প্রচ্ছদ আওয়ামী লীগ সেবা নয়, ভোগেই ব্যস্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতারা

সেবা নয়, ভোগেই ব্যস্ত স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতারা

126
পড়া যাবে: 7 মিনিটে
advertisement

স্বেচ্ছাপ্রণোদিত হয়ে বিনা বেতনে যে ব্যক্তি সেবা দান করেন, তিনি স্বেচ্ছাসেবক। তবে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাদের সেদিকে আগ্রহ নেই। তাঁদের আগ্রহ রাজনৈতিক পরিচয় ব্যবহার করে ব্যবসা-ঠিকাদারিসহ টাকা কামাইয়ের নানা কার্যক্রমে। সে কারণে দু’র্যোগ বা দু’র্ঘটনায় তাঁদের সেবা দিতে দেখা যায় না। এর নেতাদের দাবি, তাঁরা দলীয় কর্মসূচিতে সেবা দেন। রাজধানী ঢাকায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা আছেন প্রায় আট হাজার।

advertisement

সারা দেশে জেলা, থানা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন মিলে সংগঠনের নেতার সংখ্যা সাড়ে তিন লাখের বেশি। এখন প্রতিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি গঠন করার উদ্যোগ নিয়েছে এ সংগঠন। এসব কমিটি হয়ে গেলে নেতার সংখ্যা ১৮ লাখ ছাড়াবে। স্বেচ্ছাসেবক লীগের মতোই রাজধানীতে কৃষক লীগের পদধারী নেতাই আছেন প্রায় ৮ হাজার। যদিও এখানে কোনো কৃষিজমি বা কৃষক নেই। বিভিন্ন গণমাধ্যমে তাদের এসব বিষয় নিয়ে খবর প্রকাশ করেছে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কাজ সম্পর্কে কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর কমিটির গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন নেতা বলেন, আওয়ামী লীগের সমাবেশে স্বেচ্ছাসেবকের কাজ করেন তাঁরা। আওয়ামী লীগের যেকোনো কর্মসূচি, বিভিন্ন দিবসে কর্মসূচি পালন করেন তাঁরা। এবার বন্যায় ত্রাণ ও ডে’ঙ্গু সচেতনতায়ও কাজ করেছে বলে দাবি করেন এর নেতারা, তবে সেটা খুব দৃশ্যমান ছিল না।

যদিও এ দুটি বিষয় ছিল আওয়ামী লীগের ঘোষিত কর্মসূচি। আওয়ামী লীগের সহযোগী হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি আ’র্তমানবতার সেবায় নিয়োজিত থাকার উদ্দেশ্য নিয়ে জন্ম নিয়েছিল স্বেচ্ছাসেবক লীগ। তবে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক পংকজ নাথ বলেন, ‘আমরা তো সেবা দেওয়ার জন্য প্রশিক্ষিত শক্তি নই। আমরা রাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবক।’

আরও পড়ুন:  ব্যাংক হিসাব জব্দ করার পর এবার স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতির পদ থেকে কাওসারকে অব্যাহতি

তাছাড়াও সম্প্রতি ক্যা’সিনো কে’লেঙ্কা’রিতেও উঠে আসে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাদের জ’ড়িত থাকার খবর। আরামবাগের ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সভাপতির দায়িত্বে আছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওসার। এ ক্লাবে র‍্যাবের অভিযানের পর ক্যা’সিনো-কাণ্ডে মোল্লা কাওসারের সংশ্লিষ্টতার খবর ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে চলমান অভিযানে গ্রে’প্তার হওয়া যুবলীগ নেতা ও ঠিকাদার জি কে শামীমের সঙ্গেও মোল্লা কাওসারের ঘনিষ্ঠতার খবর জানা গেছে একাধিক সূত্রে।

শুধু টাই নয়, আওয়ামী লীগ সরকারে আসার পর ২০০৯ সালে ঢাকায় পরিবহন ব্যবসা শুরু করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ নাথ। বিহঙ্গ নামে পরিচালিত তাঁর পরিবহন একটি রুট নিয়ে শুরু করে ব্যবসা। গত বছর পর্যন্ত ৫টি রুটে ২৪০টি বাস চলছে তাঁর কোম্পানির। স্বেচ্ছাসেবকদের ব্যবসায়ী হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে ঠিকাদারি পেশা।

সারা দেশেই এ সংগঠনের নেতারা বিভিন্ন ক্ষেত্রের ঠি’কাদারির সঙ্গে জড়িত। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষ’মতায় আসার পর থেকে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (সিভিল এভিয়েশন) উন্নয়নকাজে যে তিনজন ঠিকাদার সবচেয়ে প্রভাবশালী হয়ে উঠেছেন, তাঁদের একজন হলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মতিউর রহমান ওরফে মতি।

আরেক সহসভাপতি ম. আবদুর রাজ্জাক পানি উন্নয়ন বোর্ড ঠিকাদার সমিতির সভাপতি। সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আলিম পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরে ঠিকাদারি করেন।

আরও পড়ুন:  স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন কমিটি ঘোষণা

বিদেশে শাখা খোলায় বাড়তি আগ্রহ দেখা গেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের। যেসব দেশে প্রবাসী বেশি, সেখানেই শাখা খুলেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, আরব আমিরাত, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ফ্রান্স, ইতালিসহ ১৫টি দেশে শাখা আছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের।

বিদেশে শাখা খোলার বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ নাথ  সংগঠনের সভাপতি বিভিন্ন দেশ সফরের সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে বিদেশ কমিটি করেছেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের জন্ম ১৯৯৪ সালে। এরপর আহ্বায়ক কমিটি পার করে দেয় ৯ বছর। ২০০৩ সালে প্রথম কমিটি হয় সংগঠনটির। এর ৯ বছর পর ২০১২ সালে হয় দ্বিতীয় কমিটি।

৭ বছর পর এখন হতে যাচ্ছে তৃতীয় সম্মেলন। গঠনতন্ত্র অনুসারে তিন বছর পরপর সম্মেলন করার কথা থাকলেও গত ২৫ বছরে হয়েছে মাত্র দুটি। ঢাকা মহানগরের বর্তমান দুটি কমিটির বয়স ১৩ বছর। বিভিন্ন থানা ও জেলা কমিটি পার করে দিয়েছে ১৫ থেকে ১৬ বছর।

গত ৭ বছরে ৭৯টি সাংগঠনিক জেলার মধ্যে ৪৫টি কমিটি নতুন করে করতে পেরেছে বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটি। প্রসঙ্গত, ১৯৬৯ থেকে ১৯৭২ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবক বিভাগ ছিল। যার প্রধান ছিলেন প্রয়াত কেন্দ্রীয় নেতা আবদুর রাজ্জাক।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ আপডেট

  • 904
    Shares
advertisement