প্রচ্ছদ ক্রিকেট দুর্নীতি’র অভিযোগে আমিরাতে;র তিন ক্রিকেটার সাময়িক নিষিদ্ধ

দুর্নীতি’র অভিযোগে আমিরাতে;র তিন ক্রিকেটার সাময়িক নিষিদ্ধ

17
পড়া যাবে: < 1 minute
advertisement

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকা’পের বাছাইপর্ব শুরু হবার দুই’দিন আগে বড় এক ধাক্কা খেল টুর্নামেন্টের স্বাগতিক সংযুক্ত আরব আমিরাত। আইসিসি’র দুর্নীতি বিরোধী বিধির বেশ কয়েকটি ধারা ভঙ্গের অভিযোগে দেশটির তিন ক্রিকেটার’কে সাময়িক নিষিদ্ধ করা হয়েছে
দলের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মোহাম্মদ নাভিদ ও ব্যাটসম্যান শাইমান আনোয়া’রের পাশাপাশি নিষেধাজ্ঞা’ পেয়েছেন পেসার কাদির আহমেদ। এছাড়া আজমানের ক্রি’কেটার মেহেরদীপ ছায়াকরের বিরুদ্ধেও দুর্নীতি বিরোধী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে বলে বুধবার এক বিবৃতিতে জানি’য়েছে আইসিসি।

advertisement

১৮ অক্টো’বর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্ব’কাপের বাছাইপর্ব। এই টু’র্নামেন্টে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের পরিকল্পনার অভিযোগ আনা হয়েছে নাভিদ এবং শাইমানের বিরুদ্ধে। আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটের কাছে ফিক্সিং প্রস্তাবের বিস্তা’রিত না জানানোর অভিযোগও আনা হয়েছে এই দুজনের বিরুদ্ধে।

এ’ছাড়া আসন্ন টি-টেন লিগেও ম্যাচ ফিক্সিংয়ের পরিকল্পনার অভিযোগ আনা হয়েছে নাভি’দের বিরুদ্ধে।

এ বছরের এপ্রিলে জিম্বাবু’য়ের বিপক্ষে সিরিজে ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সেটি না জানানোয় অভিযুক্ত হয়েছেন কাদির। এছাড়া তার বিরুদ্ধে দলের অভ্যন্তরী’ণ তথ্য মেহেরদীপের কাছে প্রকাশ করার অভিযোগও পেয়েছে আইসি’সির দুর্নীতি বিরোধী ইউনিট।

কাদির এবং শাইমান দুজনের বিরুদ্ধে’ই উঠেছে তদন্ত কাজে ‘দুর্নীতি বিরোধী ইউনিটকে অসহযোগিতার অভিযোগ। একই অভিযোগ অভিযুক্ত মেহেরদীপ।

এই সপ্তাহের শুরুতে কাদিরকে দলের অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেয় আমি’রাতের ক্রিকেট বোর্ড। এক’ই সাথে স্কোয়াড থেকেও বাদ দেয়া হয় তাকে। সে সময় তাকে স’রিয়ে দেয়ার সুস্পষ্ট কোনো ব্যাখ্যা বোর্ডের পক্ষ থেকে দেয়া হয়নি। আইসি’সির বিবৃতির পর খোলাসা হয়েছে মূল কারণ।

আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়ে’ন্টি বিশ্বকাপের পরবর্তী আসর। ১৪ দলকে নিয়ে হতে যাওয়া বাছাই’পর্বের সেরা ৬ দল অংশ নেবে মূল টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

  • 40
    Shares
advertisement