প্রচ্ছদ প্রবাস

ভিসার মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে ক্ষণে ক্ষণে নিয়ম বদলাচ্ছে সৌদি দূতাবাস

31
ভিসার মেয়াদ এখনো বাড়ায়নি সৌদি দূতাবাস
পড়া যাবে: 2 মিনিটে

ছুটিতে থাকা সৌদি আরব প্রবাসীদের এক্সিট রি-এন্ট্রি ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে আবারও নতুন শর্ত দিয়েছে ঢাকায় দেশটির  দূতাবাস। ভিসার মেয়াদ বাড়াতে এখন নিয়োগদাতার চিঠি লাগবে বলে জানানো হয়েছে।  এর আগে আরও দুই দফা শর্ত পরিবর্তন করে দূতাবাস।

বুধবার ( ১৪ অক্টোবর ) রাত পর্যন্ত অপেক্ষার  পর দূতাবাস থেকে সকল পাসপোর্ট ফিরিয়ে দেয়া হয়। এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে অনলাইনে ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়টি দেখতে পান ভিসা সার্ভিস সেন্টারের কর্মকর্তারা। বুধবার সকালে পাসপোর্টগুলো পাওয়ার কথা থাকলেও দূতাবাস থেকে কিছুই জানানো হয় না এজেন্সিগুলোর প্রতিনিধির কাছে। দিনভর অপেক্ষার পর সন্ধ্যার দিকে ভিসার মেয়াদ না বাড়িয়েই পাসপোর্টসহ আবেদন ফেরত দেয় দূতাবাসের সংশ্লিষ্ট শাখা। একইসাথে একলাইনের বাংলা ও আরবি ভাষায় একটি বার্তা দেয় দূতাবাস। সেখানে লেখা ” রি-এন্ট্রি ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য কফিলের সত্যায়িত লেটারসহ জমা দিতে হবে।” কয়েকদিনের অপেক্ষার পর এই বার্তায় হতাশ হয়ে পড়েন ভিসা সার্ভিস সেন্টারগুলো ও প্রবাসীরা।

নাম প্রকাশ না করে গুলশানের একটি সার্ভিস সেন্টারের ব্যবস্থাপক প্রবাস বার্তাকে বলেন, “মঙ্গলবার অনলাইনে দেখা গেছে ভিসার মেয়াদ অক্টোবরের ৩০ তারিখ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। সেই হিসেবে প্রবাসীদের কাছ থেকে পাসপোর্ট নিয়ে দূতাবাসে জমা দেয়া হয়। দূতাবাস যা যা নিয়ম বলেছে, সব পূরণ করেই জমা দেয়া হয়। এখন তারা খালি পাসপোর্ট ফেরত দিলো। আটকে পড়া প্রবাসীদের  আমরা এখন কী জবাব দেবো?”

আরও পড়ুন:  আমিরাতের মুসাফফা সানাইয়া ১৩ নম্বরে চট্টগ্রাম ফুডস্টাপ উদ্বোধন

গুলশানের এই সার্ভিস সেন্টারে কথা হয় কুমিল্লার প্রবাসী শরিফুল ইসলামের সাথে। তিনি বলেন, “২৩ অক্টোবর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ঘোষণা দেয়া হলো-  ‘বাংলাদেশের অনুরোধে আরবি সফর মাস পর্যন্ত ভিসা ও আকামার মেয়াদ বাড়িয়ে দিচ্ছে সৌদি সরকার।’ কিন্তু সেটি পরে আর বাড়েনি। আবার ৭ অক্টোবর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে জানানো হয়-‘ভীষণ ভীষণ ভালো খবর!!! সৌদি সরকার আমাদের প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ভিসার মেয়াদ বাড়িয়েছে।’  বারবার ঘোষণা  ও আশা দেখানোর পরও প্রবাসীদের কোন উপকার হলো না।”

মাদারিপুরের আরেক প্রবাসী কুদ্দুস মন্ডল বলেন, ” পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আমাদের বলেছিলো দূতাবাসে গিয়ে ভিসার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে। দূতাবাসে গেলে তারার ৩১টি এজেন্সির তালিকা ধরিয়ে দেয়। তালিকায় থাকা প্রতিষ্ঠানগুলো দুই দফা আমার আবেদন জমা দেয়। কিন্তু এখন ভিসার মেয়াদ না বাড়িয়েই পাসপোর্ট ফেরত দিচ্ছে দূতাবাস। এই কয়দিনে ঢাকা আসা যাওয়ার অন্তত পাঁচ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এমনিতেই আমরা ১০ মাস বেকার, তারওপর এই ভোগান্তিতে এখন পথে বসার অবস্থা হয়েছে।”

আরও পড়ুন:  বাংলাদেশের সাথে ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে সৌদি এয়ারলাইন্স

সৌদি ভিসা সার্ভিস সেন্টার্স ওনার্স এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক কফিল উদ্দিন মজুমদার প্রবাস বার্তাকে জানান, “দূতাবাসের চাহিদা অনুযায়ি আমরা সকল নিয়ম মেনে পাসপোর্ট জমা দিয়েছিলাম। মঙ্গলবার অনলাইনে মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়টি দেখাও গেছে। কিন্তু এখন নতুন করে কফিলের ( নিয়োগদাতা ) লেটার দিতে বলছে দূতাবাস। এখন প্রবাসীরা কফিলের লেটার দিলে সেই আবেদনগুলো কার্যকর হবে বলে আশা করছি।”

এদিকে, প্রবাসীরা বলছেন, কফিল বা নিয়োগদাতার সাথে যোগাযোগ করতে পারছেন না বলেই তারা দূতাবাসের মাধ্যমে আবেদন করেছিলেন। কফিলের লেটার আনতে পারলে তো সৌদি আরব থেকে অনলাইনের মেয়াদ বাড়িয়ে নেয়া যেতো।

এবিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, মঙ্গলবার ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়টি অনলাইনে শো করছিলো ( দেখা যাচ্ছিলো)। এখন কেন সেটি বাতিল করা হলো, সৌদি আরবের সীমাবদ্ধতা কী, তা সমাধানের জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আলোচনা করা হবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সাম্প্রতিক খবর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে Bangla Magazine সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান নিউজ ম্যাগাজিন অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।