প্রচ্ছদ আওয়ামী লীগ আওয়ামী লীগ কচুপাতার পানি নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে

আওয়ামী লীগ কচুপাতার পানি নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে

আরবার হ’ত্যার ঘ’টনাকে ই’স্যু করে শিক্ষাথিদের আন্দোলন প্রসঙ্গে

53
পড়া যাবে: 2 মিনিটে
advertisement

বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্যে করে তিনি বলেন, ‘এই কা’রাবরণে’ই শেষ হবে না, খালেদা জিয়ার সামনে আরো কঠোর দিন অপেক্ষা করছে। বাকি জীবন তাকে কা’রাগারে’ই কাটাতে হবে।’

advertisement

আবরার ফাহাদ হ’ত্যার ঘ’টনাকে ই’স্যু করে বিএনপি এখন সরকার প’তনের স্বপ্ন দেখছেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ কচু পাতার পানি নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে। আওয়ামী লীগের শে’কড় মাটির অনেক গভীরে প্রথিত, আওয়ামী লীগ অনেক শক্তিশালী সংগঠন।

ইতোমধ্যে আবরার ফাহাদ হ’ত্যার সাথে জড়িত ১৫ জনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন, দ্রুত বিচার আইনে তাদের বিচার করে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

তিনি বলেন, ছাত্র রাজনীতি নয় শিক্ষকদের পেশাজীবী রাজনীতি বন্ধ করতে হবে। শিক্ষকরা কেন রাজনীতি করবেন। শিক্ষকদের লে’জুরবৃত্তি রাজনীতির কারণে ছাত্ররা আজ তাদের সম্মান দেয় না। ভিসি, প্রো ভিসি হওয়ার জন্য শিক্ষকরা লে’জুরবৃত্তির রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েছে। শিক্ষকদের এসব দলীয় লেজুড়বৃত্তি রাজনীতি পরিহার করারও আহবান জানান তিনি। রোববার দুপুরে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগ এর ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অথিতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নেতারা তাদের কৃ’তকর্মের জন্য জেল খাটছেন। ২১ আগস্টের গ্রে’নেড হা’মলা, জ্বা’লাও পো’ড়াও রা’জনীতি, দু’র্নীতি ও অ’প-রা’জনীতির জন্য তারা এখন তাদের পা’পের প্রা’য়াশ্চিত করছেন। সেসময় কিবরিয়া, আহসান উল্লাহ মাস্টারসহ ২৬ হাজার আওয়ামী লীগ নেতাতে হ’ত্যা করা হয়েছিল। আজকে মির্জা ফখরুল ইসলাম কান্না করেন, তখন তার এই কান্না কোথায় ছিল? এজন্য তারা সহজেই আর জে’ল থেকে বের হতে পারবেন না।’

আরও পড়ুন:  ৫ নেতা বাদে ৩৪ সদস্য নিয়ে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যুবলীগের বৈঠক শুরু

বিএনপির অতীত দু’র্নীতি’র ইতিহাস ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, ‘বিএনপি আমলে ভারতের বিখ্যাত টাটা শিল্প গোষ্ঠী ও সামস্যাং বড় বড় বিনিয়োগ করতে বাংলাদেশে এসেছিল। চুক্তির সম্পাদনের আগে রতন টাটার কাছে তারেক রহমানের পক্ষে টেন পার্সেন্ট কমিশন চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু রতন টাটা সে প্রস্তার ফিরিয়ে দিয়ে দিল্লী ও সামস্যাং ভিয়েতনামে বিনিয়োগ সরিয়ে নেয়।’

মাহবুবুল আলম হানিফ আরো বলেন, ‘৭৫-এ শুধু রা’জনৈতিক কারণে বা ক্ষমতার কারণে বঙ্গবন্ধুকে হ’ত্যা করা হয়নি। এর পেছনে খু’নিদের সু’দূরপ্রসারী পরিকল্পনা ছিল। সে পরিকল্পনায় পাকিস্তানের সাথে জিয়াউর রহমানের হাত ছিল।

৭৪ এ জুলফিকার আলী ভূট্টো জাতিসংঘে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, পূর্ব পাকিস্তান অচিরেই পাকিস্তান ফেডারেশনের অধীনে আসবে। কিন্তু কিসের ভিত্তিতে ভূট্টো সেদিন একথা বলেছিলেন? ৭৫ পরবর্তিকালে জিয়াউর রহমান ক্ষ’মতাসীন হয়ে মুক্তিযুদ্ধের বি’রোধী শক্তিদের পুনর্বাসন করে পাকিস্তানী ম’দদপুষ্ট সরকার কায়েম করেছিল। জিয়াউর রহমান কখনই মুক্তিযুদ্ধ করেননি। জিয়াউর রহমান ছিলেন পাকিস্তানী বাহিনীর এ’জেন্ট।’

শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো: আছকির মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এম এ মান্নানের সঞ্চালনায় সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক (সিলেট বিভাগীয় দায়িত্বে) আহমদ হোসেন, বিশেষ অতিথি ছিলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দীন কামরান, ড. মো: আব্দুস শহীদ এমপি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক রফিকুর রহমান।

আরও পড়ুন:  জাতির পিতার র*ক্তের ঋণ আমাদের শোধ করতে হবে

সম্মেলনে বিশেষ বক্তা ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান। প্রধান বক্তা এসময় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেন, ‘ভারতের সাথে চু’ক্তি করে বাংলাদেশই লাভবান হয়েছে। শেখ হাসিনা দেশ বিক্রির রাজনীতি করেন না। তিনি সেবাদাস নন। বাংলাদেশ একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কাছেই নিরাপদ, দেশের মানুষ নিরাপদ।

আরবার হ’ত্যাকা’রীদের প্রসঙ্গে আহমদ হোসেন বলেন, ‘আ’রবারের ঘা’তকরা ছাত্রলীগে অ’নুপ্রবেশকারী ছাত্রশিবির। আওয়ামী লীগে অ’নুপ্রবেশকা’রীদের কোন ঠাঁই হবে না।’ এর আগে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা আহমদ হোসেন ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ এমপি- পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ তের বছর পর মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 109
    Shares
advertisement