19 C
Dhaka
মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০২০
প্রচ্ছদ প্রচ্ছদ

পরিচালকের পদ হারাচ্ছেন আকরাম খান

পড়া যাবে: < 1 minute

বাংলাদেশ ক্রি’কেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের পরি’চালকের পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হতে পারে আক’রাম খানকে। সাবেক এই অধি’নায়কের পদে দায়িত্ব পেতে পারেন বর্ত’মানে হাই পার’ফরম্যান্স বিভাগের দায়িত্বে থাকা নাই’মুর রহমান দুর্জয়। বি’সিবির একটি সূত্র দে’শের এক ক্রিকেটীয় গণ’মাধ্যমকে এমনটা নিশ্চিত করেছেন। মূলত জাতীয় দলের দলের সা’ফল্যের হার কমে যাওয়ার কারণেই বিসিবির ক্রিকেট পরি’চালনা বিভাগে পরি’বর্তন আনতে যাচ্ছেন বিসিবি সভাপ’তি নাজ’মুল হাসান পাপন।

ইতো’মধ্যেই প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও প্রধান কোচ রাসেল ডমি’ঙ্গোর সঙ্গে এনিয়ে আলাপ করেছেন পাপন। জিম্বা’বুয়ে সিরিজের পরই এমন রদবদল আনতে পারে বি’সিবি। সম্প্রতি বিশ্ব’কাপ জিতেছে বাংলা’দেশের যুব দল। যুব দলের এমন সাফল্যের পেছনে বড় রকমের অব’দান আছে বিসিবির ক্রিকেট উন্নয়ন ক’মিটির। এই কমিটির প্রধান হিসেবে আছেন সাবেক ক্রি’কেটার খালেদ মাহমুদ সু’জন। যুব দলের বিশ্ব’কাপ অর্জনে সুজনের ভূমিকা ইতো’মধ্যেই প্রশংসা পেয়েছে ক্রিকেট পা’ড়ায়।

যুব দলকে নিজ দেশ’সহ ইংল্যান্ড, ভারত, নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার মা’টিতে মিলিয়ে ৩০টি ম্যাচ খেলিয়েছে বিসিবির ক্রিকেট উন্নয়ন ক’মিটি। যেখানে ১৮টি ম্যাচে জিতেছে তারা। দ’ক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্ব’কাপ জয়ের নেপথ্যে এটি একটি বি’শাল উদ্যোগ ছিল, বলাই বাহুল্য। যুব দলের পারফর’ম্যান্সের বড় ধরনের কৃতিত্ব পাচ্ছে বিসিবির ক্রিকেট উ’ন্নয়ন কমিটি। একইসঙ্গে বিশ্ব’কাপ থেকে জাতীয় দলের

বেহাল পার’ফরম্যান্সের কারণে সমালোচিত হচ্ছে বিসিবির ক্রিকেট পরি’চালনা বিভাগ। এদিকে আরও কিছু জায়গায় পরি’বর্তন আনতে পারে বিসিবি। বিসিবির সুযোগ-সু’বিধা প্রণয়ন ক’মিটির পরিচালক লোক’মান হোসেন ভুঁইয়া বর্তমানে কারা’গারে থাকায় তাঁর জায়’গায় সৈয়দ আশিকুল ইস’লাম টিটু অথবা শফিউল ইস’লাম চৌধুরী নাদেলকে বসানোর চিন্তা’ভাবনা করছে বিসিবি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দেশের ৮০ শতাশং গার্মেন্টস বন্ধ হওয়ার আশংকা

পড়া যাবে: < 1 minute

প্রাণ’ঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে চীন থেকে পণ্য’বাহী জাহাজ আসা মারাত্মকভাবে হ্রাস পেয়েছে। এতে বিপর্যয়ের মুখে পড়তে যাচ্ছে দেশের আম’দানি-রপ্তানি বাণিজ্য। বিশেষ করে স্বা’ভাবিক সময়ে প্রতি মাসে চট্ট’গ্রাম বন্দরে চীন থেকে সরা’সরি ১৫টি জাহাজ এলেও চলতি মাসে এসেছে মাত্র দুটি জাহাজ। কমেছে চীন থেকে ক’ন্টেইনার আসার পরিমাণও। একই সঙ্গে ঝুঁকি এ’ড়াতে চীন থেকে আসা জাহাজ’গুলোকে যাত্রা শুরু থেকে ১৪ দিন অতি’বাহিত না হলে বন্দরে প্রবেশের অনু’মতি না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃ’পক্ষ।

