প্রচ্ছদ এক্সক্লুসিভ

সিলেটের পরিচিতমুখ এসআই আকবর এখন ‘নায়ক’ থেকে ‘খ’লনায়ক’ অবতীর্ণ হয়েছেন

65
সিলেটের পরিচিতমুখ এসআই আকবর এখন ‘নায়ক’ থেকে ‘খ’লনায়ক’ অবতীর্ণ হয়েছেন
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

রিয়েল সিলেটঃ পুলিশী নি’র্যাতনে যুবকের মৃ’ত্যুর ঘটনায় সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুইয়াসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক ব’রখাস্ত করা হয়েছে।

এছাড়া প্র’ত্যাহার করা হয়েছে আরও তিন পুলিশ সদস্যকে। এ ঘটনায় নায়ক থেকে খ’লনায়কের ভূমিকায় অ’বতীর্ণ হয়েছেন এসআই আকবর হোসেন ভুইয়া। সিলেটের পরিচিতমুখ এসআই আকবর পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক

চর্চায় নিজেকে জড়িত রাখতেন। সিলেটের জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল গ্রীণ বাংলার বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। সামাজিক নানা অ’সঙ্গতি নিয়ে নি’র্মিত এসব নাটকে বিভিন্ন সময় পুলিশ, বিভিন্ন সময় সমাজ সংস্কারক চরিত্রে ছিলেন তিনি।

সিলেটের বিভিন্ন অ’ঙ্গণে সৎ ও মেধাবী পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিতি ছিল তার। কিন্তু রাহয়ান হ’ত্যাকান্ডের ঘটনায় নায়ক থেকে খ’লনায়কে পরিনত হয়েছেন তিনি। এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, শনিবার দিবাগত রাতে নগরীর কা’ষ্টঘর এলাকায় ছি’নতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার জে’র ধরে স্থানীয়রা রায়হানকে গণ পি’টুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে রায়হানকে উ’দ্ধার করে এবং ভোর ৬টার দিকে তাকে ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘণ্টাখানেক পর রায়হান মৃ’ত্যুরবণ করেন। তিনি বলেন, রায়হানকে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে

আরও পড়ুন:  ভেঙে ফেলা হলো আবরার স্মৃতিস্তম্ভ

নিয়ে আসাই হয়নি। ফাঁড়িতে নিয়ে আসার বিষয়টি সত্যি নয়। রায়হানের মায়ের কাছে ফোনের বিষয়টি সম্পর্কে আকবর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, এ বিষয়টি তার পরিবার ভুল বুঝেছে। এই ফোন থেকে রায়হান ফোন করে তাকে গণ পি’টুনি ও হাপসাতালে নিয়ে যাওয়ার খবরটি দিতে চেয়েছিলো পরিবারের কাছে। কিন্তু পরিবারের মানুষ এখন ভু’ল বুঝে

পুলিশের বি’রুদ্ধেই অ’ভিযোগ করছে। উল্লেখ্য, গতকাল রবিবার সকাল ৬টা ৪০ মিনিটের সময় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রায়হান উদ্দিন (৩৪) নামের এক যুবককে গু’রুতর আ;হতাবস্থায় ভর্তি করেন বন্দরবাজার ফাঁড়ির এএসআই আশেক এলাহী। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৭টা ৫০ মিনিটে রায়হান হাসপাতালে মা;রা যান। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে

আ’ঘাতের চিহ্ন ছিল। হাতের নখও উ’পড়ানো ছিল। রায়হান উদ্দিন সিলেট নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার মৃ’ত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তার তিন মাসের এক মেয়ে রয়েছে। নগরীর রিকাবিবাজার স্টেডিয়াম মার্কেটে এক চিকিৎসকের চেম্বারে কাজ করতো সে। রায়হানের মৃ’ত্যুর পর পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় সে ছি’নতাইকারী ছিল। নগরীর কা’স্টঘর এলাকায় ছি’নতাই করতে গিয়ে

আরও পড়ুন:  POPULAR CALIFORNIA REAL ESTATE INVESTING POLICY

গণ পি’টুনিতে তার মৃ’ত্যু হয়েছে। কিন্তু তার পরিবার পুলিশের অ’ভিযোগ অ’স্বীকার করে ফাঁড়িতে আটকে রেখে নি’র্যাতনে হ’ত্যার অ’ভিযোগ তুলেন। এরপর পুলিশও আগের অবস্থান থেকে সরে এসে ঘটনাটি সুষ্ঠু ত’দন্তের আশ্বাস দেয়। এর প্রেক্ষিতে সোমবার বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জসহ চার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক ব’রখাস্ত ও তিনজনকে প্র’ত্যাহার করা হয়। এদিকে, রবিবার দিবাগত রাতে নি’হত রায়হানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নী বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় একটি হ’ত্যা মা’মলা দায়ের করেন। মা’মলায় তার স্বামীকে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে আটকে রেখে ১০ হাজার টাকা দাবি ও দাবিকৃত টাকা না পেয়ে নি’র্যাতন করে মে’রে ফেলার অ’ভিযোগ করেন।

রি/সি/অ ৪৮০২০

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।