্রসঙ্গে আমির খসরু বলেন, প্রায় ২০ লাখ মানুষ নাগরিক পুঞ্জি থেকে বাদ পড়েছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় ভারতের পক্ষ থেকে বলা হল, আপনারা চিন্তা করবেন না। এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। কথা-বার্তার মধ্যে বলল। কিন্তু যখন যৌথ বিবৃতি দিয়েছে, সেই যৌথ বিবৃতিতে সেটা আর নেই। কাকে বোকা বানাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘সমাবেশে আসার পথে দেখলাম—পুলিশ যু*দ্ধ যু*দ্ধ ভাব নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। মনে হচ্ছে, দেশে যু*দ্ধ শুরু হয়ে গেছে। শান্তিপূর্ণ এই জনসভায় কেন এই যু*দ্ধ যু*দ্ধ ভাব? এখানে এত পুলিশ কেন? দেশের সংবিধান কি বাতিল হয়ে গেল? যারা জনগণের পাশে দাঁড়ানোর কথা, যারা দেশবিরোধী চুক্তির বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর কথা, যারা দেশপ্রেমিক নাগরিকদের পক্ষে থাকার কথা, তাদের এই অবস্থা কেন?’

প্রশাসনের উদ্দেশে আমীর খসরু বলেন, ‘যারা স*ন্ত্রাসে*র মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে খু*ন করে, অ*বৈধ ব্যবসা করে, জনগণের অধিকার কেড়ে নেয়, তাদের পাশে আপনাদের থাকার কথা নয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আমরা একে-অপরকে সহযোগিতা করার কথা, শ্রদ্ধা করার কথা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে নাগরিকদের একটি সুসম্পর্ক থাকার সময় এসেছে, এটা বিবেচনা করতে হবে।’

আপনার সঙ্গে কার কি কথা হয়েছে, সেটা যদি যৌথ বিবৃতিতে না থাকে, তাহলে কোনো রেকর্ডই থাকল না। বাংলাদেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট কোনো বিষয় যৌথ বিবৃতিতে আসেনি। বিবৃতিতে এসেছে ভারত কী কী সুবিধা পেয়েছে। ফেনী নদী থেকে শুরু করে মংলাবন্দর ব্যবহারসহ সবকিছু যৌথ বিবৃতিতে এসেছে।

আরও পড়ুন:  খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ

মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে বিক্ষাভ সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম। নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্করের সঞ্চালনায় এতে অন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এ. এম নাজিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান।

সভাপতির বক্তব্যে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে দেশবিরোধী চুক্তি করে দেশকে করদ রাজ্যে পরিণত করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত এই অ*বৈধ সরকার। এই অসম চুক্তি দেশের মানুষ মেনে নেবে না। প্রধানমন্ত্রী ভারতে গিয়ে তিস্তা চুক্তির বিষয়টি আলোচনার টেবিলে তুলতে ব্যর্থ হয়েছেন, এটা শুধু প্রধানমন্ত্রীর লজ্জা না, বাংলাদেশের মানুষের লজ্জা।’

তিনি বলেন, ‘ক্যা*সিনো দু*র্নীতির মাধ্যমে যুবলীগ-ছাত্রলীগ থেকে এখন দু*র্গন্ধ বের হচ্ছে। সম্রাটকে জিজ্ঞাসাবাদে যখন দেশের রাঘব বোয়ালদের নাম বেরিয়ে আসছিল, ঠিক তখনি দেশপ্রেমিক বুয়েট মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে হ*ত্যা করলো। দেশের মানুষ একদিন এ হ*ত্যাকা*রীদের জনতার আদালতে বিচার করবে।’

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 16
    Shares
advertisement