ব্যবসায়ী’দের মতে, ফে’ব্রুয়ারি মাসে পণ্য নিয়ে চীন থেকে যে দুটি জাহাজ এসেছে সে’গুলো মূলত ডি’সেম্বর বা তার আগে ঋণ’পত্র খোলা হয়েছিলো। প্রথমে চীনা নব’বর্ষ ও পরে করোনা ভাইরাসের কারণে জানুয়ারি থেকে ঋণ’পত্র খোলা এক প্রকার বন্ধ। চীন থেকে গার্মেন্টেসের কাঁচা’মাল ছাড়াও চামড়াজাত পণ্য, ঢেউ’টিন, রড, সিরামিক তৈরির কাঁচা’মাল আমদানি করা হয়। কয়লা’ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রেরও মালা’মাল আসে চীন থেকে।

এ প্রসঙ্গে বাংলা’দেশ শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভা’পতি শফিকুল আলম বলেন, দেশের ৮০ শতাশং বিদ্যুৎকেন্দ্র চীনের ওপর নির্ভর’শীল। প্রায় সব চাইনিজ প্র’জেক্ট বন্ধ হয়ে গেছে। চট্টগ্রাম চেম্বার অব ক’মার্সের পরিচালক এস এস আবু তৈয়ব বলেন, মার্চ মাসের পর থেকে দেশের ৮০ শতাংশ গার্মেন্টস বন্ধ হয়ে যাবে। কারণ বাংলা’দেশের প্রায় সব কাঁচা’মালই চীন থেকে আসে। এদিকে চীনা বন্দর ছেড়ে আসা  জাহাজ’গুলোকে  কমপক্ষে ১৪ দিন  পর্য’বেক্ষণে রাখার  পর বন্দরের প্রধান

জেটিতে প্রবেশের অনু’মতি দেয়ার বিধান চালু করেছে চট্ট’গ্রাম বন্দর কর্তৃ’পক্ষ। এছাড়া অন্যান্য জাহাজ’গুলোর ক্ষেত্রে বন্দরে প্রবেশের আগে নাবিক এবং ক্রুদের শারীরিক তথ্য ব’ন্দরের কাছে জমা দিতে হবে শিপিং এজেন্টকে। ফ্রেইট ফরো’য়ার্ডার অ্যাসোসিয়েশনের পরি’চালক খায়রুল আলম সুজন বলেন, এটি একটি ভালো পদ’ক্ষেপ। তবে আমাদের আম’দানী বাণিজ্যে কোনো প্র’ভাব যেনে না পরে তা খে’য়াল রাখতে হবে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

বন্ধ হচ্ছে না রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান সান্ধ্যকোর্স

পড়া যাবে: 2 মিনিটে

বন্ধ হচ্ছে না রাজশাহী বিশ্ব’বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও ইন’স্টিটিউটের অধীনে চলমান সান্ধ্যকোর্স। এমনটিই জানাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্য’কোর্স থাকা, না থাকার যৌক্তিকতা যা’চাইয়ে গঠিত কমিটির সদস্যরা। যৌ’ক্তিকতা যাচাই কমিটির সদস্য ও কৃষি অনু’ষদের ডীন অধ্যাপক ড. সালেহা জেসমিন বলেন, গঠিত কমিটি এরই মধ্যে ২ টি সভায় বসেছেন। সভায় পক্ষে বি’পক্ষে অনেক কথা হয়েছে। তবে যেটুকু সি’দ্ধান্ত হয়েছে তাতে হঠাৎ করেই সান্ধ্য’কোর্স বন্ধ করা যাচ্ছে না। আস্তে আস্তে ব’ন্ধের ব্যাপারে সি’দ্ধান্ত নেওয়া হবে। চলতি শি’ক্ষার্থীর বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে এমন’টি হতে পারে বলে জানান তিনি। এ’দিকে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি যৌ’ক্তিকতা যাচাই কমিটির সভা আহ’বান করা হয়েছে।

