প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা

হাজত বাস করেও প্রতি মাসে পুরো টাকা তুলছেন শরনখোলার এক স্কুল শিক্ষক

18
হাজত বাস করেও প্রতি মাসে পুরো টাকা তুলছেন শরনখোলার এক স্কুল শিক্ষক
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের শরণখোলায় একটি যৌন-হয়রানি মামলায় দুই মাসের বেশি সময় হাজত বাস করলেও প্রতি মাসে বেতন-ভাতার সম্পুর্ন টাকা উত্তোলন করে নিচ্ছেন এক স্কুল শিক্ষক । অভিযোগ উঠেছে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়টির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষককে ম্যানেজ করে এমন অনৈতিক সুবিধা গ্রহন করেছেন মামলার প্রধান বিবাদী শিক্ষক মোঃ শাহিনুজ্জামান।

সুত্র-জানায়, উপজেলার প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত রায়েন্দা সরকারী পাইলট হাইস্কুলের (ভোকেশনাল শাখার) দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ ওঠে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক মোঃ শাহিনুজ্জামানের বিরুদ্ধে । বিষয়টি ওই ছাত্রী চলতি বছরের ১৮ জানুয়ারী স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ সুলতান আহম্মেদ গাজীকে অবহিত করেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক শাহিনের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করে উল্টো ওই শিক্ষার্থীকে গালমন্দ করলে তার অপমান সইতে না পেরে তিনি (ইদুর মারার ওষুধ) বিষ পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনার পর তাৎক্ষনিক ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে শরনখোলা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেন তার স্বজনেরা । সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে পরের দিন খুমেক হাসপাতালে প্রেরন করেন । এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে রায়েন্দা সরকারী পাইলট হাইস্কুলের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক মোঃ শাহিনুজ্জামান (৪৪) এবং প্রধান শিক্ষক মোঃ সুলতান আহম্মেদ গাজী (৫৮) কে বিবাদী করে গত ২৩ জানুয়ারী শরনখোলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দ্ধায়ের করেন । উক্ত মামলায় গত ১১ মার্চ আদালতে হাজির হলে শিক্ষক শাহিনুজ্জামানকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক । দুই মাসের বেশি সময় হাজত বাস করে গত ১৯ মে জামিনে আসেন শিক্ষক শাহিনুজ্জামান । তবে, পরিচয় গোপন রাখার শর্তে, স্কুলের এক শিক্ষক বলেন, শাহিন বিদ্যালয়ের সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক শিক্ষককে ম্যানেজ করায় তারা শিক্ষা নীতিকে উপেক্ষা করে ওই শিক্ষককে বেতন দিচ্ছেন । মামলার পর হাজত বাস করেছেন কিন্তু সাসপেন্ড না করে উল্টো মাসের পর মাস তাকে পুরো বেতন সরবারহ করা হচ্ছে ।

আরও পড়ুন:  পাইকগাছা-কয়রায় যে উন্নয়ন হয়েছে তা সবই শেখ হাসিনার সরকারের আমলে: বাবু এমপি

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নুরুজ্জামান খান বলেন, কোন শিক্ষক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে মামলা হলে বিধি অনুসারে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা প্রথমে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করবেন এবং তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে তার কাছে কৈফত চাইবেন। এছাড়া মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যুন্ত তাকে আংশিক বেতন দিবেন। এবং নির্দোষ প্রমানিত হওয়ার পর পুনঃরায় সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন । তবে, সম্পুর্ন বেতন-ভাতা দিয়ে থাকলে তা নিতীমালা পরিপন্থি । এ বিষয়ে রায়েন্দা সরকারী পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ সুলতান আহম্মেদ গাজী বলেন , ওই শিক্ষক কোন বেতন তুলছেন না । বিষয়টি নিয়ে পরে আপনার সাথে কথা হবে ।

আরও পড়ুন:  বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ায়: খুলনা জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভা

তাছাড়া, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও শরনখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোঃ মোস্তফা শাহিন বলেন , বিষয়টি প্রধান শিকক্ষ আমাকে অবগত করেননি । তবে খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হবে । অপরদিকে , শিক্ষক মোঃ শাহিনুজ্জামান বলেন , পুরো বেতন নেওয়ার বিষয়টি সঠিক নয় । এছাড়া আমি কাউকে ম্যানেজ করি নাই।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 9
    Shares