প্রচ্ছদ অপরাধ প্রতিপক্ষকে ফাঁ’সাতেই শিশু তুহিনকে নি’র্মমভা’বে হ’ত্যা,পরিবারের লোকজন জড়িত

প্রতিপক্ষকে ফাঁ’সাতেই শিশু তুহিনকে নি’র্মমভা’বে হ’ত্যা,পরিবারের লোকজন জড়িত

152
পড়া যাবে: 4 মিনিটে
advertisement

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় নি’র্মমভা’বে হ’ত্যাকা’ণ্ডের শি’কার পাঁচ বছরের শিশু তুহিন মিয়াকে হ’ত্যার ঘটনায় তার পরিবারের লোকজন জড়িত বলে জানিয়েছে পুলিশ। শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষকে ফাঁ’সাতে’ই ওই শিশুকে হ’ত্যা করা হয়েছে বলেও পুলিশ জানিয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় জেলা পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।

advertisement

সোমবার দুপুরে জি’জ্ঞাসাবা’দের জন্য তুহিনের বাবা আবদুল বাছির, চাচা, চাচি ও এক চাচাতো বোনকে থানায় আনে পুলিশ। এরপর টানা কয়েক ঘণ্টা তাদের জি’জ্ঞাসাবা’দ করা হয়।

পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, ‘গ্রামের অন্যদের সঙ্গে জমিজমা নিয়ে আবদুল বাছিরের পরিবারের বি’রোধ ও মা’মলা রয়েছে। এর জে’র ধরেই অন্যদের ফাঁ’সাতে প’রিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:  সুনামগঞ্জের ইউএনওর অ*নৈতি*ক ক*র্মকাণ্ড ফাঁ*স !

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘কারা, কখন, কীভাবে এই ঘটনা ঘটিয়েছে, সব আমরা জানতে পেরেছি। তদন্তের স্বার্থে এখন বিস্তারিত বলব না। জি’জ্ঞাসাবাদে’র জন্য সাতজনকে থানায় আনা হয়েছে। নির্দোষ ব্যক্তিদের ছেড়ে দেওয়া হবে।’

সোমবার সকালে উপজেলার কেজাউরা গ্রামে শিশু তুহিনের ঝু’লন্ত লা’শ উদ্ধার করে পুলিশ। শিশুটির পে’টে দু’টি ছু’রি ঢু’কিয়ে হ’ত্যা করা হয়। শুধু তাই নয়, তার দুই কা’ন ও গো’পনাঙ্গ’ও কে’টে নেওয়া হয়। পরে পাঁচ বছর বয়সী ওই শিশুর নি’থর দেহ ঝু’লিয়ে রাখা হয় কদম গাছের ডালে। তুহিনের বাবা আবদুল বাছির একজন কৃষক। তার মায়ের নাম মনিরা বেগম।

শিশুটির আত্মীয় ইমরান আহমেদ জানান, আবদুল বাছিরের তিন ছেলে ও এক মেয়ে। এর মধ্যে তুহিন দ্বিতীয়। বাড়ির দুটি কক্ষে দুই ভাই বাছির ও মছব্বির তাদের পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। গত রোববার রাতে খেয়ে সন্তানদের নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন তারা। রাত আড়াইটার দিকে বাছিরের এক ভাতিজি তাদের ঘুম থেকে ডেকে তুলে বলে যে তাদের ঘরের দরজা খোলা। এরপর সবাই জেগে ওঠে দেখেন তুহিন নেই।

আরও পড়ুন:  জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় এলে একজন মানুষও মারা যাবে না

তখন প্রতিবেশীদেরও ডেকে তোলা হয়। শুরু হয় খোঁজাখুঁজি। একপর্যায়ে বাড়ির পাশে রাস্তায় গিয়ে র’ক্ত দেখতে পান তারা। কিছুটা সামনে গিয়ে রাস্তার পাশে কদম গাছে তুহিনের ঝু’লন্ত লা’শ দেখতে পান তারা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লা’শ উদ্ধার করে বলেও জানান ইমরান আহমেদ।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 295
    Shares
advertisement