সেখানে সান্ধ্য’কোর্সের বিষয়ে চূড়ান্ত সুপারিশ’মালা তৈরি করা হবে বলে জানা গেছে। ক’মিটির আহবায়ক ও বিশ্ব’বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনন্দ ‘কুমার সাহা বলেন, অধিকাংশ সদস্য যে মতা’মত দিবেন তার ভিত্তিতে সুপারিশ মালা তৈরি করা হবে। প্রা’থমিক যে আলোচনা তাতে সান্ধ্’যকোর্স চালু থাকার পক্ষেই সু’পারিশ দিতে হবে আমাদের। সেই সুপারিশ শিক্ষা পরিষদের স’ভায় পেশ করব আমরা। শিক্ষা পরিষদের সদস্যরা সি’দ্ধান্ত নিবেন আদতে সান্ধ্য’কোর্স বন্ধ হবে কিনা। যদি শিক্ষা পরিষদ মনে করেন সান্ধ্যকোর্স বন্ধ হওয়া দর’কার। তাহলেই বন্ধ হবে। এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর ইউ’জিসির পক্ষ থেকে সান্ধ্য’কোর্স বন্ধসহ ১৩ টি নির্দেশনা দেওয়া হয়।

যার প্রেক্ষিতে বিশ্ব’বিদ্যালয়ের ২৫১ তম একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় বিশ্ব’বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহাকে আহ’বায়ক করে ১০ জন ডীনকে নিয়ে যৌ’ক্তিকতা যাচাই কমিটি গঠন করা হয়। যৌক্তিকতা যাচাই কমিটি গঠনের পরও থেমে নেই সান্ধ্য’কোর্সে ভর্তি। বিশ্ব’বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সান্ধ্য’কালীন স্নাত’কোত্তর কোর্স চালু আছে ১৪ টি বিভাগে ও তিনটি ইন’স্টিটিউটে। আইন অনুষদের আইন বিভাগে, বিজনেস স্টাডিজ অনু’ষদের হিসাব’বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা, ম্যানেজ’মেন্ট স্টাডিজ, মার্কেটিং, ফাইন্যান্স, ব্যাংকিং ও ইন’স্যুরেন্স বিভাগে, সামাজিক

বিজ্ঞান অনুষদে অর্থনীতি, রাষ্ট্র’বিজ্ঞান, সমাজকর্ম, সমাজবিজ্ঞান, গণ’যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, ইনফরমেশন সায়েন্স এন্ড লাইব্রেরি ম্যানেজমেন্ট, প্রকৌশল অ’নুষদে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে, বিজ্ঞান অনু’ষদের পরি’সংখ্যান বিভাগে। এছাড়াও ব্যবসা প্রশাসন ইনস্টিটিউট, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, ইনস্টিটিউট অব ইং’লিশ এন্ড আদার ল্যাঙ্গু’য়েজেজ সান্ধ্যকোর্স প’রিচালনা করছে। এছাড়া ভর্তিতে অসচ্ছতা, পরীক্ষায় ছাড়, ন’কল নির্ভর পরীক্ষা, দেওয়া হয় উপ’স্থিতির ছাড়ও। আর এ নিয়ে খোদ শিক্ষকদের মধ্যেই গ্রুপিং। নিয়’মিত কোর্সের শি’ক্ষার্থীদের অভিযোগ সান্ধ্য’কোর্স ও তাদের রে’জাল্টেও তফাত ঢের।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির জন্য কোনো আবেদনই করা হয়নি

পড়া যাবে: < 1 minute

বিএনপি চেয়ার’পারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলে মু’ক্তির জন্য দল বা খালেদা জিয়ার প’রিবার থেকে কোনো আবে’দনই করা হয়নি। এ বিষয়ে কেউ কোনো ই’চ্ছাও প্রকাশ করে’নি বলে জা’নিয়েছেন স্বরাষ্ট্র’মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। সোম’বার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বি’কেলে ঢাকা বিশ্ব’বিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অ’নুষদের সম্মেলন কক্ষে এক অ’নুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাং’বাদিকদের

এক প্র’শ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্র’মন্ত্রী বলেন, কারাবন্দী খালেদা জি’য়ার প্যারোলে মুক্তির জন্য নিয়ম মেনে আ’বেদন করতে হবে। তার প্যা’রোলে মুক্তি নিয়ে সবাই কথা বল’ছেন। সবার মুখে মুখে শো’না গেলেও এখনও কেউ আবেদনই করেন’নি। এমনকি যারা মুক্তি চান তারা কো’নো ইচ্ছাও প্রকাশ করেন’নি।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়া এক’জন সাজাপ্রাপ্ত আসামী। তিনি কারাগারে থেকে বঙ্গ’বন্ধু শেখ মুজিব মেডি’ক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাস’পাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তার মু’ক্তির বিষয়টি আদালতের মাধ্যমেই সু’রাহা হবে। এ নিয়ে সরকারের  কিছু ক’রার  নেই। এর আগে স্বরাষ্ট্র’মন্ত্রী  জঙ্গি অর্থায়ন

