চাকরিপ্রার্থীদের বয়সসীমায় ২১ মাস ছাড় দিলো সরকার

করোনার পরিস্থিতির কারণে সরকারি চাকরিপ্রার্থীদের বয়সসীমা ২১ মাস মাস বাড়িয়েছে সরকার। গত বছরের ২৫ মার্চ থেকে চলতি বছরের পুরোটাই, অর্থাৎ ২১ মাস এই ছাড় দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনের এক নির্দেশনায় এই খবর আসে।

করোনা মহামারির কারণে গত বছরের মার্চ থেকে সরকারি চাকরিতে সব ধরনের নিয়োগ স্থগিত ছিল। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দিতে বয়সে ২১ মাস ছাড়ের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে সরকার।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, যেসকল মন্ত্রণালয় বা বিভাগ ও এর অধীনস্থ অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, দপ্তর, এবং সংবিধিবদ্ধ, স্বায়ত্তশাসিত, জাতীয়করণ করা হয়েছে এমন প্রতিষ্ঠানসমূহ কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে বিভিন্ন ক্যাটাগরির সরকারি চাকরিতে (বিসিএস ব্যতীত) সরাসরি নিয়োগের লক্ষ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারেনি সেসব প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রকাশিতব্য বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ২০২০ সালের ২৫ মার্চ নির্ধারণপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকল মন্ত্রণালয় বিভাগকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হল।

বর্তমানে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ বছর ও বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে ৩২ বছর। করোনা মহামারিতে প্রথম দফায় সাধারণ ছুটির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাকরি প্রার্থীদের বয়সের ক্ষেত্রে ছাড় দেয় সরকার। গত বছরের ২৫ মার্চ যাদের বয়স ৩০ বছর পূর্ণ হয়েছিল তাদের পরবর্তী পাঁচ মাস, অর্থাৎ আগস্ট পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দেওয়া হয়।

কিন্তু গত এপ্রিল থেকে ফের লকডাউন চলছে। এ কারণে মন্ত্রণালয়, বিভাগ কিংবা সংস্থাগুলো চাকরির জন্য বিজ্ঞপ্তি দিতে পারছে না। তাই চাকরি প্রার্থীদের আরেকটি সুযোগ দিলো সরকার।

Leave a Comment