প্রচ্ছদ কৃষি, প্রাণী ও পরিবেশ

বর্ণাঢ্য আয়োজনে এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ-এর ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

10
প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন
পড়া যাবে: 3 মিনিটে

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

কৃষি সংবাদ ডেস্ক

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনঃ গত ১১ অক্টোবর ২০২০ রবিবার এক উৎসবমুখর পরিবেশে এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ (ইবিএইউবি)-এর ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান জুম ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে উদ্যাপন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এবিএম রাশেদুল হাসান। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইবিএইউবি-এর বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সম্মানিত সদস্য এবং এক্সিম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী ড. মোহাম্মদ হায়দার আলী মিয়া।
পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত, গীতা পাঠ এবং সম্মিলিতভাবে জাতীয়সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে আলোচনা সভার কার্যক্রম শুরু হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ৭ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মোস্তফা মাহমুদ হাসান।
উক্ত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. মেজর নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ; কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য, সমাজকল্যাণ এবং ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা অনুষদের ডিন, প্রফেসর ড. সিদ্ধার্থ এস. সাহা; ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট ইউনিভার্সিটি কলকাতা-এর কমার্স এন্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ও চেয়ারপারসন ড. প্রণাম ধর; লিংকন ইউনিভার্সিটি কলেজ, মালয়েশিয়া-এর সিনিয়র গবেষণা পরিচালক এবং নির্বাহী সম্পাদক (প্রকাশনা), ড. সন্দীপ পোদ্দার; ইউনিভার্সিটি অব বেংকুলু, ইন্দোনেশিয়া-এর কৃষি অনুষদের এ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ড. গাসওয়ারনি আনোয়ার। সম্মানিত অতিথিগণ প্রত্যেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম মজুমদার ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সম্মানিত সদস্য ও এক্সিম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোঃ হায়দার আলী মিয়া এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এবিএম রাশেদুল হাসানকে ধন্যবান জ্ঞাপন করেন।
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমি ব্যাংকের এমডি হিসেবে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সংযুক্ত থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। তিনি উত্তরের জনপদ এই চাপাইনবাবগঞ্জ জেলায় এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অনুমতি দেওয়ার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব মোঃ নজরুল ইসলাম মজুমদার কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, সততা ও সাহসিকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে হবে বলে তাঁর জীবনের সাফল্যের উদাহরণ তুলে ধরেন। প্রতিষ্ঠানে কোন রাজনীতি না করে আগে যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। তারপর দেশ সেবার জন্য রাজনীতিতে যুক্ত হতে হবে। প্রশিক্ষণ যত কঠিন হবে বিজয় ততটা নিশ্চিত হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের এক্সট্রা কারিকুলার এক্টিভিটিজে যুক্ত করে যোগ্য লিডার হিসেবে তৈরী করার জন্য শিক্ষকদেও উদাত্ত আহবান জানান। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে বন্ধুত্বসুলভ আচরণ দিয়ে শিক্ষার্থীদের যোগ্য নাগরিক তৈরী করার জন্য শিক্ষকদের সচেষ্ট হতে বলেন। সেই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম ও সার্বিক উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখায় মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এবিএম রাশেদুল হাসান-এর ভুয়সী প্রশংসা করেন। সাথে সাথে দেশ ও বিদেশ থেকে যে সকল বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন তাঁদের প্রতি এক্সিম ব্যাংক ও অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
সভাপতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলেন, সামাজিক দূরত্বের এই সময়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ভালোভাবে লেখাপড়ার পাশাপাশি দক্ষতা উন্নয়নে নিজেদেরকে আরো সম্পৃক্ত করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। তাঁর বক্তব্যে তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের সৎ, যোগ্য ও ভালো মানুষ হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আহ্বান জানান। কভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আমার প্রাণপ্রিয় শিক্ষার্থীদের স্বশরীরে উপস্থিত না থাকতে পারায় বক্তব্যের মাঝে তিনি আবেগে আপ্লুত হয়ে যান। সেই সাথে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করেন।
উক্ত ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার (অ.দা) ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোঃ শাহরিয়ার কবীর, রেজিস্ট্রার (অ.দা) ও কৃষি অনুষদের ডীন ড. মোঃ দেলোয়ার হোসেন; পরিচালক (পিআরডি) ড. মোঃ সোহেল আল বেরুনী; পরিচালক (পিএন্ড ডি) জনাব মোঃ মকবুল হোসেন; পরিচালক (আইকিউএসি) ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের সহযোগি অধ্যাপক ড. মোঃ শামীমুল হাসান; কৃষি অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. আশরাফুল আরিফ; আইন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান এস.এম. শহীদুল ইসলাম ও বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ। এছাড়াও আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চাপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ ড. শংকর কুমার কুন্ডু, বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী কলেজের অধ্যক্ষ ও শিক্ষকগণ, বিভিন্ন স্কুলের প্রধান শিক্ষক, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ। আলোচনা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীগণ ভার্চুয়াল জুমের মাধ্যমে স্ব স্ব অবস্থান থেকে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

আরও পড়ুন:  সিরাজগঞ্জ সদরে প্রণোদনা কর্মসূচীর কমিউনিটি, ভাসমান ও ট্রেতে বীজতলা স্থাপন

প্রিয় পাঠক, কৃষি বিষয়ক যে কোন বিষয় নিয়ে আপনিও লিখতে পারেন। আপনার আশে পাশে ঘটে যাওয়া সফল চাষীর কথা,কৃষির নানা সম্ভাবনার কথা,ফিচার,কেস স্টাডি, সমস্যার কথা লিখে পাঠান। লিখতে পারেন আপনার প্রতিষ্ঠানের পণ্য পরিচিতি নিয়েও। পোষ্টের সাথে মিল রেখে ছবি দিন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।

  • 4
    Shares