বিষয়ক অনু’ষ্ঠানে বলেন, হুন্ডির মাধ্যমে জঙ্গি অর্থায়ন হচ্ছে কিনা সেদিকে সর’কার সতর্ক আছে। বিভিন্ন সময় বি’ভিন্ন নামের আড়ালে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী অপ’তৎপরতার মাধ্যমে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাইছে  উ’ল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, দেশে প্রচ’লিত ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে যে’নো কেউ দেশকে অস্থিতি’শীল করতে না পারে, তার জন্য নজর’দারী বাড়ানো হয়েছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে নিয়োগ করা হচ্ছে আরও ১৮ হাজার শিক্ষক

পড়া যাবে: < 1 minute

শিগগিরই সারা’দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’গুলোতে আরও ১৮ হাজার ১৪৭ জন সহ’কারী শিক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে। তাদেরকে অ’গ্রাধিকার ভিত্তিতে হাওর, বাওর, উপ’কূল ও দুর্গম এলাকায় পদা’য়নের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণ’শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) স্পি’কার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভা’পতিত্বে জাতীয় সংসদ অধি’বেশনে বিএনপি দলীয় সং’সদ সদস্য হারুনুর রশীদের আনীত সি’দ্ধান্ত প্রস্তাবের জবাবে প্রতি’মন্ত্রী এ তথ্য জানান। জা’কির হোসেন বলেন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সর’কারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৭১৭ জন শিক্ষক নি’য়োগ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া স’ম্প্রতি ঘোষিত শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় চূ’ড়ান্ত ফলাফল অনুযায়ী খুব শিগ’গির সারা দেশে সর’কারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’গুলোতে ১৮ হাজার ১৪৭ জন সহ’কারী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রতি বছর শিক্ষকদের অবসর’জনিত কারণে শূন্য পদ’গুলোতে নিয়মিত শি’ক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে। বদলি, মৃত্যু’জনিত কারণ, পিটিআই, বিপিএড প্রশিক্ষণ, মাতৃত্বকালীন ছুটি, চিকিৎসাজনিত ছুটি, বিভিন্ন সময় প্রশিক্ষণ’জনিত কারণে সাময়িক শূন্য পদ পূরণের উ’দ্দেশ্যে সহ’কারী শিক্ষকের মোট পদের ২০ শতাংশ অর্থাৎ ৬৮ হাজার ৩৩৮টি ছুটি রি’জার্ভ পদ সৃজন সর’কারের সক্রিয় বিবেচনা’ধীন রয়েছে।

প্রতি’মন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, চর অঞ্চল, উপকূল, হাওর-বাওর অঞ্চলে এবং পা’হাড়ি অঞ্চলে পাঠ’দানের উপযুক্ত প’রিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে ইউনিয়ন, স্থানীয় সর’কার কোটায় শিক্ষক নীতিমালা প্রণয়নে আ’পাতত কোনও পরিকল্পনা সর’কারের নেই। তিনি আরও বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা সহকারী শিক্ষকের বিদ্য’মান শূন্য পদে সরা’সরি নিয়োগের জন্য কে’ন্দ্রীয় প্রাথমিক শিক্ষক নির্বাচন কমিটি কর্তৃক চূড়ান্ত’ভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের দুর্গম হাওর অঞ্চল, দ্বীপ অঞ্চল এলাকার বি’দ্যালয়ে শূন্য পদ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্র’দানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সড়ক পার হওয়ার সময় বাস চাপায় ২ মেডিকেলের শিক্ষার্থী নিহত

পড়া যাবে: < 1 minute

ঘড়ির কাঁটায় সন্ধ্যা আনু’মানিক ৬ টা ৪৫। মহা’সড়কে টহল দিচ্ছেন ডিউটি’রত কয়েকজন থানার পুলিশ। হ’ঠাৎ করেই তারা খবর পায় সড়ক দুর্ঘটনার। ঘটনা’স্থলে গিয়ে পুলিশ জানতে পারে সড়ক পার হওয়ার সময় বাস চা’পায় নিহত হয় দুই জন। পরে মর’দেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসে থানায়। পুলিশ তাদের ব্যবহৃত মো’বাইল ফোন উদ্ধার করে খুঁ’জতে থাকেন তাদের পরিচয়। মো’বাইল নামের সূত্র ধরে পরি’বারের কাছে ফোন করে প’রিচয় একের পর খোঁজে পায় তাদের নাম ঠি’কানা।

ফোনে ওপাশ থেকে নিহত স্বজন’দের কান্নার আওয়াজ। রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) স’ন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব গোলচত্বরে এই মর্মা’ন্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, গাজী’পুর জেলার কাপা’শিয়া উপজেলার তরগাঁও গ্রামের সাইদুর রহ’মানের মেয়ে সাদিয়া ইসলাম নদী (২৬), লক্ষী’পুর সদর উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের মৃত মুস’লিম উদ্দিনের ছেলে মাঈন উদ্দিন হা’মীম তুর্য্য (২১)।

থানা পুলিশ জানায়, ২ নিহত দুই শিক্ষার্থী টা’ঙ্গাইল ম্যার্টস অধ্যায়ন’রত শেখ হাসিনা মেডি’কেল কলেজের ইন্টার্নি ২০১৯-২০২০ সালের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী। তারা উভয়ই বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব এ’লাকায় দিনের কোন এক সময়ে বে’ড়াতে আসছিল। পরে সন্ধ্যায় গোল’চত্বরে সড়ক পার হওয়ার সময় উত্তর’বঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী গোবিন্দ’গঞ্জ স্পেশাল (ঢাকা মেট্রো-ব, ১১-৯৯৭৫) বাসের ধাক্কায় পিষ্ট হয়ে ঘটনা’স্থলে নিহত হয়।

নি’হতের খবর সত্যতা নিশ্চিত করে বঙ্গ’বন্ধু সেতু পূর্ব থানার এস আই জায়েদ আব্দুল্লাহ বিন ছরওয়ার বলেন, নিহত ২ শিক্ষার্থী মরদেহ উ’দ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে। পরি’বারের স্বজনদের কাছে সড়ক দুর্ঘ’টনা ও নি’হতের খবর জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে স্বজন’দের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হবে। অন্য’দিকে, ঘাতক বাস চালক পালিয়ে গেলেও বাস’টিতে আ’টক করা হয় বলেও জা’নান তিনি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

মদিনা শরিফের আদর্শ অনুসরণ করে পাকিস্তানকে মহৎ রাষ্ট্রে পরিণত করে দেব

পড়া যাবে: < 1 minute

পাকিস্তানে প্রধান’মন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমি কখনো বলিনি যে পাকিস্তানকে এ’শিয়ার বাঘ বানিয়ে দেব। আমি বলে এসেছি– মদিনা শরিফের আদর্শ অনু’সরণ করে পাকিস্তানকে একটি মহৎ রাষ্ট্রে পরি’ণত করে দেব। গভর্নর হাউসে সেহাত ইন’সাফ কার্ড বিতরণ অনু’ষ্ঠানে শনিবার দেয়া ব’ক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি সর’কারের অব’হেলার কারণেই পাকিস্তানে চিনি ও ময়’দার সংকট তৈরি হয়েছে বলে স্বী’কার করে নেন। ইমরান খান বলেন, এই গম সং’কট থেকে কারা লাভবান হয়েছেন, তাও তিনি জানেন।

কাজেই ভ’বিষ্যতে কোনো পণ্যের ঘা’টতি তৈরি হলে তা জানতে সর’কার একটি ব্যবস্থা দাঁড় করিয়েছে। মায়ো হাস’পাতালের ক্যান্সারের রোগী’দের চেহারা ভুলতে না পা’রার কষ্ট থেকেই তিনি শও’কত খানম হাস’পাতালটি প্র’তিষ্ঠা করেছেন বলেও জানান। এ’সময় নির্বাচনে তার দল পিটিআইয়ের ব্যাপক বিজয়ের নেপথ্য কারণও বলেন তিনি। ইম’রান খান বলেন, স্বাস্থ্য কার্ড ব্যবস্থার

কারণেই আমরা দুই-তৃতী’য়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষম’তায় আসতে পেরেছি। সাবেক এই ক্রিকেট তারকা বলেন, প্রথম তিন থেকে চার বছর মদিনা রাষ্ট্রে অনেক গণ্ডগোল ছিল। কা’জেই মদিনার আ’দর্শের পথে এগিয়ে যাওয়ার আরেকটি পদ’ক্ষেপ হচ্ছে এই স্বাস্থ্য’কার্ড বিতরণ। মজুতদার ও ভেজাল দেয়া মাফিয়া’দের বিরুদ্ধে অভিযান সহজ করতে পা’ঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তিনি গুরুত্ব’পূর্ণ বৈঠক করেছেন।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

আগামী বছর থেকে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে

পড়া যাবে: 2 মিনিটে

আগামী বছর থেকে বুয়েট, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব’বিদ্যালয়সহ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা অ’নুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা’মন্ত্রী ড. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, সম’ন্বিত শিক্ষা আইন দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল, সেটি এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। আশা’করছি খুব শিগগিরই মন্ত্রি’পরিষদের নিয়ে যেতে পারব। আ’মাদের উচ্চ শিক্ষার অ্যাক্রি’ডিটেশন কাউন্সিল গঠন করেছি। সেখানে সকল বিশ্ব’বিদ্যালয়ের কোর্স কারি’কুলাম থেকে শুরু করে সব সাব’জেক্টের মান যেন সঠিক রাখা যায়। রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে রাষ্ট্র’পতির ভাষণের ওপর আনিত ধন্য’বাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন। শিক্’ষামন্ত্রী বলেন, ন্যাশনাল কোয়ালি’ফিকেশন ফের্ম ওয়ার্ক সেটিও চড়ান্ত’করণের কাজ চলছে। উচ্চ শিক্ষার জন্য প্লান ২০১৮ ও ২০৩০ প্রণয়ন করেছি।

বিশ্ব’বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের যে ন্যুন’তম যোগ্যতা থাকা উচিত তারও একটি নির্দেশীকা প্রণয়ন করছি। তিনি বলেন, সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার দাবি দীর্ঘ দিনের। বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীরা এবং যারা আর্থিক’ভাবে কিছুটা পিছিয়ে আছেন তাদের সারা দেশে ঘুরে ঘুরে বিশ্ব’বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেয়া সেটি অত্যান্ত কষ্টকর। তারমধ্যে দিয়ে অনেক বিশ্ব’বিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেবার সু’যোগ থেকে বঞ্চিত হয়। সেটি যেন না হয় সেজন্য সম’ন্বিত ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতো’মধ্যে কৃষি বিশ্ব’বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে সেটি হচ্ছে। আগামী বছর থেকে আশা’করছি অন্যান্য সকল ক্লাস্টারে অর্থাৎ সাধারণ বিশ্ব’বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব’বিদ্যালয় প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় এ ধরণের ক্লাস্টার’গুলোতেও সমন্বিতভাবে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করতে পারব।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয়’ভাবে আমরা গবেষণাগার করব। উদ্ভাবনী ল্যাব করব। অর্থাৎ একাডেমী এবং শিল্পের মধ্যে স’মন্বয়ের অভাব রয়েছে। দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যোগ্য লোক পাচ্ছে না আবার অনেক শিক্ষিতরা বেকার রয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিল্প আর সমন্বয়ের মাধ্যমে কর্ম’জগতের চাহিদা অনুযায়ী কোর্স কারি’কুলাম করার জন্য কাজ করছি। এমপিওভুক্তি নিয়ে বিভিন্ন সমা’লোচনার জবাবে মন্ত্রী বলেন, এমপিও ভুক্তির যে নীতিমালা হয়েছিল সেই অনু’যায়ী এই প্রক্রিয়া শেষ করা হয়েছে। এখন যাচাই বাছাই চলছে। সেখানে কারো হস্ত’ক্ষেপের কোন সুযোগ ছিল না। প্রতিবছরই এই প্রক্রিয়ায় এম’পিওভুক্তি করব। যারা আবেদন করেছিলেন সম্পূর্ণ কম্পিউটা’রাইজড পদ্ধতিতে সেখান থেকে এমপিও ভুক্তির তা’লিকা করা হয়েছে।

এখন যাচাই বাছাইয়ে যদি কারো ভুল তথ্য ধরা পরে তাহলে তালিকা থেকে সেগুলো বাদ পড়বে, অব’শ্যই বাদ দেওয়া হবে। খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে বিএনপি নেতা’দের দাবির জবাবে বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করা হচ্ছে। আমি বুঝি না এক’জন দুর্নীতির দায়ে আসামী, তাকে সর’কার কি’ভাবে মুক্তি দেবে? তার সাজা হয়েছে আদালতে, সর’কারের কাছে আবেদনের তো কোন বিষয় না। আদালত দিয়েছে আদালত চাইলে মুক্তি দিতে পারে। আর তারা যদি দোষ স্বী’কার করে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করে সেটা রাষ্ট্র’পতির এখতিয়ার। সংসদ সদস্য হারুনুর রশী’দের আনীত সিদ্ধান্ত প্রস্তাবের জবাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতি’মন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সর’কারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ লাখ ৭৯ হাজার ৭১৭ জন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া অতি সম্প্রতি ঘোষিত শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় চূড়ান্ত ফলাফল অনু’যায়ী শিগগিরই সারা’দেশে সর’কারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’গুলোতে ১৮ হাজার ১৪৭ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, সর’কারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধি’মালা সহকারি শিক্ষকের বিদ্যমান শূন্য পদে সরা’সরি নিয়োগের জন্য কে’ন্দ্রীয় প্রাথমিক শিক্ষক নির্বাচন কমিটি কর্তৃক চূড়ান্ত’ভাবে নির্বাচিত প্রার্থী’দের দুর্গম হাওর অঞ্চল, দ্বীপ অঞ্চল এলাকার বিদ্যালয়ে শূন্য পদ অ’গ্রাধিকার ভিত্তিতে প্র’দানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জাকির হোসেন বলেন, আমাদের শিক্ষক স্বল্পতা আছে। তবে এ বিষয়ে নতুন নিয়োগ’কৃত শিক্ষক-শিক্ষিকারা তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উপ’কূলীয় অঞ্চলে প্রথমে পদা’য়ন করতে চাচ্ছি। এ বিষয়ে সমস্ত ডিপিও’দের চিঠি দিয়েছি এবং নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

শত বিরোধিতা সত্ত্বেও দেশজুড়ে নাগরিকত্ব আইন চালু হবেই

পড়া যাবে: < 1 minute

ভারতের প্রধান’মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন ৩৭০ ধারা বিলোপ ও সং’শোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে কেন্দ্রীয় সর’কার তার পুরোনো সি’দ্ধান্তেই অটল থাকবে। শত বিরোধিতা সত্ত্বেও দেশ’জুড়ে এই আইন চালু হবেই। রবিবার উত্তর’প্রদেশের বারাণসীতে এক জন’সভা থেকে দৃঢ়তার সাথে মোদি এই মন্তব্য করেন। মোদি বলেন, জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল থেকে শুরু করে নাগরিকত্ব সং’শোধনী বিল পাস করানোর ক্ষেত্রে দেশের মানুষ এরকম এক সি’দ্ধান্তের ব্যাপারে অপেক্ষা করেছিল। দেশের স্বার্থেই এসব সি’দ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এর’পরই সিএএ চালু করা নিয়ে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে তিনি বলেন, যে সি’দ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তাতে আমরা অটল এবং আমরা তা থাকবও। কোনো চা’পের মুখেই তা থেকে পিছিয়ে আসব না। বি’জেপি নেতারা সিএএ নিয়ে সুর চড়ালেও এন’আরসি নিয়ে বার’বার বিবৃতি দিতে বাধ্য হয়েছে মোদির সর’কার। বিভিন্ন সভার পাশা’পাশি সংসদেও লিখিত বি’বৃতি দিয়ে সর’কার জানিয়ে দেয় এন’আরসি নিয়ে এখনও কোনো চিন্তা ভা’বনা করছে না তারা।

দুদিন আগেই একটি টিভি চ্যানেলের অনু’ষ্ঠানে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছিলেন, কেউ যদি তার সঙ্গে সিএএ নিয়ে আলো’চনা করতে চান তাহলে দরজা খোলা। তার ওই বক্তব্য শুনে শনি’বারই শাহিন’বাগের আন্দোলন’কারীরা জানিয়েছিলেন, তারা দেখা করতে চান অমিত শাহের সঙ্গে। রোববার সে মোতাবেক শাহিন’বাগ থেকে মিছিল শুরু করেন কয়েকশ সংখ্যা’লঘু মহিলা। এগিয়ে যেতে থাকেন অমিত শাহের বাস’ভবনের দিকে। কিন্তু কিছুটা যাওয়ার পরই তাদের আটকে দেয় পুলিশ।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

জেনে নিন উচ্চতা অনুযায়ী আপনার ওজন কত হওয়া উচিত

পড়া যাবে: 2 মিনিটে

সু’স্বাস্থ্য সবারই কাম্য। তাইতো দৈন’ন্দিন চলাফেরা, খাওয়া-দাওয়া ই’ত্যাদির প্রতি হতে হবে যত্নবান। তবে স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য জানা প্রয়োজন উচ্চতা অনু’যায়ী আপনার ওজন কতটা হওয়া জরুরি। অনে’কেই স্বাস্থ্য ভালো করতে গিয়ে ওজন বাড়িয়ে ফেলেন। এতে না’নান রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। তাই প্রত্যেকটি মানুষের উচ্চ’তার সঙ্গে ওজনের সাম’ঞ্জস্য বজায় রাখা জ’রুরি। চলুন তবে জে’নে নেয়া যাক উচ্চতা অনু’যায়ী আপনার ওজন কত হওয়া উ’চিত –

> ৪ ফুট ৭ ইঞ্চি থেকে ৫ ইঞ্চি’দের জন্য ওজন থাকতে হবে ৪০ থেকে ৫৮ কেজি। এটি পুরুষ’দের জন্য প্রযোজ্য। আর নারীদের জন্য ৩৬ থেকে ৫৫ কেজি। > ৫ ফুট ১ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৪৮ থেকে ৬০ কেজি ও নারী’দের ওজন ৪৫ থেকে ৫৭ কেজি। > ৫ ফুট ২ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৫০ থেকে ৬০ কেজি ও নারীদের ওজন ৪৬ থেকে ৫৮ কেজি। > ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি পুরুষের ও’জন ৫১ থেকে ৬৩ কেজি ও নারী’দের ওজন ৪৮ থেকে ৬১ কেজি। > ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৫২ থেকে ৬৬ কেজি ও নারীদের ও’জন ৪৮ থেকে ৬৩ কে’জি।

> ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি পুরু’ষের ওজন ৫৫ থেকে ৬৮ কেজি ও নারী’দের ওজন ৫০ থেকে ৬৫ কেজি। > ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি পুরুষের ও’জন ৫৬ থে’কে ৭০ কেজি ও নারীদের ওজন ৫৩ থেকে ৬৭ কেজি। > ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৫৭ থেকে ৭২ কেজি ও নারীদের ওজন ৫৪ থেকে ৬৯ কে’জি। > ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি পু’রুষের ওজন ৬০ থেকে ৭৪ কেজি ও নারী’দের ওজন ৫৬ থেকে ৭১ কেজি। > ৫ ফুট ৯ ই’ঞ্চি পুরুষের ওজন ৬৩ থেকে ৭৬ কেজি ও নারী’দের ওজন ৫৭ থেকে ৭২ কে’জি।

> ৫ ফুট ১০ ই’ঞ্চি পুরুষের ওজন ৬৫ থেকে ৭৯ কেজি ও নারীদের ওজন ৫৯ থেকে ৭৩ কে’জি। > ৫ ফুট ১১ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৬৭ থেকে ৮১ কেজি ও নারী’দের ওজন ৬১ থেকে ৭৫ কেজি। > ৬ ফুট ০ ইঞ্চি পুরু’ষের ওজন ৬৯ থেকে ৮৩ কেজি ও নারীদের ওজন ৬৩ থেকে ৭৭ কেজি। > ৬ ফুট ১ ইঞ্চি পুরুষের ওজন ৭১ থেকে ৮৫ কেজি ও নারী’দের ওজন ৬৫ থেকে ৭৯ কেজি। > ৬ ফুট ২ ইঞ্চি পুরু’ষের ওজন ৭৩ থেকে ৮৭ কেজি ও নারীদের ওজন ৬৭ থকে ৮১ কে’জি।

বাংলা ম্যাগাজিন /এসপি

সর্বশেষ সংবাদ

পরিচালকের পদ হারাচ্ছেন আকরাম খান

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দেশের ৮০ শতাশং গার্মেন্টস বন্ধ হওয়ার আশংকা

বন্ধ হচ্ছে না রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান সান্ধ্যকোর্স

খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির জন্য কোনো আবেদনই করা হয়নি

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে নিয়োগ করা হচ্ছে আরও ১৮ হাজার শিক্ষক